Updates :

        ক্যালিফোর্নিয়ার দক্ষিণে ধেয়ে আসছে ঝড়ো হাওয়া

        সিলেটে কথিত স্ত্রী-ইয়াবাসহ দরোগা রোকন গ্রেফতার

        লস এঞ্জেলেসে নীতি পরিবর্তন: বয়স্করা টিকা পাবেন শীঘ্রই

        ‘নোয়াখালীর নতুন পাগল’ কাদের মির্জাকে পাবনায় পাঠানোর কথা বললেন নিক্সন চৌধুরী

        বাইডেন প্রশাসনে বাংলাদেশি জাইন সিদ্দিকী

        অভিনেতা মজিবুর রহমান দিলু আর নেই

        অভিবাসীদের বৈধতা দিতে ৮ বছর মেয়াদী পরিকল্পনা নিচ্ছেন বাইডেন

        সৌদির পর এবার পাকিস্তানকে চাপ দিচ্ছে আমিরাত

        ক্যালিফোর্নিয়ায় করোনার ভ্যারিয়েন্ট 'L452R' এ আক্রান্ত রোগী বাড়ছে

        লস এঞ্জেলেসে চালু হচ্ছে আরো ৫ টিকাদান কেন্দ্র

        'রেডিও' হতে পারে সহিংসতা ও উস্কানির পন্থা: এফসিসি

        মডার্নার টিকায় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া: ক্যালিফোর্নিয়ায় টিকাদান বন্ধ

        এলএ বাংলা টাইমস এর সিইও ফেসবুক বিচ্ছিন্ন

        চলে গেলেন ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’র কিংবদন্তি প্রযোজক

        ভারতের অরুণাচল সীমান্তে নতুন গ্রাম তৈরি করেছে চীন

        বার্সেলোনার জার্সিতে মেসির প্রথম লাল কার্ড

        ৭ মুসলিম দেশের নিষেধাজ্ঞা বাতিল করছেন বাইডেন

        করোনায় দেশে আরও ১৬ মৃত্যু, শনাক্ত ৬৯৭

        ইসরায়েলিদের প্রবেশের সুযোগ দিলো সৌদি

        নতুন বিতর্কে হোয়াটসঅ্যাপ

কেড়ে নেওয়া হলো ট্রাম্পের সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি

কেড়ে নেওয়া হলো ট্রাম্পের সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি

মার্কিন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি বাতিল করেছে যুক্তরাষ্ট্রের লিহাই বিশ্ববিদ্যালয়। ৩০ বছর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে তাকে এই সম্মানসূচক ডিগ্রি দেওয়া হয়। সে সময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাষণও দিয়েছিলেন।

মার্কিন সংসদ ভবন ক্যাপিটল হিলে ট্রাম্প সমর্থকদের ব্যাপক হামলা ও হতাহতের ঘটনার পর ট্রাম্প নিজ দেশে ক্রমেই আরও একঘরে হয়ে পড়ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় তার সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রিও কেড়ে নেওয়া হলো।

লিহাই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বলেছে, ডোনাল্ড ট্রাম্পের ডিগ্রিটি বাতিল করা হয়েছে। এ বিষয়ে আর ব্যাখ্যা দেয়নি তারা।

ক্যাপিটল হিলে সাম্প্রতিক হামলায় পুলিশসহ অন্তত ৫ জন নিহত হয়েছে। হামলায় উসকানি দেওয়ার কারণে তাকে আইনি চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এছাড়া অভিশংসন করার পরিকল্পনাও চূড়ান্ত করতে যাচ্ছে ডেমোক্র্যাট নেতারা।

এর আগে টুইটার কর্তৃপক্ষ ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দিয়েছে। ট্রাম্প কিছু একটা হলেই সঙ্গে সঙ্গে টুইট করতে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন। সমালোচকরা বলছেন, টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হওয়ায় নিশ্চয় খুব খারাপ সময় যাচ্ছে ট্রাম্পের!

এরইমধ্যে তার নিজ দলের অনেক নেতা ট্রাম্পের ওপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন এবং অভিশংসন বা ইমপিচমেন্টের পক্ষে মত দিয়েছেন। তার কাছ থেকে পরমাণু অস্ত্রের কোড কেড়ে নেয়ার দাবিও জোরালো হচ্ছে।

আগামী ২০ জানুয়ারি ট্রাম্পের ক্ষমতার মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে। কিন্তু পাগলামির কারণে এর আগেই তার অপসারণ চাচ্ছেন বেশিরভাগ মার্কিন নাগরিক। পার্সটুডে।

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত