যুক্তরাষ্ট্রে আজ সোমবার, ১৫ Jul, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 02:57am

|   লন্ডন - 09:57pm

|   নিউইয়র্ক - 04:57pm

  সর্বশেষ :

  রক্তের বিনিময়ে হলেও এরশাদের লাশ পল্লী নিবাসেই দাফন করা হবে : রংপুর মেয়র   সব মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য একই ডিজাইনের কবর হবে   কংগ্রেসের ভিন্ন বর্ণের নারীদের ‘দেশে ফিরতে’বললেন ট্রাম্প   নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত এরশাদ   ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কায় আসামের মুসলমানরা   ঢাবি ক্যাম্পাসকে প্লাস্টিকমুক্ত ঘোষণা   মর্মান্তিক: মাইক্রোবাসে ট্রেনের ধাক্কায় বর-কনেসহ নিহত ৯   কুমিল্লায় আদালতের ভেতর আসামির ছুরিকাঘাতে আসামির মৃত্যু   দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে বাংলাদেশের তিন চুক্তি স্বাক্ষর   সুইডেনে বিমান বিধ্বস্ত, নিহত ৯   ইংল্যান্ডের প্রথম বিশ্বকাপ জয়   এরশাদের মৃত্যুতে প্রতিক্রিয়া জানাতে সময় লাগবে বিএনপির   এরশাদের সন্তানরা কে কী করেন?   বৃহস্পতিবার সোহেল তাজের ‘আনুষ্ঠানিক ঘোষণা’   আফগানিস্তান সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে যৌন হয়রানির অভিযোগে তোলপাড়

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

ইন্দোনেশিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প, সুনামি সতর্কতা

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৯-০৭-০৮ ০৩:০২:২৩

নিউজ ডেস্ক: ইন্দোনেশিয়ায় একটি শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাতের পর সুনামি সতর্কতা জারি করেছে সে দেশের কর্তৃপক্ষ।

স্থানীয় সময় রোববার রাত ১০টার দিকে উত্তর সুলাবেসি ও মালুকুর মাঝে মলাক্কা সাগরে এ ভূমিকম্প আঘাত হানে বলে জানিয়েছে ইউএসএটুডে ও স্ট্রেট টাইমস।

প্রাথমিকভাবে এতে বড় ধরনের কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল মানাদোর ১৮৫ কিলোমিটার (১১৫ মাইল) উত্তরপূর্বে ২৪ কিলোমিটার (১৫ মাইল) গভীরে।

ইন্দোনেশিয়ার জিওফিজিক্স সংস্থা টুইটারে একটি গ্রাফিক্স পোস্ট করে বলেছে, সুনামিতে উত্তর সুলাবেসি ও উত্তর মালুকুর বিভিন্ন অংশে অর্ধ মিটার (১.৬ ফুট) উঁচু ঢেউ সৃষ্টি হতে পারে।

সংবাদ সংস্থা এপি এক প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ভুমিকম্পে মালুকুর টার্নেট শহরে আতঙ্ক দেথা দেয়। লোকজন ভয়ে উঁচু স্থানের দিকে দৌঁড়াতে থাকে।

স্থানীয় বেতার কেন্দ্র রেডিও এল সিন্টা জানায়, উত্তর সুলাবেসির রাজধানী মানাদোর বাসিন্দারা ভয়ে তাদের ঘর-বাড়ি ছেড়ে বাইরে বেরিয়ে আসেন।

ইন্দোনেশিয়া  ২৬ কোটি মানুষের একটি বিশাল দ্বীপপুঞ্জ। দেশটি প্রশান্ত মহাসাগরীয় অববাহিকায় ‘ফায়ার অব রিং’ অঞ্চলে। আর এ অঞ্চলে প্রচুর আগ্নেয়গিরি এবং বিশাল চ্যুতি (শিলাস্তরের ফাটল) থাকার কারণে প্রায়ই সেখানকার দ্বীপগুলোতে ভূমিকম্প, আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত এবং সুনামি আঘাত হানে।

উল্লেখ্য, এর আগে ইন্দোনেশিয়ার ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি মানুষ প্রাণ হারায় ২০০৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর। ভারত মহাসাগরে ভূমিকম্পের ফলে সৃষ্ট সুনামিতে ১৪ দেশের ২ লাখ ২৬ হাজার মানুষ প্রাণ হারায়। শুধু ইন্দোনেশিয়াতেই নিহত হয় ১ লাখ ২০ হাজারেরও বেশি মানুষ।

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৮৫ বার

আপনার মন্তব্য