আপডেট :

        বিশ্বের শীর্ষ ১০ ধনীর তালিকা থেকে ছিটকে গেলেন আদানি

        ৩১ লাখ ডলারে বিক্রি অ্যান্থনি ভ্যান ডাইকের ছবি

        বাংলাদেশ নিয়ে যা বললেন আইএমএফের সভাপ্রধান

        যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ জরুরি অবস্থা উঠে যাচ্ছে ১১ মে

        পেশোয়ারে মসজিদে বিস্ফোরণে নিহত বেড়ে ৮৩

        বাংলাদেশের ৪৭০ কোটি ডলার ঋণ অনুমোদন দিল আইএমএফ

        যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ২ আসামি রাজধানীতে গ্রেপ্তার

        ১৯১ অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধে চিঠি দেওয়া হয়েছে

        চট্টগ্রামে মেট্রোরেলের মাস্টার প্ল্যান ও সম্ভাব্যতা যাচাই কাজের উদ্বোধন

        এবার তারেক-জোবায়দাকে আদালতে হাজির হতে গেজেট প্রকাশ

        এক মাসে মেট্রোরেলে চড়েছে ৩ লাখ ৩৫ হাজার যাত্রী

        জ্বালানি তেল বিক্রিতে এশিয়ার জন্য ব্যাপক মূল্যছাড় সৌদি আরবের

        শীত কি আবারও আসছে?

        জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০২১ পাচ্ছেন যারা

        দিল্লি যাবেন ড. মোমেন

        অনুর্ধ্ব-১৯ নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম শিরোপা ভারতের

        এবার পাইকারি ও খুচরায় বাড়ল বিদ্যুতের দাম

        বসন্ত ডাকছে ওই

        মোশন ভিউতে জি-টাইড কলিং স্মার্টওয়াচ

        হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের স্ক্রিনশট বন্ধ

‘কৃত্রিম সূর্য’ তৈরিতে বড় অগ্রগতি

‘কৃত্রিম সূর্য’ তৈরিতে বড় অগ্রগতি

ফ্রান্সে ৩৫টি দেশ মিলে একটি ‘কৃত্রিম সূর্য’ তৈরির কাজ করছে। ‘কৃত্রিম সূর্যের’ নাম ইন্টারন্যাশনাল থার্মোনিউক্লিয়ার রিঅ্যাক্টর বা আইটিইআর। একে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ‘কৃত্রিম সূর্য’ বলা হচ্ছে। এ কাজে বড় অগ্রগতি হয়েছে। চীন বলেছে, তারা আইটিইআরের প্রধান একটি উপাদান তৈরির কাজ ইতিমধ্যে শেষ করেছে। খবর এনডিটিভির।

আইটিইআর নিউক্লিয়ার ফিউশন নিয়ে একটি আন্তর্জাতিক মেগা প্রকল্প। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, চীন, ভারত, রাশিয়া, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, সুইজারল্যান্ড ও ইইউয়ের ২৭টি দেশ এই প্রকল্পের সঙ্গে জড়িত। দেশগুলোর আশা, সূর্যের শক্তি উৎপন্নের প্রক্রিয়া অনুসরণ করে এর মাধ্যমে পরিবেশবান্ধব বিপুল শক্তি উৎপাদন সম্ভব। বিজ্ঞানী ও গবেষকেরা মূলত নিউক্লিয়ার ফিউশন ব্যবহার করে এ কাজ করছেন। এ প্রক্রিয়ায় নিউক্লিয় বিক্রিয়া ঘটিয়ে একাধিক হালকা নিউক্লিয়াই সংযোজন করে তুলনামূলক ভারী নিউক্লিয়াস গঠিত হয়। পাশাপাশি এ প্রক্রিয়ায় সৃষ্টি হয় বিপুল শক্তি। মূলত সূর্যের নিউক্লিয়ার ফিউশনের প্রক্রিয়া অনুকরণ করছেন ওই বিজ্ঞানীরা।

কৃত্রিম এ সূর্য তৈরির খরচের প্রায় ৪৫ শতাংশ বহন করছে ইউরোপ। আর প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত অন্য দেশগুলোর প্রতিটি ৯ শতাংশ করে ব্যয় নির্বাহ করছে। এ ছাড়া প্রকল্পের সঙ্গে জড়িত প্রতিটি দেশ আইটিইআর প্রকল্পের জন্য বিভিন্ন উপাদান, পদ্ধতি ও অবকাঠামো নির্মাণ করার মাধ্যমে একটি ‘কৃত্রিম সূর্য’ অবদান রেখে চলেছে। গত মঙ্গলবার চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস ঘোষণা দিয়ে জানিয়েছে, কৃত্রিম সূর্যের জন্য একটি প্রধান উপাদান ‘এনহ্যান্সড হিট ফ্লাক্স’-এর একটি পূর্ণাঙ্গ ‘প্রোটোটাইপ’ তৈরির কাজ শেষ করেছে চীন। এর নকশার জন্য বিজ্ঞানী ও গবেষকেরা যে চাহিদা দিয়েছিলেন, সেটা মেনে প্রোটোটাইপটি তৈরি করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত