Updates :

        ইউএনজিএর ৩১তম বিশেষ অধিবেশন: করোনা মোকাবিলায় আরো সহযোগিতার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

        এবার বিশ্বের দ্বিতীয় দেশ হিসাবে চাঁদে পতাকা ওড়ালো চীন

        টাইমের বর্ষসেরা শিশু গীতাঞ্জলি রাও

        মূর্তি ও ভাস্কর্য নিয়ে যা বললেন আলেমরা

        এবার 'সিটি অব লস এঞ্জেলেসে' জারি হলো 'স্টে-এট-হোম'

        বারের উপর চটেছেন ট্রাম্প

        প্রকাশ্যে টিকা নেবেন সাবেক তিন প্রেসিডেন্ট

        যুক্তরাষ্ট্রে একদিনেই হাসপাতালে ভর্তি লক্ষাধিক করোনা রোগী

        ফ্রান্সে ৭৬টি মসজিদ বন্ধের পরিকল্পনা

        আসাদুজ্জামান নূর করোনায় আক্রান্ত

        দল সাজাচ্ছেন হ্যারিস, ঘোষণা করলেন তিন নাম

        ফোবানা নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় মাসুদ চৌধুরীকে বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠনের অভিনন্দন

        আলাস্কায় ভয়াবহ ভূমিধস: নিখোঁজ ছয়

        একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড যুক্তরাষ্ট্রে

        ক্যালিফোর্নিয়ায় বইছে গরম হাওয়া, বিচ্ছিন্ন হবে বিদ্যুৎ

        টিকা বিতরণে প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র

        চীনা পণ্যের শুল্ক সহসা বাতিল হবে না: বাইডেন

        ইরানে যুক্তরাষ্ট্র হামলা চালালে আমিরাত আক্রমণের হুমকি তেহরানের

        করোনার ভুয়া টিকা নিয়ে ইন্টারপোলে সতর্কতা জারি

        অনুমতি ছাড়া ঢাকায় কোন মিছিল-সমাবেশ করা যাবে না

কারাবাখ সংঘাত স্থায়ীভাবে বন্ধে সহায়তায় প্রস্তুত ম্যাক্রোঁ

কারাবাখ সংঘাত স্থায়ীভাবে বন্ধে সহায়তায় প্রস্তুত ম্যাক্রোঁ

নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে সংঘাতে সব পক্ষের জন্য স্থায়ী এবং ভারসাম্যপূর্ণ সমাধানে সহায়তা করতে প্রস্তুতির কথা জানিয়েছে ফ্রান্স।

এমন একসময় দেশটি এ প্রস্তাব দিয়েছে, যখন অঞ্চলটিতে রুশ মধ্যস্থতার শান্তিচুক্তি অপ্রত্যাশিত হলেও প্যারিসকে মেনে নিতে হচ্ছে।

আজারি বাহিনী ও নৃতাত্ত্বিক আর্মেনীয়দের মধ্যকার অস্ত্রবিরতির দেখভাল করতে মঙ্গলবার রুশ শান্তিরক্ষী বাহিনী এসে অঞ্চলটিতে পা রেখেছে।

এর মধ্য দিয়ে সাবেক সোভিয়েত অঞ্চলে নিজের সামরিক পদচিহ্ন প্রসারিত করল রাশিয়া। কৌশলগতভাবে অঞ্চলটিতে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হচ্ছে।

নাগোরনো-কারাবাখ বিতর্ক নিরসনে গঠিত আন্তর্জাতিক গ্রুপের সহপ্রধানের দায়িত্ব পালন করছে মস্কো। এ ছাড়া আছে ওয়াশিংটন ও প্যারিস। কিন্তু রাশিয়ার সঙ্গে সই করা চুক্তির অংশ নয় ওই দুই পরাশক্তি।

এই চুক্তির মধ্য দিয়েই আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যকার ছয় সপ্তাহের লড়াইয়ের বিরতি ঘটেছে।

ফরাসি জনসংখ্যার মধ্যে চার থেকে ছয় লাখ লোক আর্মেনীয় বংশোদ্ভূত। সংঘাতে কোনো এক পক্ষকে সমর্থন না দেয়ার ক্ষেত্রে দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে বেশ সতর্ক থাকতে দেখা গেছে।

কিন্তু দেশে বিরোধীদের কড়া সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। ইরেভানকে সহায়তায় তিনি যথেষ্ট চেষ্টা করেননি বলে তাদের অভিযোগ।

এক বিবৃতিতে বৃহস্পতিবার ম্যাক্রোঁর কার্যালয় জানায়, আর্মেনীয় প্রধানমন্ত্রী নিকোল প্যাশিনায়েনকে তিনি আশ্বস্ত করতে চাচ্ছেন। লড়াই বন্ধে প্রেসিডেন্ট সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। আর্মেনিয়া ও তার জনগণের প্রতি বন্ধুত্বের কথা স্মরণ করে একটি ন্যায়সঙ্গত, স্থানীয় গ্রহণযোগ্য রাজনৈতিক সমাধানে তিনি প্রস্তুত রয়েছেন।

আর্মেনিয়ার মানবিক সহায়তার প্রয়োজনীয়তার মূল্যায়ন করতে সাহায্য সংস্থা ও অভিবাসী সদস্যদের সঙ্গে একটি বৈঠকেরও আয়োজন করেছেন।

শেয়ার করুন