Updates :

        ইথিওপিয়ায় যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানালেন জাতিসংঘের মহাসচিব

        শুরু হতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবানের বৈঠক

        তাইওয়ান প্রণালী দিয়ে অতিক্রম করলো যুক্তরাষ্ট্রের জাহাজ

        অস্টিনে স্যামসাং এর নতুন কারখানা স্থাপন

        সাউথ আফ্রিকায় শনাক্ত নতুন ভ্যারিয়েন্ট, বাড়ছে সংক্রমণ

        আমেরিকা নিজেই গণতন্ত্র নিয়ে ঝামেলায় আছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

        গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর বরখাস্ত

        বইবে উষ্ণ হাওয়া: থ্যাংকসগিভিং ডে’তে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের শঙ্কা ক্যালিফোর্নিয়ায়

        এলএ মেট্রোতে আবার চালু হচ্ছে বাস ভাড়া, থাকছে ছাড়

        খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় নিউইয়র্কে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা

        স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বাংলাদেশের উত্তরণের সুপারিশ জাতিসংঘে অনুমোদন

        ফ্রান্সে নৌকাডুবে ২৭ অভিবাসীর মৃত্যু

        নাক দিয়ে করোনার টিকা নিলেন পুতিন

        ম্যানহাটন বিচে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা: মৃত ৩, আহত ৩

        সুইডেনের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী অ্যান্ডারসন

        টেস্ট থেকে আনুষ্ঠানিক অবসরে মাহমুদউল্লাহ

        ‘নাটাই ঘুড়ি’ নিয়ে ভালো সাড়া পাচ্ছি: রিজভী

        খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার দাবি : ৮ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা বিএনপির

        বাংলাদেশে এবারই প্রথম হেলিও জি৯৬ প্রসেসরের ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন ‘নোট ১১ প্রো’ উন্মোচন করল ইনফিনিক্স

        কবিতা

ইউরোপে নিষিদ্ধ হতে পারে হিজাব!

ইউরোপে নিষিদ্ধ হতে পারে হিজাব!

শর্ত সাপেক্ষে ইউরোপের বিভিন্ন কোম্পানিগুলো তাদের মুসলিম কর্মচারীদের হিজাব পরা নিষিদ্ধ করতে পারবে বলে ইউরোপীয় ইউনিয়নের উচ্চ আদালত রায় দিয়েছে। বৃহস্পতিবার এ রায় দেয়া হয়। জার্মানির দু’মুসলিম নারীর করা মামলার প্রেক্ষিতে এ রায় আসে। ওই দু’নারীকে ইসলাম অনুসারে হিজাব পরার কারণে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের উচ্চ আদালত বলেছে, সামজিক বিভেদ ও বিতর্ক দূর করতে আর খদ্দেরদের কাছে নিরপেক্ষ ভাবমূর্তি রক্ষায় (কোম্পানিগুলোর) মালিকপক্ষ কর্মক্ষেত্রে ধর্মীয় পোশাকের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারবে। শুধু ধর্মীয় নয় রাজনৈতিক আর দার্শনিক চিন্তা প্রকাশ করে এমন পোশাকের ক্ষেত্রে মালিক পক্ষ তাদের স্বার্থ অনুসারে পদক্ষেপ নিবে।

(কোম্পানিগুলোর) মালিকপক্ষ কর্মক্ষেত্রে তাদের নিজেদের প্রকৃত স্বার্থ রক্ষার্থে কোনো সিদ্ধান্ত নিলে তা বৈধ। এ ক্ষেত্রে বিভিন্ন অধিকার ও স্বার্থের সমন্বয় ঘটাতে হবে। এসব বিষয়ে বিভিন্ন দেশের জাতীয় আদালত তাদের রাজ্যগুলোর বিষয়েও সিদ্ধান্ত নিতে পারবে। বিশেষ করে দেশগুলোর ধর্মীয় স্বাধীনতা নীতি অনুসারে তারা সিদ্ধান্ত নিতে পারবে।

ওই দু’জার্মান মুসলিম নারীর একজন এক চাইল্ড কেয়ার সেন্টারের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের দেখভাল করতেন। এ চাইল্ড কেয়ার সেন্টারটি হামবুর্গ চ্যারিটেবল অ্যাসোসিয়েশন পরিচালনা করত। আরেক মুসলিম নারী মুয়েলার ড্রাগের এক চেইন স্টোরের ক্যাশিয়ার ছিলেন। এ দুই মুসলিম নারীই তাদের চাকরির শুরুতে হিজাব পরতেন না। কিন্তু, কয়েক বছর পর মাতৃত্বকালীন ছুটি কাটিয়ে তারা হিজাব পরা শুরু করেন।

এ সময় ওই দু’জার্মান মুসলিম নারীকে তাদের মালিকপক্ষ বলেছে যে তারা কর্মক্ষেত্রে হিজাব পরতে পারবেন না, হিজাব পরলে তাদের চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হবে। তাদের আরো বলা হয়েছে হিজাব ছাড়া চাকরিতে আসেন, নয়ত অন্য চাকরিতে চলে যান। ইউরোপীয় ইউনিয়নের উচ্চ আদালতের বিভিন্ন নথি অনুসারে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

বহু বছর ধরেই ইউরোপে হিজাব নিয়ে বিতর্ক চলছে। এর আগে ২০১৭ সালে লুক্সেমবার্গের ইউরোপীয় ইউনিয়নের আদালত থেকে বলা হয়েছে, শর্ত সাপেক্ষে ইউরোপের বিভিন্ন কোম্পানিগুলো তাদের কর্মচারীদের হিজাব পরা বা অন্য ধর্মীয় প্রতীক ব্যবহার নিষিদ্ধ করতে পারবে। তখন বিভিন্ন ধর্মের লোকেরা এমন সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করেছিল।

 

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/ইউ

[এলএ বাংলাটাইমসের সব নিউজ আরও সহজভাবে পেতে ‘প্লে-স্টোর’ অথবা ‘আই স্টোর’ থেকে ডাউনলোড করুন আমাদের মোবাইল এপ।]

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত