যুক্তরাষ্ট্রে আজ শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 08:12am

|   লন্ডন - 03:12am

|   নিউইয়র্ক - 10:12pm

  সর্বশেষ :

  করোনা সর্বত্র শান্তির জন্য ঝুঁকি বাড়াচ্ছে : জাতিসংঘ মহাসচিব   ব্যাপক হারে কানাডার নাগরিক হচ্ছেন আমেরিকানরা   বানরের অধিকার নিশ্চিতে সুইজারল্যান্ডে গণভোট   আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক   আফগানিস্তানে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে তালেবানের সংঘর্ষ: নিহত অর্ধশত   হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফী আর নেই   হিজাব কেড়ে নেয়ায় লস এঞ্জেলেস পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা মুসলিম নারীর   যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত তরুণদের অধিকাংশই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের   এবার নোবেল শান্তি পুরষ্কারে মনোনীত হলেন নেতানিয়াহু   হারিকেন স্যালির আঘাতে যুক্তরাষ্ট্রে বিদ্যুৎহীন ৫ লক্ষাধিক মানুষ   নতুন আরও এক লাখ কর্মী নিয়োগ দেবে আমাজন   লস এঞ্জেলেসে অক্টোবর থেকে সীমিত আকারে খুলবে ব্যবস্থাপ্রতিষ্ঠান   বাইডেনের নির্বাচনী প্রচারণায় হস্তক্ষেপ করতে চাইছে রাশিয়া   ক্যালিফোর্নিয়ায় গুলিতে আহত এক, নেপথ্যে মাদক   তীব্র হচ্ছে ক্যালিফোর্নিয়ার 'ববক্যাট ফায়ার'

মূল পাতা   >>   তারুণ্য

করোনায় এক মানবিক তরুণের গল্প

শরীয়তপুর (বাংলাদেশ) প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ২০২০-০৮-২৪ ১৪:৫৭:৫৫

শরীয়তপুর (বাংলাদেশ) প্রতিনিধি: করোনার থাবায় থমকে আছে পৃথিবী। পাল্টে গেছে চিরচেনা পরিবেশ। মৃত্যু ভয়ে আপন মানুষগুলোও যেন পর হয়ে গেছে। এর মধ্যে ব্যতিক্রম মানবিক কিছু মানুষও রয়েছেন।

করোনার প্রকোপে যখন গোসাইরহাট উপজেলা এলাকার মানুষ বিপর্যস্ত। ঠিক সেই সময় মৃত্যুভয়কে পরোয়া না করে ইতিমধ্যে মানবিকতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করছেন এনায়েত হোসেন । করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত প্রতিনিয়ত মৃত্যুর ভয়কে উপেক্ষা করে সম্মুখে থেকে যুদ্ধ করে যাচ্ছেন এই ছাত্রলীগ নেতা।

করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর মার্চ থেকে অদ্যাবধি তিনি তার পরিবারের সদস্যদের বাধা উপেক্ষা করে বার বার মানুষের কল্যানে ছুটে গেছেন গোসাইরহাট উপজেলার গোসাইরহাট পৌরসভার বিভিন্ন জায়গায়।

শুধু তাই না ঘনবসতিপূর্ণ গোসাইরহাট উপজেলার মানুষের নিরাপত্তা, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত,করোনার সচেতনতা মূলক প্রচার প্রচারনায়, বাজার মনিটরিং সহ নানান কাজে কাজ করেছেন তিনি।

এছাড়া গোসাইরহাট বিভিন্ন শ্রেনীর মানুষের মাঝে একাধিকবার সুরক্ষা সামগ্রী মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান, গ্লাবস ও পিপিই বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারের বিতরনের কাজে অংশ গ্রহন করেছেন।

সরকারের তরফ থেকে যেসব খাদ্য সামগ্রী এসেছে তার সঠিক বণ্টনের কাজে ও অংশ গ্রহন করেছেন। বিতরণ করেছেন প্রকৃত সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের মাঝে।

যারা চক্ষুলজ্জার ভয়ে সংশ্লিষ্ট স্থানে ত্রাণ নিতে আসতে পারেন না, তাদেরকে গোপনে বাসায় ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছেন।

সত্যিকারের সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের খাবার সামগ্রী দেয়ার জন্য কৌশল অবলম্বন করে রাতের আঁধারেও এলাকার বিভিন্ন শ্রেনীর মানুষের বাড়িতে নিজে খাবারের বোঝা মাথায় বহন করে নিজ হাতে খাবার পৌছে দিয়েছেন।

লকডাউনের কারণে খাদ্য সংকটে ভুগে নিম্ন আয়ের মানুষ। সংকটাপন্ন এই পরিস্থিতিতে তাদের জন্য ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন তিনি। এপ্রিল মাসে ৫০ জন দরিদ্রের মাঝে খাদ্য বিতরণের মাধ্যমে শুরু করেন তার ত্রাণ বিতরণের কার্যক্রম। তার নিজ এলাকার নারী ও পুরুষ মাঝে ত্রাণ বিতরণ করে মন জয় করেন তাদের।

এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে প্রকাশ্যে বা গোপনে তিনি অসহায় পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী দিয়ে সহায়তা করেন। মোবাইলের ম্যাসেজ ও ফোন পেয়ে অনেক অসহায় ব্যক্তির কাছেও ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছিলেন তিনি।

গোসাইরহাট পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড বাসিন্দা একজন মসজিদের ইমাম জানান, লকডাউন চলাকালে রমযান মাসে একদিন বাসায় কোনো খাবার ছিল না। পরিবারের আমার ছোট সত্নানেরা সারাদিনই অনাহারে ছিলো, একজনের মাধ্যমে জানতে পারলাম এনায়েত হোসেন ভাইকে ফোন করলেই সঙ্গে সঙ্গেই জুটবে খাবার। ফোন নাম্বার নিয়ে তাকে ফোন করলাম ফোন করে তাকে বলার পর তিনি নিজের হাতে চাউল, ডাল, লবণসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাবার ভর্তি দুটো কার্টুন বক্স নিয়ে আমার বাসায় হাজির হলেন । এভাবে অসংখ্য অসহায় পরিবারের পাশে এ ক্রান্তিকালে আছেন মানবিক এ ছাত্রনেতা।
গোসাইরহাট পৌরসভার ২নং ওয়াডের বাসিন্দা এক মহিলা বলেন, এর বয়সের ছেলে পুলেরা করোনা কালে বাসায় থাকলে ও এ ছিলো ব্যতিক্রম কখনো জীবানুনাষক নিয়ে, কখনো খাবার সামগ্রী নিয়ে ঘুরে বেরিয়েছেন এক ওয়ার্ড থেকে আরেক ওয়ার্ডে।

এলএ বাংলটাইমসের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাতে এনায়েত বলেন, পুরো বিশ্বে করোনা একটি মহামারী অসুখ। ছোঁয়াচে এ অসুখে আমাদের দেশের জনগণও আক্রান্ত হচ্ছেন, মারা যাচ্ছেন। সেই মহামারী থেকে গোসাইরহাটবাসীকে দুরে রাখতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মহোদয়ের নির্দেশক্রমে এবং চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী সাধ্যানুযায়ী গোসাইরহাট বাসীর জন্য কাজ করে যাচ্ছি।

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/ওয়াই

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ১৭৯ বার

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত