Updates :

        মুম্বাইয়ে বহুতল ভবনে আগুন, ২০ তলা থেকে পড়ে মৃত্যু

        রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনবিরোধীরা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

        লস এঞ্জেলেসে গ্যাসোলিনের মূল্য ২০১২ সালের পর সর্বোচ্চ বাড়লো

        ২০২২ সালেও চলতে পারে করোনা মহামারি: ডব্লিউএইচও

        লালমনিরহাটে আকস্মিক বন্যায় দিশেহারা মানুষ

        'ট্রুথ সোশ্যাল' নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফিরছেন ট্রাম্প

        তালেবানের সাথে বৈঠক করল ভারত

        লস এঞ্জেলেস বন্দরে ক্রমশই বাড়ছে জাহাজের জট

        ফ্রি-ওয়েতে পাওয়া গেলো মানবদেহের অবশিষ্টাংশ

        বন্ধ হতে যাচ্ছে লস এঞ্জেলেসের ১০১নং ফ্রি-ওয়ে

        বেভারলি হিলসে শপিংমলে বন্দুক হামলায় আহত ১

        ক্যালিফোর্নিয়ার ৫৮ কাউন্টিতেই খরা সতর্কতা জারি

        ত্রিপুরার ভিডিওকে রংপুরের বলে অপপ্রচার চলছে : র‍্যাব

        নাম বদলে যাচ্ছে ফেসবুকের!

        এবার সাবমেরিন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ উ. কোরিয়ার

        লস এঞ্জেলেসে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত ১, আহত ২

        টিকাগ্রহণ করলে কমতে পারে মুদ্রাস্ফীতি

        বাধ্যতামূলক টিকাগ্রহণের আদেশের বিরোধীতা করছে অভিভাবকরা

        হাইতিতে অপহৃত মিশনারি দল: জনপ্রতি ১ মিলিয়ন ডলার মুক্তিপণ দাবি

        লস এঞ্জেলেসে শেখ রাসেল দিবস উদযাপন

ফিরে এসেছে লন্ডনে হারিয়ে যাওয়া বাংলাদেশী হাফিজা

ফিরে এসেছে লন্ডনে হারিয়ে যাওয়া বাংলাদেশী হাফিজা

চার দিন নিখোঁজ থাকার পর খুঁজে পাওয়া গেছে লন্ডনে হারিয়ে যাওয়া বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত হাফিজাকে। সোমবার রাত ১১.৩০ মিনিটের দিকে বাসায় ফিরেছেন তিনি। পরিবারের পক্ষ থেকে তার বড় বোন জয়নব এই খবর নিশ্চিত করেছেন। পরে বিবিসিসহ স্যোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে হাফিজার ফিরে আসার খবর।

লন্ডনের নিউহামের সেন্ট্রাল পার্ক রোডের বাসিন্দা ১৪ বছরের স্কুল ছাত্রী হাফিজা নিখোঁজ হয় গত ৭ অক্টোবর। স্ট্রাাটফোর্ডের সারা বোনেল গার্লস স্কুলের ইয়ার টেনের শিক্ষার্থী তিনি। ওই দিন স্কুল থেকে বাসায় না ফিরলে তার পরিবার চারদিকে খুজঁতে থাকে। বাংলাদেশী কমিউনিটিসহ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে তার হারিয়ে যাওয়ার খবর।

তার পরিবার পুলিশকে জানালে সবাই মিলে খুঁজতে থাকে ব্রিটিশ বাংলাদেশী তরুণী হাফিজাকে। শুরুতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, হোয়াটসআপ, ফেসবুক ইত্যাদিতে হাজার হাজার পোষ্ট শেয়ারের মাধ্যমে মানুষের সহায়তা চাওয়া হয়। পরে টাওয়ার হ্যামলেটস ও নিউহ্যামের বিভিন্ন রাস্তার গাছ, পিলার, বাসস্টপে ছড়িয়ে দেয়া হয় হাফিজার ছবিসহ হারিয়ে যাওয়ার পোষ্টার। পোস্টারে আবেদন করা হয়, কেউ যদি হাফিজাকে খুঁজে পান তাহলে যেন অবশ্যই পুলিশ অথবা পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেন।

হাফিজার নিরাপদ ফিরে আসায় লন্ডনে বাংলাদেশী কমিউনিটির মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসে। কমিউনিটির বিভিন্ন পর্যায় থেকে এই সংবাদটির পর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয় সৃষ্টিকর্তার কাছে। সবার একটাই প্রত্যাশা ছিল হাফিজার নিরাপদ ফিরে আসার জন্য। সোমবার রাতে হাফিজা ফিরে এলে পরিবার থেকে একটি ম্যাসেজ বিভিন্ন হোয়াটসআপ গ্রুপে জানিয়ে দেয়া হয়। সেখানে তারা বলেন, এই মুহূর্তে হাফিজা নিরাপদে বাড়ি ফিরেছে এটাই সবচেয়ে বড় স্বস্তির। এর বাইরে আপাতত আর কোনো তথ্য তারা বলতে পারছেন না।

এদিকে হাফিজা নিখোঁজের পর থেকে লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশের নিউহ্যাম শাখা বেশ দায়িত্বশীলতার সাথে হাফিজাকে খুঁজে গেছে। তারাও সচেষ্ট ছিলো হাফিজা যেহেতু কিশোরী তাই তাকে নিরাপদে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে। লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ মঙ্গলবার ভোর রাতের দিকে টুইট কওে জানায়- ‘ভালো খবর, হাফিজাকে খুঁজে পাওয়া গেছে এবং তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। সবাইকে বিশেষ ধন্যবাদ যারা হাফিজার নিখোঁজ সংবাদ শেয়ার করেছেন। সবার প্রতি শুভকামনা।’

এদিকে হাফিজা চার দিন কোথায় ছিল, কিভাবে ছিল, কিভাবে উদ্ধার হয়েছে- তার কোনো তথ্য এখনো প্রকাশ করেনি পুলিশ। তবে বড় বোন জয়নব, হাফিজাকে খুঁজে পেতে ব্যাপক প্রচারণার জন্য সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, আমরা এই মুহূর্তে এর চেয়ে বেশি কিছু জানাতে পারছি না। কিন্তু আমরা প্রত্যেক ব্যক্তিকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি, হাফিজাকে খুঁজে পেতে সহায়তার জন্য। যারা পোস্টার লাগিয়েছেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করেছেন তাদের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা। তিনি তার বোনের জন্য দোয়া কামনা করেন।

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এল

[এলএ বাংলাটাইমসের সব নিউজ আরও সহজভাবে পেতে ‘প্লে-স্টোর’ অথবা ‘আই স্টোর’ থেকে ডাউনলোড করুন আমাদের মোবাইল এপ।]

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত