আপডেট :

        বৈরি আবহাওয়ায় বাতিল হচ্ছে ফ্লাইট

        সরকারি অর্থে ঋষি সুনাকের বাগানের জন্য কেনা ভাস্কর্য নিয়ে বিতর্ক

        জরুরি অবস্থা ঘোষণা ইতালিতে

        ‘কৃত্রিম সূর্য’ তৈরিতে বড় অগ্রগতি

        এবার এসএসসিতে গড় পাসের হার ৮৭.৪৪%

        দুপুর ১টায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসএসসি ও সমমানের ফল হস্তান্তর

        ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর ৬০ শতাংশই ঢাকায়

        ফিজিওথেরাপিতে নাসার প্রযুক্তি ব্যবহার নেইমারকে সারিয়ে তুলতে

        রোনালদোদের আজ উরুগুয়ে পরীক্ষা

        মরক্কোর কাছে হারের পর দাঙ্গা বেধেঁছে বেলজিয়ামে

        টানটান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে স্পেন-জার্মানির ম্যাচে সমতা

        ক্যালিফোর্নিয়ার সময় অনুযায়ী ম্যাচ সিডিউল: ২৮ নভেম্বর

        এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ কাল

        সান বার্নার্ডিনোয় সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত ২, আহত ১

        বিদ্যুৎবিহীন পরিস্থিতিতে জেলেনস্কির সমালোচনার শিকার কিয়েভের মেয়র

        অর্থনৈতিক সংকটের কারণে এ বছর হচ্ছে না পদ্মা ও মেঘনা বিভাগ

        জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হলো ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ

        গুগলে সবচেয়ে বেশি খোঁজা হয়েছে সাবেক এই তারকা দম্পতিকে

        তিনা-রিয়াজ আহমেদ দম্পতি পুত্র সন্তানের মা-বাবা হয়েছেন

        সড়ক দুর্ঘটনার কবলে জনপ্রিয় অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস নিয়ে বন্যার্তদের সহায়তা দিতে সিলেট যাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস নিয়ে বন্যার্তদের সহায়তা দিতে সিলেট যাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত বৃহত্তর সিলেটি শিক্ষার্থীদের সংগঠন জালালাবাদ স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের জন্য ত্রাণ সহায়তা নিয়ে সিলেট যাচ্ছেন সিলেটি শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীতের যাতায়াত সুবিধায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

মঙ্গলবার (২১ জুন) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আলাওল হল থেকে প্রায় এক হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার নিয়ে রওয়ানা দেয় বাসটি।


গত ৩ দিন জালালাবাদ স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা বিশ্ববিদ্যালয় এবং এর আশপাশ থেকে ৩ লক্ষাধিক টাকা বন্যার্তদের সহায়তার জন্য সংগ্রহ করেন। সে টাকা দিয়ে চট্টগ্রাম থেকেই মালামাল কিনে প্যাকেট করা হয়। যা সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে বন্টন করা হবে৷

জালালাবাদ স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মাসরুর আহমেদ বলেন, আমাদের জন্মস্থান সিলেট ও সুনামগঞ্জের মানুষ বন্যার অতিব কষ্টের মধ্যে আছেন। এমন অবস্থায় প্রিয়জনদের কষ্টের সময় আমরা বসে থাকতে পারি না। তাই আমাদের সাধ্য অনুযায়ী আমরা চেষ্টা করেছি কিছু সহযোগিতা করার।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া বলেন, বন্যার্তদের জন্য আমাদের শিক্ষার্থীরা কাজ করেছে এটা অত্যন্ত গর্বের বিষয়। আমাকে বাসের কথা বলার পর আমি বিষয়টা উপাচার্য মহোদয়কে জানালে তিনি সাথে সাথে শিক্ষার্থীদের জন্য একটা বাসের ব্যবস্থা করতে বলেন। শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করতে পেরে আমাদেরও ভালো লাগছে।

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত