যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 02:02am

|   লন্ডন - 09:02pm

|   নিউইয়র্ক - 04:02pm

  সর্বশেষ :

  বদলে গেল বাংলা বর্ষপঞ্জি, নতুন নিয়মে বুধবার ৩১ আশ্বিন   এ পি জে আবদুল কালাম: কিংবদন্তি হয়ে ওঠার গল্প   পাকিস্তান সফরে প্রিন্স উইলিয়াম ও কেট মিডলটন   আবরার হত্যা: অভিযুক্তদের স্থায়ী বহিষ্কারাদেশ না আসা পর্যন্ত ক্লাসে ফিরবে না শিক্ষার্থীরা   তুহিনকে বাবার কোলে পরিবারের সদস্যরা হত্যা করেছে : পুলিশ   ফতুল্লায় শিশু সন্তানকে ছাদ থেকে ফেলে মারল মা   মেক্সিকোতে বন্দুকধারীদের অতর্কিত হামলায় ১৪ পুলিশ নিহত   আবরার হত্যার প্রতিবাদে ওয়াশিংটনে বাংলাদেশীদের বিক্ষোভ   চাকরি করেন স্ত্রী, ৩ বছর ধরে অফিস করেন স্বামী   দারিদ্র্য বিমোচনের গবেষণায় অর্থনীতির নোবেল   রাসূলুল্লাহ (সা.) এর ৫ গুরুত্বপূর্ণ উপদেশ   জেরুসালেমের গভর্নরকে ধরে নিয়ে গেছে ইসরাইলি পুলিশ   সীমান্তে স্থলমাইন স্থাপনের তথ্য অস্বীকার করেছে মিয়ানমার   দেশ থেকে ৯ লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে : মেনন   ভারতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ১২ জন নিহত

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

চীন-যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ বিশ্বকে বিপর্যয়ের মুখে ফেলবে: চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৯-০৬-০২ ১৭:৪৭:৫৯

নিউজ ডেস্ক: চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে যুদ্ধ বা সংঘাত উভয় দেশ এবং সারা বিশ্বকে বিপর্যয়ের মুখে ফেলবে বলে হুঁশিয়ারি দিলেন চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী উয়েই ফেনঘে।

রোববার সিঙ্গাপুরে এশিয়ার বৃহত্তম প্রতিরক্ষা সম্মেলন শাংগ্রি-লা ডায়ালগে বক্তব্য প্রদানের সময় তিনি এই হুঁশিয়ারি দেন বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের সংবাদপত্র ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

উয়েই ফেনঘে জানান, চায়না আক্রমণের শিকার না হওয়া পর্যন্ত আক্রমণ করবে না। যদি যুক্তরাষ্ট্র যুদ্ধ চায়, তবে চীন এর শেষ দেখে ছাড়বে।

কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র যদি আলোচনা করতে চায়, তবে চীন দেশটির জন্য আলোচনার দরজা সবসময় খোলা রাখবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, চীনকে বিভক্ত করার কোনও প্রচেষ্টা সফল হবে না। তাইওয়ানের প্রশ্নে কারও কোনও ধরনের হস্তক্ষেপ, তার অবধারিত ধ্বংস ডেকে আনবে।

তিনি আরও বলেন, যদি কেউ চীন থেকে তাইওয়ানকে বিভক্ত করার সাহস দেখায়, তবে চীনের সেনাবাহিনীর কাছে যুদ্ধ ছাড়া আর কোনও উপায় থাকবে না।

তাইওয়ানের নিজস্ব পতাকা, মুদ্রা ও সরকার থাকলেও পূর্ব এবং দক্ষিণ চীন সাগরের মাঝে অবস্থিত এই দ্বীপের স্বাধীনতা কখনও মেনে নেয়নি বেইজিং।

তাই চীন থেকে তাইওয়ানকে বিচ্ছিন্নকারী জলপ্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর টহলদারি মাথাব্যথার কারণ হয়েছে বেইজিংয়ের।

তাইওয়ান স্বাধীনতা ঘোষণা করলে যুদ্ধ করতেও পিছপা হবে না বলেও ইতোমধ্যে একাধিক বার জানানো হয়েছে চীনের পক্ষ থেকে।

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ২৭৭ বার

আপনার মন্তব্য