আপডেট :

        আমাদের আগামীরা আজকে দেশব্যাপী রাজপথে

        দেশের সব সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা

        দেশের সব সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা

        নৌ অবরোধের কারণে দেউলিয়া হয়ে গেছে ইসরায়েলের ইলাত বন্দর

        ‘ধাতব স্যুটের বর্ম’ তৈরি করতে চান টেসলার প্রধান ইলন মাস্ক

        শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের নৃশংস হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল

        হামলায় আক্রান্ত শিক্ষার্থীদের ছবি-ভিডিও মুহূর্তের মধ্যেই ঝড় তোলেছে ইন্টারনেট

        পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা

        কোটা সংস্কার আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক আবু সাঈদ নিহত

        কোটা সংস্কার আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক আবু সাঈদ নিহত

        শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে জনগণকে সাড়া দেওয়ার আহ্বান

        শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে জনগণকে সাড়া দেওয়ার আহ্বান

        ডান কানে বড় একটি ব্যান্ডেজ নিয়ে জাতীয় সম্মেলনে উপস্থিত ট্রাম্প

        ট্রাম্পকে মাসে ৪৫ মিলিয়ন ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি ইলন মাস্কের

        শিক্ষার্থী-ছাত্রলীগ পাল্টাপাল্টি ধাওয়া

        আম্বানি পুত্রের বিয়েতে নিক-প্রিয়াঙ্কার উজ্জ্বল উপস্থিতি নজর কেড়েছে নেটিজেনদের

        প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন

        সাহিত্যিক যাত্রার শুরু এবং কাশবন পত্রিকার সম্পাদনার পিছনে অনুপ্রেরণা

        নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন

        নারী শিক্ষার অগ্রদূত হিসেবে "তমগায়ে কায়েদে আজম "

'যুক্তরাষ্ট্রে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য দায়ী বাসিন্দারা'

'যুক্তরাষ্ট্রে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য দায়ী বাসিন্দারা'

ছবি: এলএবাংলাটাইমস

যুক্তরাষ্ট্রে করোনার সংক্রমণ দ্বিতীয় ধাপে বেড়ে যাওয়ার পিছনে দায়ী বাসিন্দারাই। এছাড়া শীতও সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য দায়ী। এমনটা বলছেন দেশটির স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা৷

হেলথ এন্ড হিউম্যান সেক্রেটারি এলেক্স আযার গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই কথা বলেন।

তিনি বলেন, 'দ্বিতীয় ধাপে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার জন্য বাসিন্দারাই দায়ী। আমরা সবসময় একটি নীতিমালা অনুসরণ করতে বলছি। সেটি হচ্ছে, হাত ধুয়ে পরিষ্কার রাখুন, দূরত্ব বজায় রাখুন ও মাস্ক ব্যবহার করুন'।

যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকেরা ঘরমুখী হলেও এই নীতিমালা সুষ্ঠুভাবে পালন করছেন না বলে দাবি করেন এই কর্মকর্তা৷

যুক্তরাষ্ট্রে এখন প্রতিদিন প্রায় দুই লাখ বাসিন্দা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন৷ শীত বাড়ার সাথে সাথে করোনার সংক্রমণ আরো বাড়বে বলে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

সংক্রমণের পাশাপাশি হাসপাতালে রোগী ভর্তির সংখ্যাও বেড়েছে৷ রবিবার দেশজুড়ে এক লাখের উপর বাসিন্দা করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

এদিকে, মহামারি নিয়ন্ত্রণে খুব শীঘ্রই টিকাদান কর্মসূচি পালন করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এরইমধ্যে টিকা প্রস্তুতকারক দুই প্রতিষ্ঠান ফাইজার ও মডার্না তাদের তৈরি টিকা অনুমোদনের জন্য ইউএস ফুড এন্ড ড্রাগ এডমিনিস্ট্রেশনের কাছে আবেদন জানিয়েছে।

আশা করা যাচ্ছে, অনুমোদনের পর চলতি মাসের শেষের দিকেই টিকাদান কার্যক্রমের প্রথম ধাপ শুরু হয়ে যাবে।

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. এন্থনী ফাউসি টিকা নিতে বাসিন্দাদের আহবান জানিয়ে বলেন, 'টিকা নিন, সুস্থ থাকুন'।

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এর আগে এতো বৃহৎ পরিসরে টিকাদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়নি। টিকাদান কর্মসূচি সূচারুভাবে সম্পন্ন কর‍তে কিছু জটিলতা রয়েছে।

এলএবাংলাটাইমস/ওএম

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত