Updates :

        লস এঞ্জেলেসে আবারও বাড়ছে জ্বালানির মূল্য

        ১০৫ ফ্রিওয়েতে একাধিক গাড়ির সংঘর্ষে হাসপাতালে ৮

        দাহ্য পদার্থ ছড়িয়ে ২ দমকলকর্মীসহ অসুস্থ ৯

        অভিবাসীদের স্টেট আইডি সুবিধা সহজ করে আইন পাশ

        বাংলাদেশে মার্কিন বিনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

        জাতিসংঘ অধিবেশনে ফিলিস্তিনিকে সমর্থন জানালেন বাইডেন

        পেনসিলভেনিয়ায় বাংলাদেশ প্যারেড ও মেলা অনুষ্ঠিত

        এমসি কলেজে গণধর্ষণ: দুই বছরে সাক্ষ্য গ্রহণই শুরু হয়নি

        অভিনয় পারি কি না, সেটা দেখুন

        শিক্ষা সফরে জাপান যাচ্ছেন ওয়াসার এমডি

        বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম ৮ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন

        মেসির জোড়া গোল, আর্জেন্টিনার বড় জয়

        মিয়ানমার যুদ্ধবিমান থেকে বাংলাদেশে গুলি, সীমান্তে আতঙ্ক

        বিশ্বে ক্ষুধায় প্রতি ৪ সেকেন্ডে মারা যাচ্ছে একজন

        রাশিয়ার কর্মকাণ্ডে নজর রাখতে বিশ্বনেতাদের প্রতি বাইডেনের আহ্বান

        লস এঞ্জেলেসে পুলিশের গুলিতে আহত ১

        আমেরিকায় ১৫ বছরে সর্বোচ্চ ব্যাংক সুদের হার

        রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারও হত্যাকাণ্ড

        জাতিসঙ্ঘে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের প্রতি আবারো বাইডেনের সমর্থন

        কারাবন্দি স্বামী-স্ত্রীর সঙ্গে সময় কাটাতে ‘কেবিন’ সুবিধা, সময় ২ ঘণ্টা

কাবুলে আত্মঘাতী হামলায় রহিমুল্লাহ হাক্কানি নিহত

কাবুলে আত্মঘাতী হামলায় রহিমুল্লাহ হাক্কানি নিহত

ছবি: এলএবাংলাটাইমস

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে আত্মঘাতী হামলায় দেশটির প্রখ্যাত ধর্মীয় নেতা শেখ রহিমুল্লাহ হাক্কানি নিহত হয়েছেন। বিবিসি বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এক ব্যক্তি তার কৃত্রিম পায়ে লুকানো বোমার বিস্ফোরণ ঘটালে শেখ হাক্কানি নিহত হয় বলে তালেবান সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছেন।  গত বছর তালেবান দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতা দখলের পর দেশটির যেসব শীর্ষ পর্যায়ের নেতা নিহত হয়েছেন তাদের মধ্যে শেখ হাক্কানি অন্যতম বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।  

স্থানীয় খবরে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানের রাজধানীতে একটি ইসলামী প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনা ঘটে।

শেখ হাক্কানি আফগানিস্তানের তালেবান সরকারের সমর্থক ছিলেন। পাশাপাশি তিনি ছিলেন জিহাদি জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট খোরাসান প্রদেশের (আইএস-কে) একজন কট্টর সমালোচক।  

তিনি আফগানিস্তানে নারী শিক্ষার পক্ষে ছিলেন। আফগানিস্তানের নারী শিক্ষা নিয়ে বিতর্কের পরও এর আগে নারী শিক্ষার সমর্থনে একটি ফতোয়া জারি করেছিলেন শেখ হাক্কানি। 

তার মৃত্যু ইসলামী আমিরাতের জন্য অনেক বড় ক্ষতি বলে তালেবানের এক জেষ্ঠ্য কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন। কর্তৃপক্ষ হামলার পেছনে জড়িতদের খুঁজে বের করতে তদন্ত শুরু করেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

অবশ্য এই হত্যাকাণ্ডের পেছনে কারা দায়ী তা তাৎক্ষণিকভাবে স্পষ্ট নয়। এর আগে ইসলামিক স্টেট (আইএস) তার ওপর হামলার চেষ্টা করেছিল।
 
এলএবাংলাটাইমস /এজেড

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত