আপডেট :

        হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে গেল রাজ্য সরকার

        সরকারি ব্যাংকের ছয় উপব্যবস্থাপনা পরিচালককে অন্য ব্যাংকে বদলি করা হয়েছে

        ময়নাতদন্তের জন্য দাফনের ১৫ দিন পর কবর থেকে এক ব্যাংক কর্মকর্তার লাশ তুলা হলো

        মেটার রে-ব্যান স্মার্ট রোদচশমা,করা যাবে ভিডিও কল

        পানিসংকটের শঙ্কা ও শিক্ষার্থীদের অসুবিধার কথা বিবেচনায় নিয়ে পূর্বনির্ধারিত গ্রীষ্মকালীন ছুটি বাতিল

        শেয়ারবাজারের টানা পতন ঠেকাতে আবারও শেয়ারের মূল্যসীমায় পরিবর্তন আনা হয়েছে

        দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যার জেরে উত্তপ্ত ফরিদপুর

        দেশে একদিনের ব্যবধানে দেশের বাজারে সোনার দাম কমলো

        বাংলাদেশ সিরিজের জন্য দল ঘোষণা

        মিয়ানমার থেকে ফেরত আসা বাংলাদেশিরা

        মিয়ানমার থেকে ফেরত আসা বাংলাদেশিরা

        যুক্তরাষ্টের শিক্ষকদের স্কুলে বন্দুক নিয়ে যাওয়া নিয়ে একটি বিল পাস হয়েছে

        যুক্তরাষ্টের শিক্ষকদের স্কুলে বন্দুক নিয়ে যাওয়া নিয়ে একটি বিল পাস হয়েছে

        র‍্যাবের মুখপাত্র হলেন কমান্ডার আরাফাত

        ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ সাধারণ নির্বাচন সুষ্ঠু করতে নেওয়া হচ্ছে পদক্ষেপ

        বিশেষ ট্রেনের ৩ বগি লাইনচ্যুত

        কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ভোটার কতজন?

        বৈশ্বিক গড় উষ্ণতার চেয়ে দ্রুত উত্তপ্ত হচ্ছে এশিয়া অঞ্চল

        বাংলাদেশের হিন্দু শরণার্থীদের ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে

        বাংলাদেশের হিন্দু শরণার্থীদের ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে

এমটিবি সাইকেল রেস

এমটিবি সাইকেল রেস

সবুজ শ্যামল উঁচু-নিচু পাহাড়-টিলা ঘেরা সিলেটের চা বাগানে শুক্রবার সকালে অনুষ্ঠিত হয়েছে এক রোমাঞ্চকর সাইকেল রেস।

অষ্টমবারের মত সিলেট সাইক্লিং কমিউনিটির আয়োজনে সকাল ৭টায় মালনিছড়া চা বাগানে অনুষ্ঠিত হলো এই ‘এসসিসি এমটিবি চ্যালেঞ্জ ২০২৪’ পাওয়ারড বাই গ্লোবাল হেলথকেয়ার সাইকেল রেইস প্রতিযোগিতা।

রেইসের দুই বিভাগে সারা দেশের ১৩৫জন রেসার এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করেন। এরমধ্যে নারী বিভাগে প্রতিযোগিতায় অংশ নেন ৭ রেসার। পুরুষদের জন্য ২৭ কিলোমিটার আর নারীদের জন্য ছিলো ১৭ কিলোমিটার।

পুরুষ বিভাগে বিজয়ী হয়েছেন- কাওসার পয়দা, দ্বিতীয় হয়েছেন এম ডি শহীদ হোসেইন এবং তৃতীয় হয়েছেন এম ডি জালাল। এছাড়া নারী বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন, তাবাসসুম এবং দ্বিতীয় হয়েছেন সানজিদা রহমান। বিজয়ীদের ছাড়াও শীর্ষ দশজন রেসারকে নগদ টাকা পুরস্কার দেয়া হয়।

এই প্রতিযোগিতার পৃষ্টপোষকতায় ছিলো গ্লোবাল হেলথকেয়ার সেন্টার। প্রতিযোগিতার বিচারকের দায়িত্বে ছিলেন সৈয়দ সুহাগ, মামুনুর রহমান, নুসরাত জাহান এবং মোহাম্মদ আবদুল্লাহ।

সিলেট সাইক্লিং কমিউনিটির এডমিন এবং আয়োজক কমিটির সদস্য ডা. ওরাকাতুল জান্নাত জানান, ‘আমরা সব সময় তরুণদের নিয়ে কাজ করতে চাই। আমরা চাই তরুণদের খেলাধুলায় আগ্রহ বাড়ুক।’

তিনি বলেন, ‘সাইক্লিং করলে মানুষ শারীরিক এবং মানসিকভাবে সুস্থ থাকে। এটি একটি আন্তর্জাতিক এবং জাতীয় পর্যায়ের খেলা আমরা মনে করি সাইক্লিস্টরা এমন রেসের মাধ্যমে তারা নিজেদের তৈরি করতে পারবে তাই আমরা চেষ্টা করছি সাইক্লিংয়ে মানুষের অংশগ্রহণ বাড়ানোর।’

নারী বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হওয়া তাবাসসুম জানান, ‘চা বাগানের ভেতরে এমন একটি সুন্দর প্রতিযোগিতায় আমি চ্যাম্পিয়ন হতে পেরে খুব ভালো লাগছে। এই রেসের মাধ্যমে আমার আত্মবিশ্বাস আরো বেড়েছে। আশা করছি ভবিষ্যতে আর ভালো কিছু করতে পারবো।’

সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গ্লোবাল হেলথকেয়ার সেন্টারের হেড অফ মার্কেটিং এহ্তেশাম চৌধুরী।

এলএবাংলাটাইমস/আইটিএলএস

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত