আপডেট :

        ঈদের দিনে দেশে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা

        ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এসআইকে মারধর

        আত্মশুদ্ধির বাসনায় পবিত্র হজ পালিত

        ঈদের আনন্দে ডেঙ্গু যেন বিষাদের কারণ না হয়

        সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাইয়ের মৃত্যু

        সেন্টমার্টিনের কাছে মিয়ানমার যুদ্ধজাহাজ নিয়ে এসে বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত হানার চেষ্টা করছে

        ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের দুইজন কর্মকর্তাকে বদলি

        সাভারে মাদক ব্যবসা, বাধা দিলে হত্যার শিকার হচ্ছে নিরীহ মানুষ

        দেশের তিনটি বিভাগে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে

        লিফটে পরিচালককে মারধর, অভিযুক্ত কর্মকর্তার পদায়ন বাতিল

        বাধা ছাড়াই ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক সমাপনী অনুষ্ঠিত

        ঈদ উল আযহা উপলক্ষে স্বাস্থ্য অধিদফতরের ১৪ নির্দেশনা

        যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে এবার পাল্টা ব্যবস্থা নিল রাশিয়া

        তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঝাঁজ তুলে শুরু হচ্ছে ইউরো

        ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য সিকিমে ভারী বৃষ্টির প্রভাবে বাড়ছে তিস্তা নদীর পানি

        স্ট্রোকে আক্রান্ত নোয়াম চমস্কি

        ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য সিকিমে ভারী বৃষ্টির প্রভাবে বাড়ছে তিস্তা নদীর পানি

        রাজধানীতে জাতীয় ঈদগাহ তে ঈদুল আজহার প্রথম জামাত সকাল সাড়ে ৭টায়

        রাজধানীতে জাতীয় ঈদগাহ তে ঈদুল আজহার প্রথম জামাত সকাল সাড়ে ৭টায়

        ২১ জুন দিল্লি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

সিলেট- ৩ আসনের এমপির উদ্বোধন করা রাস্তার নির্মাণ কাজ বন্ধ করলো জামায়াত নেতা!

সিলেট- ৩ আসনের এমপির উদ্বোধন করা রাস্তার নির্মাণ কাজ বন্ধ করলো জামায়াত নেতা!

ছবিঃ এলএবাংলাটাইমস

সিলেট- ৩ আসনের সংসদ সদস্য এমপি হাবিবুর রহমান হাবিবের উদ্বোধন করা সড়কের নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছে স্থানীয় জামায়াত নেতা আফিয়ান চৌধুরী গং।

সরেজমিনে প্রত্যক্ষ করে জানা গেছে, ২০২৩ সালের ৮ নভেম্বর IRIDP-3 প্রকল্পের আওতায় শাহসিকন্দর-খাজাখালু সড়ক উন্নয়ন (চেইনেজ ০০-৩৭৫ মিঃ) কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন এমপি হাবিবুর রহমান হাবিব। সড়ক নির্মাণের প্রাক্কলিত মূল্য বরাদ্দ করা হয় ৭৭ লাখ ৬৪ হাজার ৫৬৩ টাকা। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি), দক্ষিণ সুরমা- সিলেট এর বাস্তবায়নে সড়কটির নির্মাণ কাজের দায়িত্ব পায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স আল ফারুক এন্টারপ্রাইজ।

ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি সড়ক বর্ধিতকরণ ও নির্মাণ কাজ শুরু করে। তবে সর্বশেষ ৫০ মিটার সড়কের নির্মাণ কাজ বাকি থাকা অবস্থায় সড়কের মাঝে দেয়াল তুলে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে জোরপূর্বক নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয় স্থানীয় জামায়াত নেতা আফিয়ান চৌধুরী। পরবর্তীতে স্থানীয়ভাবে সালিশের পর সেই দেয়াল ভেঙে ফেলা হলেও সড়কের নির্মাণ কাজ আর শুরু হয়নি।

যে সড়কটির নির্মাণকাজ আফিয়ান চৌধুরী গংরা বন্ধ করেছেন, সেটি বিগত কয়েক যুগ ধরে জনসাধারণের যাতায়াতের মূল সড়ক হিসেবে ব্যবহার হয়ে আসছে। এছাড়া এর আগে দুইবার সরকারি অনুদানে এই সড়ক সংস্কার হয়েছে বিধায় নিয়মানুসারে এটি সরকারি সড়ক হিসেবেই চিহ্নিত হয়ে আসছে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, নির্মাণাধীন এই মূল সড়কের উপর ২ গ্রামের অন্তত ৬ হাজার বাসিন্দা নির্ভরশীল। খাজাখালু গ্রামের সরকারি কমিউনিটি ক্লিনিকের সেবা পেতে গ্রামবাসীকে এই সড়ক ব্যবহার করতে হয়। এছাড়া সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও অন্যান্য জনপ্রয়োজনীয় দপ্তরে যাতায়াতের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সড়ক হিসেবে গ্রামবাসী এটির উপর নির্ভর করে।

ইতোপূর্বে এই সড়কটি অপ্রশস্ত ও কাঁচামাটির হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে জনগণ কষ্ট করে চলাচল করে আসছিল। বিশেষ করে বর্ষাকালে বৃদ্ধ, গর্ভবতী নারী ও স্কুলগামী শিশুদের অবর্ণনীয় কষ্ট ভোগ করতে হতো। তবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেওয়া উন্নয়ন কর্মসূচি ‘গ্রামেও শহরের সেবা’ বাস্তবায়নে সড়কটির পাকাকরণ কাজ শুরু করলেও সর্বশেষ ৫০ মিটার সড়ক সম্পন্ন হওয়া বাকি থাকা অবস্থায় আফিয়ান চৌধুরী গং জোরপূর্বক নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। এতে কোমলমতি স্কুলগামী শিক্ষার্থী, সরকারি ক্লিনিকের রোগীসহ সর্বসাধারণের চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ‘শেখ হাসিনার দর্শন, গ্রামগঞ্জে উন্নয়ন’ এই অঙ্গীকারে ভরসা রেখে দুই গ্রামের ৬ হাজার বাসিন্দা এই মূল সড়কটি নিয়ে দীর্ঘকাল ধরে স্বপ্ন দেখে আসছে। এই সড়ক নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে গ্রামের মানুষ সহজেই উপজেলা সড়কে পৌঁছাতে পারবে। এছাড়া ‘শেখ হাসিনার অবদান, কমিউনিটি ক্লিনিক বাঁচায় প্রাণ’ এই অঙ্গীকারের সেবা পেতে গ্রামের মানুষ কমিউনিটি ক্লিনিকে নির্বিঘ্নে পৌঁছাতে পারবে।

তবে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, আফিয়ান চৌধুরী গং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের গেজেটভুক্ত সড়কের নির্মাণ কাজ জোরপূর্বক বন্ধ করে দিয়েছে এবং স্থানীয় সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে অহেতুক সময়ক্ষেপণ করছে।

নাম প্রকাশ করতে অনিচ্ছুক স্থানীয় একজন বাসিন্দা বলেন, ‘বর্তমানে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় রয়েছে। এরপরেও জামায়াত নেতা প্রভাব খাটিয়ে এমপির উদ্বোধন করা সড়কের নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। মনে হচ্ছে এই অঞ্চলে আওয়ামী লীগের এমন কোনো নেতা নেই যিনি সড়ক নির্মাণের কাজ চালু করতে পারেন। বিষয়টি খুবই উদ্বেগজনক এবং হতাশার'।

জানা গেছে, এই সড়কটির নির্মাণ কাজের মেয়াদকাল আর মাত্র ১ মাস রয়েছে। অতিদ্রুত এটির নির্মাণ কাজ শুরু করা না গেলে আগামী ১০০ বছরেও এই সড়ক উন্নয়নের কোনো সম্ভাবনা নেই বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এতে হাজার হাজার শিক্ষার্থী ও ক্লিনিকের সেবাপ্রার্থীরা চরম দূর্ভোগের কবলে পরবে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, এমপির উদ্বোধন করা সড়কের নির্মাণ কাজ বন্ধের বিষয়টি দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নির্বাহী অফিসার অবগত রয়েছেন এবং এসিল্যান্ড সাহেব সরেজমিনে সেটি পরিদর্শন করে গেছেন।

আফিয়ান চৌধুরী দ্বারা সড়কের নির্মাণ কাজ বন্ধের উত্থাপিত অভিযোগটি যাচাই করতে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এমপি হাবিবুর রহমান হাবিবের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তারা ফোন রিসিভ করেননি।

স্থানীয় বাসিন্দারা অসন্তোষ প্রকাশ করে জানান, আফিয়ান চৌধুরীর এহেন কার্যক্রমে সাধারণ মানুষ পথ চলাচলের অধিকার হারিয়ে জিম্মি হয়ে পরেছে এবং এতে জনমনে ব্যাপক নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, যে সড়কের নির্মাণ কাজ এমপি উদ্বোধন করে গেছেন, এটি অনেক আগে থেকেই একটি দৃশ্যমান সড়ক এবং যুগ-যুগ ধরেই জনসাধারণ চলাচলের জন্য এটি ব্যবহার করেছে। এলাকার সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে স্কুলগামী শিক্ষার্থীদের অভিভাবকসহ সকলের সড়কটি পাকারকরণে সমর্থন রয়েছে। তবে জামায়াত নেতা আফিয়ান চৌধুরীর প্রভাবে বর্তমানে নির্মাণ কাজ বন্ধ থাকায় চরম অসুবিধায় আছেন সাধারণ জনগণ।

সড়কের নির্মাণকাজ পুনরায় চালু করে জনসাধারণের কষ্ট লাঘবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত