Updates :

        নাইজেরিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় ৩০ সেনা নিহত

        পাগলা মসজিদের দানবাক্সে মিলল ৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা

        কেন্টাকিতে গুলিতে ৩ পুলিশ কর্মকর্তা নিহত

        নানাবিধ সংকটে সিলেট-সুনামগঞ্জের বন্যাদুর্গতরা

        চর দেখতে যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়া সফরে ২০ সরকারি কর্মকর্তা

        বুয়েটে চান্স পেয়ে আবরার ফাহাদের ছোট ভাইয়ের আবেগঘন স্ট্যাটাস

        বিএনপির ত্রাণ বিতরণ স্থলে আ’লীগের কর্মসূচি, ১৪৪ ধারা জারি

        নুপুর শর্মাকে জাতির কাছে ক্ষমা চাইতে বললেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

        লিভারপুলে আরও ৩ বছর থাকছেন সালাহ

        নৌকায় করে মালয়েশিয়ায় প্রবেশের সময় ৩৭ বাংলাদেশি আটক

        মেরিল্যান্ডে সাধু আন্তনীর পর্ব উদযাপন

        ২৭ বছরের সম্পর্কের ইতি টানলেন মীর

        আফগান আলেমদের বৈঠকে তালেবানের শীর্ষ নেতা

        ‘বাংলাদেশ পুলিশ দেশের জনগণের প্রথম ভরসাস্থল হতে চায়’

        সুনামগঞ্জে বন্যায় ১৮০০ কোটি টাকার ক্ষতি

        ইয়েমেনে প্রায় দুই কোটি মানুষ ক্ষুধার্ত

        পদ্মা সেতুর নাট খোলার ভিডিও পোস্ট করায় আরেক যুবক গ্রেফতার

        পেনসিলভেনিয়ায় নাট্য সংগঠনের পুনর্গঠনের লক্ষ্যে মতবিনিময় সভা

        গুগল সার্চে সবার আগে যারা

        ইউক্রেনকে আরো ১৩০ কোটি মার্কিন ডলার দিল যুক্তরাষ্ট্র

সিলেটে প্লাবিত হচ্ছে উঁচু এলাকাও

সিলেটে প্লাবিত হচ্ছে উঁচু এলাকাও

এমনিতেই বন্যার কারণে নাজুক সিলেটের পরিস্থিতি। এর মধ্যেই অবিরাম বৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলে পরিস্থিতি আরও খারাপ হচ্ছে। শনিবার (১৮ জুন) সকাল ৯টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত টানা বৃষ্টিতে সিলেট নগরের অনেক এলাকায় নতুন করে পানি প্রবেশ করেছে।

নগরীর মদীনা মার্কেট, বাগবাড়ি, সুবিদবাজার, কলাপাড়া, আম্বরখানা, চৌহাট্টাসহ অনেক উঁচু এলাকা আজ পানির নিচে তলিয়ে গেছে। প্রবল স্রোতসহ পানি প্রবেশ করতে থাকায় এসব এলাকার বাসিন্দারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।

ঘণ্টাখানেক সময়ের মধ্যে বিভিন্ন রাস্তাঘাট তলিয়ে গেছে। নগরের ড্রেন-রাস্তা উপচে পানি প্রবেশ করছে বাড়িঘরে। এতে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে স্থানীয় সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে।

নগরীর দরগা মহল্লা এলাকায় জাফরান নামে একটি রেস্টুরেন্টে কর্মরত জাফর আলী বলেন, এই এলাকায় সাারণত বন্যার পানি প্রবেশ করে না। আজ সকাল ৯টা থেকে অবিরাম ভারী বর্ষণে রাস্তাঘাট ডুবে গেছে। পানি আরও বাড়লে আমাদের হোটেলেও প্রবেশ করবে। সব মিলিয়ে খুব খারাপ অবস্থা যাচ্ছে আমাদের।

নগরের বাগবাড়ির বাসিন্দা নিজাম উদ্দিন বলেন, এত ভয়াবহ পরিস্থিতি আমি এর আগে কখনো দেখিনি। বন্যা হয়ে পানি বেড়েছে কিন্তু এরকম উজানি ঢল আর একইসঙ্গে এত বৃষ্টিপাত দেখিনি।

সিলেট আবহাওয়া অফিসের জ্যৈষ্ঠ এক আবহাওয়াবিদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেটে গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল এক ১০৮.৭ মিলিমিটার। সেখানে আজ সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বৃষ্টিপাত রেকর্ড হয়েছে ১৫৭ মিলিমিটার। এর মধ্যে সকাল ৬টা থেকে ৯টা পর্যন্ত ছিল ৪৭ মিলিমিটার এবং সকাল ৯টা থেকে দুুপুর ১২টা পর্যন্ত ছিল ১১০ মিলিমিটার। আজ আরও বৃষ্টি হবে এবং এই অবস্থা আরও ২-৩ দিন অব্যাহত থাকবে।

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত