আপডেট :

        ফিলিস্তিনকে এবার রাষ্ট্র হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দিয়েছে আর্মেনিয়া

        বন্যার পানিতে নৌকাডুবি, মেডিকেল শিক্ষার্থীর মৃত্যু

        বন্যার পানিতে নৌকাডুবি, মেডিকেল শিক্ষার্থীর মৃত্যু

        বিষধর রাসেলস ভাইপার সাপের কামড়ে এক কৃষকের মৃত্য

        বিষধর রাসেলস ভাইপার সাপের কামড়ে এক কৃষকের মৃত্য

        প্রবাসীদের আয়ে ভর করে বাড়ল রিজার্ভ

        প্রবাসীদের আয়ে ভর করে বাড়ল রিজার্ভ

        রাষ্ট্রীয় সফরে দিল্লি পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

        রাষ্ট্রীয় সফরে দিল্লি পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

        কোরআন অবমাননায় শাস্তি স্বরূপ পর্যটককে 'জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যা'

        একটু ধাক্কা লাগলে আওয়ামী লীগ সরে যাওয়ার পাত্র নয়ঃওবায়দুল কাদের

        একটু ধাক্কা লাগলে আওয়ামী লীগ সরে যাওয়ার পাত্র নয়ঃওবায়দুল কাদের

        ৭০০ থেকে ৮০০ কোটি ডলার পাচার হয় বলে ডলার-সংকট

        সূর্যের ফিফটিতে শক্ত পুঁজি ভারতের

        ট্রেজারি বিল ও বন্ডে ব্যাংকের বিনিয়োগ বৃদ্ধি

        দুর্নীতি মামলায় জামিন পেয়েছেন ভারতের দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল

        বিষাক্ত মদ পানে ৩৭ জনের মৃত্যু

        বিষাক্ত মদ পানে ৩৭ জনের মৃত্যু

        লেবাননের সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ ইইউ সদস্য দেশ সাইপ্রাসকেও সতর্ক করেছে

        ইফাত রাজস্ব কর্মকর্তারই ছেলে, জানালেন এমপি নিজাম

এবারের মতো পার পেয়ে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

এবারের মতো পার পেয়ে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন তাঁর বিরুদ্ধে উত্থাপিত অনাস্থা ভোটে জিতে গেছেন। ফলে প্রধানমন্ত্রী পদে থাকছেন তিনি। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

বরিস জনসন প্রধানমন্ত্রী থাকবেন কি না, এ বিষয়ে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় গোপন ব্যালটে ভোট অনুষ্ঠিত হয়। এ ভোটে বরিসের পক্ষে ২১১ ভোট পড়েছে এবং বিপক্ষে পড়েছে ১৪৮ ভোট। ভোট গণনা শেষে রাতে কনজারভেটিভ পার্টির ১৯২২ কমিটির সভাপতি স্যার গ্রাহাম ব্রেডি এই ভোটের ফলাফল ঘোষণা করেন।

গত বছর করোনা মহামারির সময় লন্ডনে যখন কঠোর বিধিনিষেধ চলছিল তখন ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে মদের পার্টির আয়োজন করে তীব্র সমালোচনার জন্ম দিয়েছিলেন বরিস জনসন। তখন তাঁর পদত্যাগ দাবি করেন অনেকে। এমনকি তাঁর নিজ দলের সংসদ সদস্যরাও ক্ষুব্ধ হন।

এ ছাড়া গত বছর সারা দেশে যখন প্রিন্স ফিলিপের মৃত্যুতে জাতীয় শোক চলছিল, তখন ডাউনিং স্ট্রিটে তিনি পার্টির আয়োজন করেছিলেন। জমকালো ওই পার্টির আয়োজন করা হয়েছিল বরিসের যোগাযোগবিষয়ক পরিচালক জেমস স্ল্যাকের বিদায় উপলক্ষে। পরে অবশ্য এ ঘটনার জন্য ব্রিটিশ রানির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন বরিস জনসন। তাঁকে মোটা অঙ্কের জরিমানাও দিতে হয়েছে তাঁকে।

এ সব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার দলীয় পার্লামেন্ট সদস্যদের অনাস্থা ভোটের মুখে পড়েন বরিস জনসন।

কনজারভেটিভ পার্টির নেতৃত্ব নির্বাচনের কাজ করে থাকে দলটির ‘১৯২২ কমিটি’। এই কমিটির কাছে দলের ১৫ শতাংশ সংসদ সদস্য যদি চিঠি দিয়ে দলের নেতা ও প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেন, তাহলে তা অনাস্থা ভোটে গড়ায়। এর আগে নিজ দল কনজারভেটিভ পার্টির ৫৪ আইনপ্রণেতা বরিসের বিদায় চেয়ে চিঠি দিয়েছিলেন।

 

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এল

[এলএ বাংলাটাইমসের সব নিউজ আরও সহজভাবে পেতে ‘প্লে-স্টোর’ অথবা ‘আই স্টোর’ থেকে ডাউনলোড করুন আমাদের মোবাইল এপ।]

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত