আপডেট :

        ফিলিস্তিনকে এবার রাষ্ট্র হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দিয়েছে আর্মেনিয়া

        বন্যার পানিতে নৌকাডুবি, মেডিকেল শিক্ষার্থীর মৃত্যু

        বন্যার পানিতে নৌকাডুবি, মেডিকেল শিক্ষার্থীর মৃত্যু

        বিষধর রাসেলস ভাইপার সাপের কামড়ে এক কৃষকের মৃত্য

        বিষধর রাসেলস ভাইপার সাপের কামড়ে এক কৃষকের মৃত্য

        প্রবাসীদের আয়ে ভর করে বাড়ল রিজার্ভ

        প্রবাসীদের আয়ে ভর করে বাড়ল রিজার্ভ

        রাষ্ট্রীয় সফরে দিল্লি পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

        রাষ্ট্রীয় সফরে দিল্লি পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

        কোরআন অবমাননায় শাস্তি স্বরূপ পর্যটককে 'জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যা'

        একটু ধাক্কা লাগলে আওয়ামী লীগ সরে যাওয়ার পাত্র নয়ঃওবায়দুল কাদের

        একটু ধাক্কা লাগলে আওয়ামী লীগ সরে যাওয়ার পাত্র নয়ঃওবায়দুল কাদের

        ৭০০ থেকে ৮০০ কোটি ডলার পাচার হয় বলে ডলার-সংকট

        সূর্যের ফিফটিতে শক্ত পুঁজি ভারতের

        ট্রেজারি বিল ও বন্ডে ব্যাংকের বিনিয়োগ বৃদ্ধি

        দুর্নীতি মামলায় জামিন পেয়েছেন ভারতের দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল

        বিষাক্ত মদ পানে ৩৭ জনের মৃত্যু

        বিষাক্ত মদ পানে ৩৭ জনের মৃত্যু

        লেবাননের সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ ইইউ সদস্য দেশ সাইপ্রাসকেও সতর্ক করেছে

        ইফাত রাজস্ব কর্মকর্তারই ছেলে, জানালেন এমপি নিজাম

বিশ্ব রেকর্ড গড়ল পদ্মাসেতু

বিশ্ব রেকর্ড গড়ল পদ্মাসেতু

পদ্মাসেতুর ১২ ও ১৩ নম্বর পিলারের ওপর ‘টু-এফ’ নামের ৪১তম স্প্যানটি বৃহস্পতিবার সকালে স্থাপনের মধ্য দিয়ে এখন পুরো ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার সেতু দৃশ্যমান। এর মধ্য দিয়ে মুন্সিগঞ্জের মাওয়ার সঙ্গে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তের মধ্যে সংযোগ স্থাপিত হয়েছে।

বিজয়ের মাসেই পুরো সেতু দৃশ্যমান হওয়ায় পদ্মা জয়ের স্বপ্নপূরণ হয়েছে। শুধু তাই নয় দেশের মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতু নির্মাণে তিনটি বিশ্ব রেকর্ডও হয়েছে।

বিশ্ব রেকর্ড তিনটি হলো- বিশ্বের দীর্ঘতম ১২২ মিটার পাইল স্থাপন, ১৫ টন ওজনের ৯৮৭২৫ কিলো নিউটন ক্ষমতা সম্পন্ন ফিকশন প্যান্ডিলাম বেয়ারিং ব্যবহার ও নদী শাসনের সর্বোচ্চ ১.১ বিলিয়ন (প্রায় ৮ হাজার ৮শ’ কোটি) টাকার চুক্তি।

তিন বিশ্বরেকর্ডের বিষয়ে পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী রজ্জব আলী জানান, সেতুতে ১৫টন ওজনের ৯৮৭২৫ কিলো নিউটন ক্ষমতা সম্পন্ন ফিকশন প্যান্ডিলাম বেয়ারিং ব্যবহার করা হচ্ছে। যা উচ্চ মাত্রার ভূমিকম্প প্রতিরোধক। পুরো সেতুতে ৫ ধরণের ৯৬টি বেয়ারিং ব্যবহার করা হচ্ছে। যার মধ্যে ৩৫টি স্প্যানের সঙ্গে দুইটি করে বেয়ারিং ব্যবহার করা হচ্ছে। আর সেতুর এক্সপানশন জয়েন্টে ৪টি করে বেয়ারিং ব্যবহার হচ্ছে। ৬.১৫ কিলোমিটার সেতুতে মোট ৭টি জয়েন্ট থাকছে।

এছাড়াও কোনো নির্মাণ কাজে বিশ্বে প্রথম দুই বিশেষ উপাদান ব্যবহার হয়েছে। একটি হচ্ছে- ভার্টিক্যাল আরসিসি বোর্ড পাইলে গ্রাউটিং ইনজেক্ট স্কিন ফিকশন করে দৃঢ়তা বৃদ্ধি করে নদীর তলদেশে বর্হিভাবে শক্তি বৃদ্ধি। পদ্মায় এমন পাইল সংখ্যা ২২টি। অপরটি হলো স্টিল টিউবুলার ড্রিভেন পাইলে গ্রাউটিং ইনজেক্ট করে পাইলের তলদেশের স্কিন ফিকশন সক্ষমতা বৃদ্ধি করা। এমন পাইল সংখ্যা ২৫২ টি।

পদ্মা সেতু প্রকল্পে নদী শাসনে চায়না সিনোহাইড্রো কর্পোরেশনের সঙ্গে সর্বোচ্চ প্রায় ৮ হাজার ৮০০ কোটি টাকার চুক্তি হয়। এটিও বিশ্ব রেকর্ড। নদী শাসনে এখন পর্যন্ত এত বড় চুক্তি আর কোথাও হয়নি।

পদ্মা সেতুর পাইলে ১ লাখ ৪৬ হাজার মেট্রিক টন স্টিল ব্যবহার করা হয়েছে। সবমোর্ট ২৬৬ পাইল। আর পদ্মা সেতুর ৪১টি স্প্যানের ওজন ১ লাখ ১৬ হাজার ৩৮৮ মেট্রিক টন। প্রতিটি স্প্যানের সর্বোচ্চ ওজন ৩০ হাজার ৮৮ মেট্রিক টন। পদ্মা সেতুর প্রতিটি পাইলের সক্ষমতা ১২৪.৬০ মেগা নিউটন। অর্থাৎ প্রায় ৮ হাজার ৭০০ মেট্রিক টন। পদ্মা সেতুর দুই প্রান্তে রয়েছে ১২.১২ কিলোমিটার অ্যাপ্রোচ রোড। পদ্মা সেতুতে ২৯৬০টি রেলওয়ে স্ল্যাব এবং ২৯১৭টি রোডওয়ে স্ল্যাব স্থাপন হচ্ছে।

ইউরোপের লুক্সেমবার্গ থেকে আনা রেলওয়ে স্ট্যানজার স্থাপন হচ্ছে প্রতিটি স্প্যানে চারটি করে। সেতুতে সাধারণ আলোর ব্যবস্থা ছাড়াও আর্কিটেকচার লাইটিংও থাকছে। বিশেষ দিবসগুলোতে এবং বিশেষ সময়ে লাইটিংয়ের মাধ্যমে সৌন্দর্যবর্ধণ করা হবে।

এই প্রকল্পের আওতায় পদ্মা সেতুর ন্যাশনাল গ্রিডিংয়ের জন্য সেতুর ৫০০ মিটার ভাটিতে পদ্মায় ৮টি বৈদ্যুতিক টাওয়ারের পাইল স্থাপন করা হয়েছে। ৬.১৫ কিলোমিটার মূল সেতুর সাথে ৩.৬৮ কিলোমিটার সংযোগ সেতুসহ পদ্মা সেতু হচ্ছে ৯.৮৩ কিলোমিটার। সংযোগ সেতুর মাওয়া প্রান্তে ১.৪৭৮০৩ কিলোমিটার এবং জাজিরা প্রান্তে ১.৬৭০০৩ কিলোমিটার। আর মূল সেতুর সাথে দুই প্রান্তে রেল সংযোগ সেতু রয়েছে ১.৫৩২ কিলোমিটার।

পদ্মা সেতুতে সিসি ক্যামেরা থাকছে। সেতু চালুর প্রথমেই প্রতিদিন ১২ হাজার যান পারাপার হবে। ২০৩০ সালে পদ্মা সেতু দিয়ে প্রতিদিন ৩০ হাজার গাড়ি চলাচলের টার্গেট রয়েছে। শুরুর দিকে প্রতিদিন টোল আদায়ে আয় হবে প্রায় আড়াই কোটি টাকার। আর অতিরিক্ত মাল পরিবহন ঠেকাতে সেতুর দুই প্রান্তে দুইপারেই ওয়েব্রিজ বসানো হচ্ছে।

সেতুর দুপারে অ্যাপোচ রোডের মধ্যে জাজিরা প্রান্তে সাড়ে ১০ কিলোমিটার এবং মাওয়া প্রান্তে ১.৬৭ কিলোমিটার। এটি উদ্বোধন হয় ২০১৭ সালে ৮ জানুয়ারিতে। পদ্মা সেতুর প্রকল্পের পুনর্বাসনে জন্য ২৯০৬ প্লট করা হয়েছে। এরমধ্যে ২৮৫৫টি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্লটের রেজিস্টশন শুরু হয়েছে ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে। এখন পর্যন্ত ১৩৬টি রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়েছে।

এদিকে প্রাণী জাদুঘরে ২২৮১টি প্রাণীকূলের নমুমা সংগ্রহ হয়েছে। পদ্মা সেতুর সার্ভিস এরিয়ায়-১ এই জাদুঘর। এখানে ব্রিজ মিউজিয়ামও হচ্ছে। সেতুতে যে সব উপকরণ, বেয়ারিং, গার্ডারসহ যেসব কিছু ব্যবহার হয়েছে পার্টে পার্টে এর নমুনা থাকছে এই জাদুঘরে।

 

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/বি

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত