যুক্তরাষ্ট্রে আজ বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 08:31pm

|   লন্ডন - 03:31pm

|   নিউইয়র্ক - 10:31am

  সর্বশেষ :

  মিয়ানমার কারও কথা শোনে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী   পরীক্ষা ছাড়া ভর্তিকে কেন্দ্র করে ঢাবিতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের হাতাহাতি   ১৮টি অমুসলিম উপাসনালয়ের অনুমোদন দিচ্ছে আরব আমিরাত   দেশে দুর্নীতি মহামারী আকার ধারণ করেছে : মওদুদ   লাইবেরিয়ায় ধর্মীয় স্কুলে আগুন, নিহত ৩০   ১৮ দিনেও খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ পাননি স্বজনরা, উদ্বেগ   নিউইয়র্কে ইন্টারন্যাশনাল সীরাত কনভেনশন শনিবার   নিউইয়র্কে বিয়ানীবাজার এডুকেশন এন্ড ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্টের ক্রিকেট টুনার্মেন্ট সম্পন্ন   ওয়াশিংটন ডিসিতে শুদ্ধ উচ্চারণ ও আবৃত্তি সংগঠন ‘সমস্বর’-এর আত্মপ্রকাশ   বাফলা চ্যারিটির ফান্ড রাইজিং ডিনার রবিবার   দক্ষিণ কোরিয়ার রাজনীতিবিদরা মাথা ন্যাড়া করছেন   বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আরো ভাগাভাগি হচ্ছে, গণমাধ্যমে আসছে না: আরেফিন সিদ্দিক   ‘জাবির অর্থ কেলেঙ্কারি ফাঁসকারী ছাত্রলীগ নেতারা হুমকির সম্মুখীন’   খালেদা কিছুই দেননি, হাসিনা আমাদের সম্মানিত করেছেন: আল্লামা শফী   রাখাইনে আরও ৬ লাখ রোহিঙ্গা গণহত্যার চরম ঝুঁকিতে : জাতিসংঘ

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

ইন্দোনেশিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প, সুনামি সতর্কতা

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৯-০৭-০৮ ০৩:০২:২৩

নিউজ ডেস্ক: ইন্দোনেশিয়ায় একটি শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাতের পর সুনামি সতর্কতা জারি করেছে সে দেশের কর্তৃপক্ষ।

স্থানীয় সময় রোববার রাত ১০টার দিকে উত্তর সুলাবেসি ও মালুকুর মাঝে মলাক্কা সাগরে এ ভূমিকম্প আঘাত হানে বলে জানিয়েছে ইউএসএটুডে ও স্ট্রেট টাইমস।

প্রাথমিকভাবে এতে বড় ধরনের কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল মানাদোর ১৮৫ কিলোমিটার (১১৫ মাইল) উত্তরপূর্বে ২৪ কিলোমিটার (১৫ মাইল) গভীরে।

ইন্দোনেশিয়ার জিওফিজিক্স সংস্থা টুইটারে একটি গ্রাফিক্স পোস্ট করে বলেছে, সুনামিতে উত্তর সুলাবেসি ও উত্তর মালুকুর বিভিন্ন অংশে অর্ধ মিটার (১.৬ ফুট) উঁচু ঢেউ সৃষ্টি হতে পারে।

সংবাদ সংস্থা এপি এক প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ভুমিকম্পে মালুকুর টার্নেট শহরে আতঙ্ক দেথা দেয়। লোকজন ভয়ে উঁচু স্থানের দিকে দৌঁড়াতে থাকে।

স্থানীয় বেতার কেন্দ্র রেডিও এল সিন্টা জানায়, উত্তর সুলাবেসির রাজধানী মানাদোর বাসিন্দারা ভয়ে তাদের ঘর-বাড়ি ছেড়ে বাইরে বেরিয়ে আসেন।

ইন্দোনেশিয়া  ২৬ কোটি মানুষের একটি বিশাল দ্বীপপুঞ্জ। দেশটি প্রশান্ত মহাসাগরীয় অববাহিকায় ‘ফায়ার অব রিং’ অঞ্চলে। আর এ অঞ্চলে প্রচুর আগ্নেয়গিরি এবং বিশাল চ্যুতি (শিলাস্তরের ফাটল) থাকার কারণে প্রায়ই সেখানকার দ্বীপগুলোতে ভূমিকম্প, আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত এবং সুনামি আঘাত হানে।

উল্লেখ্য, এর আগে ইন্দোনেশিয়ার ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি মানুষ প্রাণ হারায় ২০০৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর। ভারত মহাসাগরে ভূমিকম্পের ফলে সৃষ্ট সুনামিতে ১৪ দেশের ২ লাখ ২৬ হাজার মানুষ প্রাণ হারায়। শুধু ইন্দোনেশিয়াতেই নিহত হয় ১ লাখ ২০ হাজারেরও বেশি মানুষ।

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ১২০ বার

আপনার মন্তব্য

সাম্প্রতিক খবর