আপডেট :

        অবসরে রোমান সানা

        বিদায় নিচ্ছেন ইলিয়াস কাঞ্চন

        বিমান থেকে গাজায় মানবিক সহায়তা যুক্তরাষ্ট্রের

        বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস

        আবদুল কাদের জিলানী (র:) এর মাজার জিয়ারতের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ

        মিসরে পৌঁছেছে হামাস

        কারাগারে ওসমানীর সাদেক

        দ্রুত বিচার আইন স্থায়ী করতে সংসদে বিল পাস

        বিজেপির প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ

        শাবি প্রেসক্লাবের নবগঠিত কমিটির অভিষেক

        অনির্বাচিত কেউ সংসদে আসতে পারে না: সংসদ স্পিকার

        পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ

        সময়ের আলোর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

        এবারের নির্বাচন সবচেয়ে অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

        এই বাংলাদেশির জন্য ২০ হাজার ডলার পুরস্কার ঘোষণা মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার

        কৃষি বার্ষিক গবেষণা পর্যালোচনা কর্মশালা

        বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ও আহতদের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমবেদনা

        মন্ত্রীর সংবর্ধনায় দু’পক্ষের উত্তেজনা, চেয়ার ভাঙচুর

        যুক্তরাজ্যে গেলেন রাষ্ট্রপতি

        বাসচাপায় পুলিশ সদস্যের মৃত্যু

মান্নানের বিরুদ্ধে লড়ছেন না মনোনয়ন বঞ্চিতরা

মান্নানের বিরুদ্ধে লড়ছেন না মনোনয়ন বঞ্চিতরা

সুনামগঞ্জ-৩ (জগন্নাথপুর-শান্তিগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী একাধিক প্রার্থী থাকালেও দলের মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তারা। দলীয় প্রতিদ্বন্দ্বি কোন প্রার্থীর সঙ্গে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হবে না ক্ষমতাসীন দলের মনোনীত প্রার্থী পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান কে। এ জন্য স্বস্তিতে আছেন দুই উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ।

বৃহস্পতিবার মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন পর্যন্ত ৪ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

নির্বাচন সহকারি রিটার্নিং অফিসার জগন্নাথপুর উপজেলা নিবার্হী কর্মকতার সাজেদুল ইসলামের হাতে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন তৃণমূল বিএনপির মনোনীয় প্রার্থী সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী, জাতীয় পার্টির দলীয় প্রার্থী যুক্তরাজ্য প্রবাসী তৌফিক আলী মিনার ও জাতীয় গণফ্রন্ট এর মকবুল হোসেন। এর আগে বুধবার মনোনয়নপত্র দাখিল করেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য, পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। এছাড়া জাকের পাটির নজরুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহফুজুর রহমান খালেদ রিটানিং কর্মকর্তার নিকট মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

দলীয় নেতা কর্মীরা জানান, স্বাধীন বাংলার প্রথম পররাষ্ট্রমন্ত্রী, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, প্রয়াত জাতীয় নেতা আব্দুস সামাদ আজাদ একাধিকবার সুনামগঞ্জ—৩ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচন হন। ২০০৫ সালের ২৭ এপ্রিল তিনি মৃত্যবরণ করলে শূন্য আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। উপনির্বাচনে চারদলীয় জোটের প্রার্থী মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী সামান্য ভোটে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক যুগ্ম সচিব এমএ মান্নানকে সামান্য ভোটে পরাজিত করে নির্বাচিত হন। এরপর এমএ মান্নান আওয়ামী লীগে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগদান করেন।

২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এমএ মান্নান আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়ে প্রথমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হন। অনুরূপভাবে ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে এমএ মান্নান আওয়ামী লীগের প্রার্থী মনোনীত হয়ে নির্বাচিত হয়ে সরকারের অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর পালন পালন করেন। বর্তমানে তিনি পরিকল্পনামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন ৫ জন। তাঁরা হলেন— বর্তমান সংসদ সদস্য, পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরী কমিটির সদস্য আজিজুস সামাদ ডন, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য খায়রুল কবীর রুমেন পিপি, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ নেতা আশরাফুল ইসলাম। গত ২৬ নভেম্বর আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে এমএ মান্নানের নাম ঘোষণা করা হয়।

এদিকে এবারের নির্বাচনকে উৎসবমুখর করতে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী বিপক্ষে দলের মনোয়নবঞ্চিতরা নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন। মনোয়নবঞ্চিতদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক কোন ব্যবস্থা নেয়া হবে না কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের এমন ঘোষণায় দেশের বিভিন্ন আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হচ্ছেন তারা। কিন্তু সুনামগঞ্জ—৩ আসনে মনোনয়নবঞ্চিত কেউ প্রার্থী হননি। তবে এই আসনেই আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরিন কোন্দল রয়েছে।

জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের এক নেতা জানালেন, দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে মনোনয়ন বঞ্চিত কোন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না। সে জন্য আওয়ামী লীগের মধ্যে স্বস্তি থাকলেও দলের মধ্যে বিরাজমান কোন্দল নিরসন করার উদ্যোগ নিতে হবে। জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু বলেন, জগন্নাথপুরের আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ হয়ে নৌকার পক্ষে কাজ করবে।

আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত প্রার্থী পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেন, চতুর্থবারের মতো আমাকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। এ জন্য আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞ। এলাকার উন্নয়নে আমার আন্তরিকতার কোন অভাব ছিল না। আমি বিশ্বাস করি, সরকারের ধারাবাহিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড এগিয়ে নিতে নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দলীয় নেতাকমীর্রা মাঠে কাজ করবেন।

 এলএবাংলাটাইমস/আইটিএলএস

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত