আপডেট :

        বাংলাদেশ পুলিশ পদক পাচ্ছেন পুলিশ সুপার ছাইদুল হাসান

        বিএনপির দোসর অবৈধ মজুতকারীরা: খাদ্যমন্ত্রী

        রাশিয়ার ৫০০টির বেশি লক্ষ্যবস্তুকে নিষেধাজ্ঞা দেবে যুক্তরাষ্ট্র

        ৩ ঘন্টায় মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত

        স্পিকার-গ্লোবাল পার্টনার্স গভর্ন্যান্স পরিচালকের সৌজন্য সাক্ষাৎ

        ইমরান খানের দাবি প্রত্যাখ্যান

        একসঙ্গে চার শিশুর জন্ম

        গণধোলাই দেওয়া উচিত অবৈধ মজুতদারীদের: প্রধানমন্ত্রী

        বেপরোয়া মিয়ানমারের জান্তা: জাতিসংঘ

        এমটিবি সাইকেল রেস

        মুক্তির সঙ্গে নির্বাচনের কোনো সম্পর্ক নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

        হিজড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন বিষয়ে সভা অনুষ্ঠিত

        মিউনিখ সম্মেলনে গাজা ও বিশ্বের সব প্রকার যুদ্ধ অবিলম্বে বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী

        কৃষি ব্যাংকের প্রনোদনাগুলো প্রচারণার মাধ্যমে তুলে ধরতে হবে: প্রতিমন্ত্রী

        বিপিএম-পিপিএম পদক পেলেন যারা

        সাকিব-তামিমের সেই উদযাপনকে ইতিবাচক বলে মন্তব্য বিসিবির

        মেহজাবীনের ‘সাবা’

        ঐশ্বরিয়াকে ‘বারংবার অপমান’

        রোজার আগেই হকার সমস্যা সমাধান হবে: মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী

        প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন

জরুরি অবস্থা ঘোষণা ইতালিতে

জরুরি অবস্থা ঘোষণা ইতালিতে

ইতালিতে ভয়াবহ ভূমিধসে ৭ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে শিশু ও নবজাতকও রয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় আরো ৯ জন নিখোঁজ রয়েছেন। প্রবল বৃষ্টির কারণে দেশটিতে এই ভূমিধস দেখা দেয়। এ পরিস্থিতিতে ইতালিতে রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। সোমবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রবল বৃষ্টির কারণে সৃষ্ট ভূমিধসে দক্ষিণ ইতালির ইসচিয়া দ্বীপে কমপক্ষে সাতজন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে একজন নবজাতক এবং দুই শিশুও রয়েছে। ক্লাউদিও পালোম্বা নামে একজন কর্মকর্তা সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, ভূমিধসের ঘটনায় অনেকেই এখনো নিখোঁজ রয়েছেন।

শনিবার ভোরের দিকে ইতালির নেপলসের কাছে উপকূলীয় এলাকায় ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে কাদা এবং ধ্বংসাবশেষের স্রোতে গাছপালা, ভবন ও গাড়ি ভেসে যায়। এরপর থেকেই অন্তত ১৩ জন নিখোঁজ ছিলেন। রবিবার ৭ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া বেশ কিছু ছবি এবং ভিডিওতে দেখা গেছে, ভূমিধসের ফলে অনেক ভবন ভেঙে গেছে এবং বেশ কয়েকটি গাড়ি ভেসে সমুদ্রের দিকে চলে যাচ্ছে। একজন বাসিন্দা এই ভূমিধসকে ‘পানি ও কাদার জলপ্রপাত’ হিসাবে আখ্যায়িত করেছেন। দ্য লোকাল জানিয়েছে, ইতালির দক্ষিণাঞ্চলীয় দ্বীপ ইসচিয়ায় প্রাণঘাতী ভূমিধসের পর রবিবার ইতালির সরকার জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে। ইতালির বেসামরিক সুরক্ষা মন্ত্রী নেলো মুসুমেসি বলেছেন, মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠক শেষে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয় এবং ২০ লাখ ইউরোর ত্রাণ তহবিলের প্রথম কিস্তি ছাড়ের ঘোষণা দেওয়া হয়।

ইসচিয়া দ্বীপে গত শনিবার ভূমিধসের শিকারদের শেষ মুহূর্তের হৃদয়বিদারক বিবরণ পাওয়া যাচ্ছে। ৩০ বছর বয়সী এক নারীর বাবা জানিয়েছেন, ভূমিধসের সময় ফোন করে তার কাছে সাহায্য চেয়েছিল মেয়ে। কিন্তু তিনি মেয়েকে সাহায্য করতে পারেননি। উদ্ধারকারীরা যাদের দেহ পেয়েছেন, তাদের মধ্যে ওই ব্যক্তির মেয়েও রয়েছে। বিবিসি জানিয়েছে, কাদা এবং ধ্বংসাবশেষের মধ্যে উদ্ধার তৎপরতা চালানো কঠিন হচ্ছে। স্রোতে বাড়িঘর ধ্বংস হয়ে গেছে এবং গাড়ি সমুদ্রে টেনে নিয়ে গেছে। ইতালির দক্ষিণাঞ্চলে লাগাতার বৃষ্টির মধ্যে ভূমিধসের ঘটনাটি ঘটেছে।

দমকল বাহিনীর শতাধিক কর্মী, ডুবুরি এবং মাটি সরানোর দল ধ্বংসস্তূপে ছড়িয়ে থাকা রাস্তাগুলো পরিষ্কার করার চেষ্টা করছে। ক্ষতিগ্রস্ত গাড়িগুলো একটি অন্যটির উপর উঠে আছে। সমুদ্রে ভেসে যাওয়া গাড়িগুলো উপরে টেনে তোলা হচ্ছে। সরকারি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ৩০ বছর বয়সী যে নারীর দেহ উদ্ধার করা হয়েছে, তার স্বামী এখনো নিখোঁজ রয়েছেন।

সূত্র: রয়টার্স, আনাদলু এজেন্সি

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত