আপডেট :

        অবসরে রোমান সানা

        বিদায় নিচ্ছেন ইলিয়াস কাঞ্চন

        বিমান থেকে গাজায় মানবিক সহায়তা যুক্তরাষ্ট্রের

        বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস

        আবদুল কাদের জিলানী (র:) এর মাজার জিয়ারতের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ

        মিসরে পৌঁছেছে হামাস

        কারাগারে ওসমানীর সাদেক

        দ্রুত বিচার আইন স্থায়ী করতে সংসদে বিল পাস

        বিজেপির প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ

        শাবি প্রেসক্লাবের নবগঠিত কমিটির অভিষেক

        অনির্বাচিত কেউ সংসদে আসতে পারে না: সংসদ স্পিকার

        পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ

        সময়ের আলোর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

        এবারের নির্বাচন সবচেয়ে অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

        এই বাংলাদেশির জন্য ২০ হাজার ডলার পুরস্কার ঘোষণা মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার

        কৃষি বার্ষিক গবেষণা পর্যালোচনা কর্মশালা

        বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ও আহতদের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমবেদনা

        মন্ত্রীর সংবর্ধনায় দু’পক্ষের উত্তেজনা, চেয়ার ভাঙচুর

        যুক্তরাজ্যে গেলেন রাষ্ট্রপতি

        বাসচাপায় পুলিশ সদস্যের মৃত্যু

রেড ক্রস প্রেসিডেন্ট-হামাস প্রধানের বৈঠক

রেড ক্রস প্রেসিডেন্ট-হামাস প্রধানের বৈঠক

ইসরায়েল ও গাজায় সশস্ত্র সংঘাত সম্পর্কিত মানবিক সমস্যাগুলোর সমাধান এগিয়ে নিতে সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট হামাস প্রধান ইসমাইল হানিয়াহর সাথে সাক্ষাৎ করতে কাতারে গেছেন। সোমবার (২০ নভেম্বর) রেডক্রসের পক্ষ থেকে এ কথা জানানো হয়েছে। খবর এএফপি’র।

 

রেড ক্রসের আন্তর্জাতিক কমিটি আইসিআরসি এক বিবৃতিতে বলেছে, প্রেসিডেন্ট মিরজানা স্পোলজারিক হামাসের রাজনৈতিক ব্যুরোর চেয়ার ইসমাইল হানিয়াহ ও কাতার কর্তৃপক্ষের সাথে আলাদাভাবে দেখা করেছেন।

ইসরায়েলে ৭ অক্টোবরের হামাসের নজিরবিহীন হামলায় যে ২৪০ জনকে জিম্মি করা হয় তাদের মুক্তির জন্য মধ্যস্থতাকারীদের মধ্যে সমঝোতা চুক্তির একটি প্রস্তাব উঠে এসেছে। ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ বলেছে, হামাসের ওই হামলায় প্রায় ১ হাজার২০০ লোক নিহত হয়েছে। নিহতদের বেশিরভাগ বেসামরিক লোক।

হামাস কর্তৃপক্ষের মতে, ইসরায়েলের বিমান ও স্থল অভিযান ইতোমধ্যে গাজায় হাজার হাজার শিশুসহ ১৩ হাজার ৩০০ জনেরও বেশি লোককে হত্যা করেছে। যাদের বেশির ভাগ বেসামরিক নাগরিক।

স্পোলজারিকের সফর আন্তর্জাতিক মানবিক আইনের প্রতি সম্মান উন্নত করতে সব পক্ষের সাথে সরাসরি আলোচনা করার প্রচেষ্টার অংশ বলে আইসিআরসি জোর দিয়েছে।

আইসিআরসি উল্লেখ করেছে, সাম্প্রতিক সপ্তাহে গাজায় জিম্মিদের পরিবারের পাশাপাশি ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনি নেতাদের সাথে স্পোলজারিক একাধিকবার দেখা করেছেন।

জেনেভা ভিত্তিক সংস্থাটি জোর দিয়েছে সংঘাতে সমস্ত ক্ষতিগ্রস্থদের জরুরী সুরক্ষার জন্য এবং গাজা উপত্যকায় বিপর্যয়কর মানবিক পরিস্থিতির অবসানের জন্য আবেদন অব্যাহত রেখেছে।

আইসিআরসি বলেছে, গাজায় এর কর্মীরা জীবন রক্ষাকারী সহায়তা প্রদান করছে এবং একটি সার্জিক্যাল দল অপারেশন চালিয়ে যাচ্ছে। সংস্থাটি কর্মকান্ড বাড়ানোর লক্ষে টেকসই, নিরাপদ মানবিক সহায়তা প্রবেশের আহ্বান জানিয়েছে।

আইসিআরসি তাদের দলগুলোকে জিম্মিদের কল্যাণ পরীক্ষা করতে ওষুধ সরবরাহ করতে এবং জিম্মিদের পরিবারের সাথে যোগাযোগের ব্যবস্থা করার অনুমতির জন্য জোর দিয়েছে।

সংস্থাটি অবিলম্বে জিম্মিদের মুক্তির আহ্বান জানিয়েছে। একটি নিরপেক্ষ মানবিক মধ্যস্থতাকারী হিসেবে ভবিষ্যতের যে কোনো মুক্তির সুবিধার্থে সংঘাতের পক্ষগুলোকে সম্মত করতে প্রস্তুত রয়েছে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি।

এলএবাংলাটাইমস/আইটিএলএস

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত