Updates :

        ৩ হাজার ডলার চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিট হাউজে অনুমোদন

        অনুমোদন পেলো জনসন এন্ড জনসনের এক ডোজের টিকা

        সৌদি আরব নিয়ে বাইডেনের ঘোষণা সোমবার

        সহযোগী হোক জীবনসঙ্গীটি

        ভারতে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ, দ্বিতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা

        পপগুরু আজম খানের জন্মদিন

        মঙ্গল থেকে যে কম্পিউটার ছবি পাঠাচ্ছে

        পরিণীতির প্রথম 'ক্রাশ' সাইফ আলি খান

        দেশে পঞ্চম ধাপে ২৯ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে

        নিউ ইয়র্কে এশীয় বংশোদ্ভূতদের ওপর হামলা বাড়ছেই

        রিয়াদে ব্যাপক বিস্ফোরণের শব্দ

        লেখক মুশতাকের মৃত্যুতে ক্ষোভ: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি টিআইবির

        রিয়ালকে টপকে গেল বার্সা

        সেনাবিরোধী বক্তব্য দেওয়ায় মিয়ানমারের জাতিসংঘ দূত বরখাস্ত

        ইনল্যান্ড এম্পায়ারের দিকে ঝুঁকছে লস এঞ্জেলেসবাসী

        লস এঞ্জেলেসে শিশুদের মধ্যে করোনাজনিত রোগ বাড়ছে

        শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে ৩০ মার্চ

        পাওয়া গেছে লেডি গাগার ছিনতাই হওয়া কুকুর

        বক্তব্য দিতে গিয়ে মঞ্চেই জাতীয় পার্টির নেতার মৃত্যু

        লস এঞ্জেলেসের শিক্ষা ও শিশু স্বাস্থ্যসেবা সংশ্লিষ্টরা টিকা পাচ্ছেন আগামী সপ্তাহে

সেই ‘আনকোরা’ দলের কাছেই ধবলধোলাই টাইগাররা

সেই ‘আনকোরা’ দলের কাছেই ধবলধোলাই টাইগাররা


ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলটি যখন বাংলাদেশে খেলতে আসার জন্য নিজেদের স্কোয়াড ঘোষণা করে সেই দল দেখে বাংলাদেশসহ স্বয়ং উইন্ডিজরা পর্যন্ত সমালোচনা করেছিলো। বলা হয়েছিলো করোনার কারণে প্রথম সারির খেলোয়াড় বাংলাদেশে আসতে রাজি না।

ওয়ানডে এবং টেস্ট সিরিজ খেলতে দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে বাংলাদেশে আসে উইন্ডিজ ক্রিকেট দল। দলটির বড় সুপারস্টারদের কেউ করোনা শঙ্কায়, কেউ ব্যক্তিগত কারণে আসেননি। তাই এই দলটি নিয়ে খুব হতাশ ছিলেন টাইগার ক্যাপ্টেন মুমিনুল হক এমনকী নির্বাচক হাবিবুল বাশার। কিন্তু সেই আনকোরা দলের কাছেই টেস্টে ধবলধোলাই হলো বাংলাদেশ।

চট্টগ্রাম টেস্টে ৩ উইকেটে হারের পর ঢাকা টেস্ট চার দিনেই জিতে নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাদের গোছানো ক্রিকেটের বিপরীতে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের সেই পুরনো ওয়ানডে মানসিকতা দেখা গেছে। আর যাই হোক, বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের দেখে মনে হয়নি তারা টেস্ট ক্রিকেট খেলতে নেমেছেন।

উইন্ডিজ দল ঘোষণার পর গত ৩০ ডিসেম্বর অধিনায়ক মুমিনুল হক গণমাধ্যমে হতাশা প্রকাশ করে বলেছিলেন, ‘সবাই আশাই করে যে নিয়মিত দলটাই আসবে। শুধু আমি না, সবাই এটাই আশা করেছিল। দেশে খেললে আমাদের প্রত্যাশা থাকে আমরা ভালো করব। আর টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে আমরা অবশ্যই জয়ের জন্যই যাব। সেটা এই দল না, ওদের মূল দল এলেও আমাদের মানসিকতা একই থাকত।’

তখন জাতীয় দলের অন্যতম নির্বাচক হাবিবুল বাশারও বলেছিলেন, ‘একটু দুঃখ লাগল। করোনার কারণে যদি না আসে তাহলে তো কিছু বলতে পারবেন না। কিন্তু ওরা সব জায়গায় খেলছে, বাংলাদেশে অন্যান্য জায়গা থেকে কোভিড-১৯ ভালো ব্যবস্থাপনা করেছি, নিয়ন্ত্রণ করেছি। দুটি টুর্নামেন্ট করেছি সফলভাবে। সব জায়গায়ই তো মানুষ মারা যাচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশে এলে কোভিডের সমস্যা হয়, এই যুক্তিটা বুঝে ওঠা কঠিন।’

মুমিনুলরা নিশ্চয়ই আজ হতাশ হবেন না। কারণ উইন্ডিজ দ্বিতীয় সারির দল পাঠালেও তারা ধোলাই করে দিয়েছে। সেটাও আবার ক্রিকেটের বনেদি ভার্সন টেস্ট ক্রিকেটে।

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত