Updates :

        ইথিওপিয়ায় যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানালেন জাতিসংঘের মহাসচিব

        শুরু হতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবানের বৈঠক

        তাইওয়ান প্রণালী দিয়ে অতিক্রম করলো যুক্তরাষ্ট্রের জাহাজ

        অস্টিনে স্যামসাং এর নতুন কারখানা স্থাপন

        সাউথ আফ্রিকায় শনাক্ত নতুন ভ্যারিয়েন্ট, বাড়ছে সংক্রমণ

        আমেরিকা নিজেই গণতন্ত্র নিয়ে ঝামেলায় আছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

        গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর বরখাস্ত

        বইবে উষ্ণ হাওয়া: থ্যাংকসগিভিং ডে’তে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের শঙ্কা ক্যালিফোর্নিয়ায়

        এলএ মেট্রোতে আবার চালু হচ্ছে বাস ভাড়া, থাকছে ছাড়

        খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় নিউইয়র্কে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা

        স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বাংলাদেশের উত্তরণের সুপারিশ জাতিসংঘে অনুমোদন

        ফ্রান্সে নৌকাডুবে ২৭ অভিবাসীর মৃত্যু

        নাক দিয়ে করোনার টিকা নিলেন পুতিন

        ম্যানহাটন বিচে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা: মৃত ৩, আহত ৩

        সুইডেনের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী অ্যান্ডারসন

        টেস্ট থেকে আনুষ্ঠানিক অবসরে মাহমুদউল্লাহ

        ‘নাটাই ঘুড়ি’ নিয়ে ভালো সাড়া পাচ্ছি: রিজভী

        খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার দাবি : ৮ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা বিএনপির

        বাংলাদেশে এবারই প্রথম হেলিও জি৯৬ প্রসেসরের ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন ‘নোট ১১ প্রো’ উন্মোচন করল ইনফিনিক্স

        কবিতা

কারাবাখ সংঘাত স্থায়ীভাবে বন্ধে সহায়তায় প্রস্তুত ম্যাক্রোঁ

কারাবাখ সংঘাত স্থায়ীভাবে বন্ধে সহায়তায় প্রস্তুত ম্যাক্রোঁ

নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে সংঘাতে সব পক্ষের জন্য স্থায়ী এবং ভারসাম্যপূর্ণ সমাধানে সহায়তা করতে প্রস্তুতির কথা জানিয়েছে ফ্রান্স।

এমন একসময় দেশটি এ প্রস্তাব দিয়েছে, যখন অঞ্চলটিতে রুশ মধ্যস্থতার শান্তিচুক্তি অপ্রত্যাশিত হলেও প্যারিসকে মেনে নিতে হচ্ছে।

আজারি বাহিনী ও নৃতাত্ত্বিক আর্মেনীয়দের মধ্যকার অস্ত্রবিরতির দেখভাল করতে মঙ্গলবার রুশ শান্তিরক্ষী বাহিনী এসে অঞ্চলটিতে পা রেখেছে।

এর মধ্য দিয়ে সাবেক সোভিয়েত অঞ্চলে নিজের সামরিক পদচিহ্ন প্রসারিত করল রাশিয়া। কৌশলগতভাবে অঞ্চলটিতে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হচ্ছে।

নাগোরনো-কারাবাখ বিতর্ক নিরসনে গঠিত আন্তর্জাতিক গ্রুপের সহপ্রধানের দায়িত্ব পালন করছে মস্কো। এ ছাড়া আছে ওয়াশিংটন ও প্যারিস। কিন্তু রাশিয়ার সঙ্গে সই করা চুক্তির অংশ নয় ওই দুই পরাশক্তি।

এই চুক্তির মধ্য দিয়েই আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যকার ছয় সপ্তাহের লড়াইয়ের বিরতি ঘটেছে।

ফরাসি জনসংখ্যার মধ্যে চার থেকে ছয় লাখ লোক আর্মেনীয় বংশোদ্ভূত। সংঘাতে কোনো এক পক্ষকে সমর্থন না দেয়ার ক্ষেত্রে দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে বেশ সতর্ক থাকতে দেখা গেছে।

কিন্তু দেশে বিরোধীদের কড়া সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। ইরেভানকে সহায়তায় তিনি যথেষ্ট চেষ্টা করেননি বলে তাদের অভিযোগ।

এক বিবৃতিতে বৃহস্পতিবার ম্যাক্রোঁর কার্যালয় জানায়, আর্মেনীয় প্রধানমন্ত্রী নিকোল প্যাশিনায়েনকে তিনি আশ্বস্ত করতে চাচ্ছেন। লড়াই বন্ধে প্রেসিডেন্ট সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। আর্মেনিয়া ও তার জনগণের প্রতি বন্ধুত্বের কথা স্মরণ করে একটি ন্যায়সঙ্গত, স্থানীয় গ্রহণযোগ্য রাজনৈতিক সমাধানে তিনি প্রস্তুত রয়েছেন।

আর্মেনিয়ার মানবিক সহায়তার প্রয়োজনীয়তার মূল্যায়ন করতে সাহায্য সংস্থা ও অভিবাসী সদস্যদের সঙ্গে একটি বৈঠকেরও আয়োজন করেছেন।

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত