Updates :

        নাইজেরিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় ৩০ সেনা নিহত

        পাগলা মসজিদের দানবাক্সে মিলল ৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা

        কেন্টাকিতে গুলিতে ৩ পুলিশ কর্মকর্তা নিহত

        নানাবিধ সংকটে সিলেট-সুনামগঞ্জের বন্যাদুর্গতরা

        চর দেখতে যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়া সফরে ২০ সরকারি কর্মকর্তা

        বুয়েটে চান্স পেয়ে আবরার ফাহাদের ছোট ভাইয়ের আবেগঘন স্ট্যাটাস

        বিএনপির ত্রাণ বিতরণ স্থলে আ’লীগের কর্মসূচি, ১৪৪ ধারা জারি

        নুপুর শর্মাকে জাতির কাছে ক্ষমা চাইতে বললেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

        লিভারপুলে আরও ৩ বছর থাকছেন সালাহ

        নৌকায় করে মালয়েশিয়ায় প্রবেশের সময় ৩৭ বাংলাদেশি আটক

        মেরিল্যান্ডে সাধু আন্তনীর পর্ব উদযাপন

        ২৭ বছরের সম্পর্কের ইতি টানলেন মীর

        আফগান আলেমদের বৈঠকে তালেবানের শীর্ষ নেতা

        ‘বাংলাদেশ পুলিশ দেশের জনগণের প্রথম ভরসাস্থল হতে চায়’

        সুনামগঞ্জে বন্যায় ১৮০০ কোটি টাকার ক্ষতি

        ইয়েমেনে প্রায় দুই কোটি মানুষ ক্ষুধার্ত

        পদ্মা সেতুর নাট খোলার ভিডিও পোস্ট করায় আরেক যুবক গ্রেফতার

        পেনসিলভেনিয়ায় নাট্য সংগঠনের পুনর্গঠনের লক্ষ্যে মতবিনিময় সভা

        গুগল সার্চে সবার আগে যারা

        ইউক্রেনকে আরো ১৩০ কোটি মার্কিন ডলার দিল যুক্তরাষ্ট্র

চার বছর পর তুর্কিয়ে সফরে সৌদি যুবরাজ

চার বছর পর তুর্কিয়ে সফরে সৌদি যুবরাজ

২০১৮ সালে সাংবাদিক খাসগজির হত্যার পর এই প্রথম তুর্কিয়ে (তুরস্কের নতুন নাম) সফরে সৌদির যুবরাজ মোহাম্মেদ বিন সালমান। তুর্কিয়ে যখন কঠিন আর্থিক সংকটে পড়েছে, তখন সালমান সেদেশে গেলেন। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ডয়েচে ভেলে।

বুধবার (২২ জুন) আঙ্কারার প্রেসিডেন্ট হাউস চত্বরে সৌদির যুবরাজকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাগত জানান প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান। ২০১৮ সালের পর থেকে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক খারাপ হয়েছিল। সালমানের সফরের ফলে সেই সম্পর্ক আবার স্বাভাবিক হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সৌদিতে যুবরাজ সালমানই এখন কার্যত দেশশাসন করছেন। তিনি প্রথমে মিশর ও জর্ডন যান, তারপর তুরস্কে এসেছেন। আগামী মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এই অঞ্চল সফর করবেন। তার আগে সালমানও তিনটি দেশ সফর করলেন।

গত এপ্রিলে এরদোয়ান সৌদি আরব গিয়েছিলেন। তখন তিনি যুবরাজের সঙ্গে বৈঠক করেন। সেখানে তুরস্কে সৌদির বিনিয়োগ নিয়েও কথা হয়।

বাইডেন জমানায় রিয়াধের সঙ্গে ওয়াশিংটনের সম্পর্কেও ফাটল ধরেছে। রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করার পর ভূ-রাজনীতি বদলে গেছে। তাই সৌদির যুবরাজ সম্পর্কে বাইডেন তার আগের মনোভাব বদল করে সৌদি সফরেও যাচ্ছেন। এই অবস্থায় সৌদিও তাদের জোট প্রসারিত করতে চাইছে। তাছাড়া খাসগজির মৃত্যু ঘিরে তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে, সেসব সরিয়ে রেখে যুবরাজও এখন বিভিন্ন দেশ সফর করছেন।

আর্থিক সংকটে পড়ে তুর্কিয়ে এখন সৌদির সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে চাইছে। তারা উপসাগরীয় দেশগুলি থেকে বিনিয়োগ আনতে চায়। সেজন্যই আমিরাত, মিশর, সৌদির সঙ্গে সুসম্পর্ক চাইছেন এর্দোয়ান।

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এমই

[এলএ বাংলাটাইমসের সব নিউজ আরও সহজভাবে পেতে ‘প্লে-স্টোর’ অথবা ‘আই স্টোর’ থেকে ডাউনলোড করুন আমাদের মোবাইল এপ।]

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত