আরেক ধাপ এগিয়ে গেল লিটল বাংলাদেশ বিউটিফিকেশন প্রজেক্ট

আরেক ধাপ এগিয়ে গেল লিটল বাংলাদেশ বিউটিফিকেশন প্রজেক্ট

‘লিটল বাংলাদেশ’ লস এঞ্জেলেস প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য একটি গর্বের নাম। লস এঞ্জেলেসে বাস করছেন প্রায় ৬০ হাজার বাংলাদেশি। যারা চাকুরি, ব্যবসা, পড়াশোনা এবং নানাবিধ কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার পাশাপাশি যুক্ত হচ্ছেন আমেরিকার মূল ধারার রাজনীতিতেও। প্রবাসী কমিউনিটির অনেক চেষ্টার পর ২০১০ সালে লস এঞ্জেলেস সিটির একটি এলাকাকে ‘লিটল বাংলাদেশ’ নামে নামকরণ করে সিটি কর্তৃপক্ষ। এই এলাকায় প্রবাসী বাংলাদেশিরা বসবাসের পাশাপাশি এখানে গড়ে তুলেছেন বিভিন্ন ধরণের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

বছরখানেক আগে লিটল বাংলাদেশ এলাকার সৌন্দর্য বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে প্রণীত হয় ‘বিউটিফিকেশন প্রজেক্ট’। যার উদ্যোক্তা ছিলেন প্রবীণ প্রবাসী কমিউনিটি এক্টিভিস্ট  ও লেখক কাজী মশহুরুল হুদা।

বিউটিফিকেশন প্রজেক্ট এর লিটল বাংলাদেশ সাইনের রেপলিকা প্রতিস্থাপন প্রজেক্ট বাস্তবায়নে স্পন্সর করে প্রবাসী কমিউনিটির সংগঠনগুলোর সম্মিলিত ফেডারেশন ‘বাংলাদেশ ইউনিটি ফেডারেশন অব লস এঞ্জেলেস (বাফলা)’।


লিটল বাংলাদেশ এলাকায় স্থাপন করা হয়েছে 'লিটল বাংলাদেশ' সাইনের রেপলিকা'র দশটি সাইন।  থার্ড এন্ড আলেকজান্দ্রিয়া স্ট্রিট থেকে শুরু করে থার্ড এন্ড নিউ হ্যাম্পশায়ার স্ট্রিটের রাস্তার দুইপাশে এই সাইনগুলো স্থাপন করা হয়।

মঙ্গলবার ১৩ জুলাই ২০২১ এই রেপলিকা সাইনগুলো লাগানো হয়।

সরেজমিনে দেখা যায়, থার্ড স্ট্রিটের উপর দিয়ে দু’পাশে শোভা পাচ্ছে উক্ত সাইনগুলো। রাতের অন্ধকারে গাড়ির হেডলাইটে জ্বলজ্বল করে ওঠে ‘লিটল বাংলাদেশ’ লেখাগুলো।