আপডেট :

        চলতি মৌসুম শেষেই ক্লাব ছাড়ছেন টুখেল

        হলিউডে যাত্রা শুরু বারাক ওবামার মেয়ের

        রাশিয়ার ওপর পাঁচ শতাধিক নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা

        ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে বড়লেখায় বিক্ষোভ

        ফের গুলি-মর্টার শেলের শব্দ

        স্পেনে ১৪ তলা ভবনে আগুন

        বাংলাদেশ পুলিশ পদক পাচ্ছেন পুলিশ সুপার ছাইদুল হাসান

        বিএনপির দোসর অবৈধ মজুতকারীরা: খাদ্যমন্ত্রী

        রাশিয়ার ৫০০টির বেশি লক্ষ্যবস্তুকে নিষেধাজ্ঞা দেবে যুক্তরাষ্ট্র

        ৩ ঘন্টায় মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত

        স্পিকার-গ্লোবাল পার্টনার্স গভর্ন্যান্স পরিচালকের সৌজন্য সাক্ষাৎ

        ইমরান খানের দাবি প্রত্যাখ্যান

        একসঙ্গে চার শিশুর জন্ম

        গণধোলাই দেওয়া উচিত অবৈধ মজুতদারীদের: প্রধানমন্ত্রী

        বেপরোয়া মিয়ানমারের জান্তা: জাতিসংঘ

        এমটিবি সাইকেল রেস

        মুক্তির সঙ্গে নির্বাচনের কোনো সম্পর্ক নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

        হিজড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন বিষয়ে সভা অনুষ্ঠিত

        মিউনিখ সম্মেলনে গাজা ও বিশ্বের সব প্রকার যুদ্ধ অবিলম্বে বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী

        কৃষি ব্যাংকের প্রনোদনাগুলো প্রচারণার মাধ্যমে তুলে ধরতে হবে: প্রতিমন্ত্রী

এ যেন স্বপ্নের ছবি পর্যন্ত মিলে যাওয়া!

এ যেন স্বপ্নের ছবি পর্যন্ত মিলে যাওয়া!

কিছু ছবি চিহ্ন রেখে যায়। কিছু ছবি চিরস্মরণীয় হয়। নতুনদের স্বপ্ন দেখায়। ডিয়াগো ম্যারাডোনার ১৯৮৬ বিশ্বকাপ জয়ের পর কাঁধে চেপে শিরোপা উচিয়ে ধরার ছবি তেমনই এক আইকনিক মুহূর্ত। তার মতো শিরোপা জয়, তার মতো শিরোপায় চুমু আঁকা, তার মতো করে বিশ্বকাপ উচিয়ে ধরার স্বপ্ন লিওনেল মেসিও শৈশব থেকেই দেখেছেন। দেখেছেন কোটি ভক্ত।

ওই স্বপ্ন রোববার রাতে পূরণ হয়েছে লিওনেল মেসির। লুসাইল স্টেডিয়ামে ফাইনালে ফ্রান্সকে টাইব্রেকারে হারিয়েছে মেসির আর্জেন্টিনা। ওই জয়ের পর শিরোপা নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন মেসি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে ভিডিও সাড়া ফেলেছে তাতে দেখা গেছে, কী মায়ায় শিরোপা ছুঁয়ে, কী আদরে চুমু এঁকেছেন তিনি।

এরপর অধিনায়ক মেসির হাতে তুলে দেওয়া হয় বিশ্বকাপের শিরোপা। সতীর্থ, পরিবারের সঙ্গে ওই শিরোপা নিয়ে উদযাপন করেন তিনি। সংবাদ মাধ্যমে অনুভূতি জানান। ভক্তদের সঙ্গেও শিরোপা উদযাপন করেন তিনি। যেভাবে যুদ্ধ জয়ের পর রাজাকে মুকুট পরিয়ে কাঁধে চড়িয়ে উদযাপন করা হয়। ঠিক মেক্সিকোয় ১৯৮৬ বিশ্বকাপে যেমনটা করেছিলেন ম্যারাডোনা।

আর্জেন্টিনার ৩৬ বছরের শিরোপা খরা ঘুরিয়েছেন লিও মেসি ও তার দল। তিন যুগ আগে একক নৈপুণ্যে বিশ্বকাপ জিতিয়েছিলেন ম্যারাডোনা। মেসিও অনেকটা একাই টেনেছেন দলকে। পূর্বের কোন আসরে নক আউট পর্বে গোল করতে পারেননি লিও। এবার প্রতিটি নকআউট পর্বে গোল করেছেন তিনি। ফাইনালে তার পা থেকে এসেছে জোড়া গোল।

স্বপ্ন ছোঁয়া ওই নায়ককে অভিবাদন জানাতে মাঠে নেমে পড়েন তার শৈশবের বন্ধু কুন সার্জিও আগুয়েরো। হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ায় ফুটবল ছাড়তে হয়েছে তার। নয়তো তিনিও বিশ্বকাপ জয়ী দলের অংশ হতে পারতেন। কুন যেন ওই আক্ষেপ মেটালেন বন্ধু মেসিকে কাঁধে তুলে নিয়ে। বন্ধুর কাঁধে চেপে মেসি উচিয়ে ধরলেন শিরোপা। ঠিক ম্যারাডোনার মতো করে। যেন স্বপ্নে দেখা ছবিও মিলিয়ে দিলেন তিনি!


এলএবাংলাটাইমস/আইটিএলএস

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত