Updates :

        ক্যালিফোর্নিয়ায় আবারো একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

        লস এঞ্জেলেসে বৃষ্টি ও তুষারপাত, বাড়বে শীত

        ক্যালিফোর্নিয়ায় 'সমকামী বিরোধী' বক্তব্যের জেরে গীর্জায় বোমা হামলা

        বৃটেনের সেরা তরুণ ব্যবসায়ী বাংলাদেশি হারুন

        লস এঞ্জেলেসে গ্যাসোলিনের দাম বাড়লো ৩ সপ্তাহে ২০ বার

        ম্যারাডোনার স্বাক্ষর নকল করেছিলেন চিকিৎসক

        এবার বঙ্গোপসাগরের কোলে ‘ইত্যাদি’

        মিক্সড ড্রাই ফ্রুটস কেন খাওয়া প্রয়োজন?

        লস এঞ্জেলেস কাউন্টিতে ২৪ দিনে মৃত পাঁচ হাজার!

        ত্বকের যত্নে নারিকেল তেল

        বাইডেনের সঙ্গে ‘চমৎকার’ সম্পর্কের আশা সৌদি আরবের

        আল্লাহর ওপর পূর্ণ আস্থার অনুপম দৃষ্টান্ত

        ঐতিহাসিক গণঅভ্যুত্থান দিবস আজ

        রাশিয়ায় ‘পুতিনবিরোধী’ বিক্ষোভ, গ্রেফতার ৩ হাজার

        দেশে দারিদ্র্যের হার বেড়েছে, আয় কমেছে ৫৫.৯ ভাগ পরিবারের

        মেক্সিকোতে ভয়াবহ করোনা, একদিনে ১৪৭০ জনের মৃত্যু

        সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে চার লেনের কাজ শুরু জুলাইয়ে

        ক্যালিফোর্নিয়ায় শনাক্ত হলো করোনার নতুন আরেক স্ট্রেইন!

        লস এঞ্জেলেস ও অন্য কাউন্টিতে টিকার অ্যাপয়েন্টমেন্ট পেতে করনীয় জেনে নিন!

        বাংলাদেশে লন্ডন ফেরতদের কোয়ারেন্টাইন আবার ৭ দিন

লস এঞ্জেলেসে বিবর্ণভাবে চলে গেল বড়দিন

লস এঞ্জেলেসে বিবর্ণভাবে চলে গেল বড়দিন

করোনাভাইরাস আমাদের সবকিছুকে যেন ওলট-পালট করে দিয়েছে। খৃস্টান সম্প্রদায়ের জন্য ‘বড়দিন’ সত্যিই বড় একটি দিন। আনন্দের একটি দিন। রঙিন একটি দিন। বর্ণিল একটি দিন। কিন্তু এবারের বড়দিনটি কেটে গেল খুবই সাদামাটা-বিবর্ণ।

এখানে প্রতি বছর বড়দিন উপলক্ষে খৃস্টান সম্প্রদায়ের বিভিন্ন সংগঠন ব্যাপক আয়োজন করে থাকে। কিন্তু এবার করোনার কারণে নানা বিধি নিষেধ রয়েছে বাইরে বের হওয়া এবং সম্মিলিত হওয়া নিয়ে। তাই ঘরোয়া এবং ব্যক্তিগতভাবে বড়দিন উদযাপন করলেন লস এঞ্জেলেস প্রবাসী খৃস্টান সম্প্রদায়।

জানা যায়, ক্যালিফোর্নিয়ার সবচেয়ে বেশি খৃস্টান অধ্যুষিত এলাকা সান বার্ডিনোয় প্রতিবছর বড়দিনে ৩টি সংগঠন ব্যাপক আয়োজন করে। এর মধ্যে রয়েছে Bengali Evangelical Association এবং Bangladeshi Christian Fellowship of California। তারাও এবার কোনো আয়োজন করতে পারেনি।

তবে বাইরে কোনো আয়োজন না করতে পারলেও ঘরোয়াভাবে বড়দিন উদযাপন করেন খৃস্ট ধর্মাবলম্বীরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ ভার্চুয়াল বিভিন্ন মাধ্যমে পারস্পরিক শুভেচ্ছা বিনিময় এবং নিজ নিজ ঘর থেকে প্রার্থনা করেছেন তারা।


Bangladeshi Christian Fellowship of California এর প্রেসিডেন্ট গাব্রিয়েল বাড়ই জানান, সরকার এবং স্থানীয় প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা থাকায় আমরা সবাইকে মেইলের মাধ্যমে বড়দিনের শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছি। সবাই ঘরে ঘরে প্রার্থনা করেছি। আমাদের সবার কাছে বার্তা দিয়েছি সবাই যেন প্রার্থনা করেন, করোনার এই বিপর্যস্ত সময়টা যেন দ্রুত শেষ  হয়। সবার উপর শান্তি বর্ষিত হয়। যারা ইতোমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তাদের সুস্থতাও কামনা করেন গাব্রিয়েল বাড়ই।


এদিকে ক্যাথলিক খৃস্টানদের কেউ কেউ বড়দিনে গির্জায় গিয়ে প্রার্থনা করেন।


উল্লেখ্য, বর্তমানে লস এঞ্জেলেসে ব্যাপকভাবে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। খৃস্টান সম্প্রদায়ের অনেকেও আক্রান্ত বলে খবর পাওয়া গেছে।

 

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এলএ

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত