আপডেট :

        হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে গেল রাজ্য সরকার

        সরকারি ব্যাংকের ছয় উপব্যবস্থাপনা পরিচালককে অন্য ব্যাংকে বদলি করা হয়েছে

        ময়নাতদন্তের জন্য দাফনের ১৫ দিন পর কবর থেকে এক ব্যাংক কর্মকর্তার লাশ তুলা হলো

        মেটার রে-ব্যান স্মার্ট রোদচশমা,করা যাবে ভিডিও কল

        পানিসংকটের শঙ্কা ও শিক্ষার্থীদের অসুবিধার কথা বিবেচনায় নিয়ে পূর্বনির্ধারিত গ্রীষ্মকালীন ছুটি বাতিল

        শেয়ারবাজারের টানা পতন ঠেকাতে আবারও শেয়ারের মূল্যসীমায় পরিবর্তন আনা হয়েছে

        দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যার জেরে উত্তপ্ত ফরিদপুর

        দেশে একদিনের ব্যবধানে দেশের বাজারে সোনার দাম কমলো

        বাংলাদেশ সিরিজের জন্য দল ঘোষণা

        মিয়ানমার থেকে ফেরত আসা বাংলাদেশিরা

        মিয়ানমার থেকে ফেরত আসা বাংলাদেশিরা

        যুক্তরাষ্টের শিক্ষকদের স্কুলে বন্দুক নিয়ে যাওয়া নিয়ে একটি বিল পাস হয়েছে

        যুক্তরাষ্টের শিক্ষকদের স্কুলে বন্দুক নিয়ে যাওয়া নিয়ে একটি বিল পাস হয়েছে

        র‍্যাবের মুখপাত্র হলেন কমান্ডার আরাফাত

        ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ সাধারণ নির্বাচন সুষ্ঠু করতে নেওয়া হচ্ছে পদক্ষেপ

        বিশেষ ট্রেনের ৩ বগি লাইনচ্যুত

        কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ভোটার কতজন?

        বৈশ্বিক গড় উষ্ণতার চেয়ে দ্রুত উত্তপ্ত হচ্ছে এশিয়া অঞ্চল

        বাংলাদেশের হিন্দু শরণার্থীদের ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে

        বাংলাদেশের হিন্দু শরণার্থীদের ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে

চীনের সাথে পাঁচ চুক্তি বাতিল করলো যুক্তরাষ্ট্র

চীনের সাথে পাঁচ চুক্তি বাতিল করলো যুক্তরাষ্ট্র

ছবি: এলএবাংলাটাইমস

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যকার পাঁচটি সাংস্কৃতিক চুক্তি বাতিল করলো ট্রাম্প প্রশাসন। এই পাঁচ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামকে 'প্রোপাগান্ডা' বলে আখ্যা দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন।

শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) ইউএস স্টেট ডিপার্টমেন্ট পাঁচ চুক্তি বাতিলের ঘোষণা দেয়।

ইউএস স্টেট ডিপার্টমেন্ট জানায়, চীনে শিক্ষাসফর প্রোগ্রাম, ইউএস-চায়না ফ্রেন্ডশিপ প্রোগ্রাম, ইউএস-চায়না লিডারশিপ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রাম, ইউএস-চায়না ট্রান্সপেফিসিক এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রাম ও হংকং এডুকেশনাল এন্ড কালচারাল প্রোগ্রাম বাতিল করা হয়েছে।

১৯৬১ সালে সাবেক প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডির আমলে মিউচ্যুয়াল এডুকেশন ও কালচারাল এক্সচেঞ্জ এক্ট এর আওতায় এই চুক্তিগুলো করা হয়।

ইউএস স্টেট ডিপার্টমেন্ট জানায়, অন্যান্য সকল প্রোগ্রাম পারস্পারিক অর্থায়নে হয়ে থাকে৷ তবে এই পাঁচ প্রোগ্রাম চীনের অর্থায়নে হয়ে থাকে। এই প্রোগ্রামগুলোর মাধ্যমে চীন অত্যন্ত 'হালকা ধাঁচের প্রোপাগাণ্ডা' ছড়ায়।

তবে ওয়াশিংটনে নিয়োজিত চীনের দূতাবাস এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করা থেকে বিরত রয়েছে৷

এলএবাংলাটাইমস/ওএম

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত