যুক্তরাষ্ট্রে আজ বুধবার, ০৮ এপ্রিল, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 01:50pm

|   লন্ডন - 08:50am

|   নিউইয়র্ক - 03:50am

  সর্বশেষ :

  ১১ সপ্তাহ লকডাউনের পর উন্মুক্ত উহান   যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ১৯৭০ জনের প্রাণহানি   ‘ওয়াইএমসিএ’র ছাঁটাইকৃত কর্মীদের চাকরির ঘোষণা দিলেন লস এঞ্জেলেস মেয়র   করোনা ঠেকাতে বাধ্যতামূলক মাস্ক পড়ার নিয়ম করল সান বার্নার্ডিনো কাউন্টি   করোনায় কমেছে লস এঞ্জেলেসের সকল প্রকার অপরাধঃ এলএ পুলিশ চীফ   কভিড-১৯; লস এঞ্জেলেসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৬৯; আক্রান্ত ৬ হাজার ৯১০   গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জ জেলা লকডাউন   বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের নাতি ছাত্রলীগের সেক্রেটারি   পুলিশের মহাপরিদর্শক হচ্ছেন বেনজীর, র‌্যাব মহাপরিচালক মামুন   করোনাভাইরাস: বিশ্বব্যাপী সুস্থ হয়ে উঠেছে ৩ লাখ মানুষ   ফ্রান্সে করোনায় মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়ালো   নিউইয়র্কে মর্গে জায়গা নেই, ফ্রিজে লাশ রাখার সিদ্ধান্ত   সিঙ্গাপুরে একদিনে ৪৭ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত   বিশ্বনবীর মিম্বর থেকে করোনা নিয়ে যা বললেন শাইখ সুদাইস   এখন থেকে লস এঞ্জেলেসের যে কোন বাসিন্দা করোনা টেস্ট করাতে পারবে

>>  সিলেট এর সকল সংবাদ

সিলেটে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত

সিলেটে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত একজনকে শনাক্ত করা হয়েছে।আজ রবিবার (০৫ এপ্রিল) সন্ধ্যা য় বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মণ্ডল।

আক্রান্ত ব্যক্তি সিলেটের একটি হাসপাতালের চিকিৎসক। বর্তমানে তিনি নগরের হাউজিং এস্টেট এলাকায় নিজ বাসায় রয়েছেন। বাসাটি লকডাউন করার প্রক্রিয়া চলছে।

জানা গেছে, কিছুদিন পূর্বে প্রবাস থেকে এক আত্মীয় তার বাসায় এসেছিলেন। আত্মীয় চলে যাওয়ার পর থেকে তিনি অসুস্থবোধ করছিলেন। পরে নিজে উদ্যোগী হয়ে পরীক্ষা করানোর পর তার শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।


বিস্তারিত খবর

সিসিক মেয়রের অনুরোধে প্রথম সাড়া দিলেন স্ত্রী

 প্রকাশিত: ২০২০-০৪-০৩ ০৭:১১:৫০

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর অনুরোধে সাড়া দিয়ে নিজের কলোনির ভাড়াটিয়াদের বাড়িভাড়া মওকুফ করলেন তার স্ত্রী শ্যামা হক চৌধুরী।

করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় সিলেট নগরের কুমারপাড়ায় নিজস্ব কলোনির বাসিন্দাদের এক মাসের ভাড়া মওকুফ করলেন তিনি।

শুক্রবার দুপুরে মেয়র আরিফ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সিটি মেয়র বলেন, করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে নগরীর বাড়ির মালিকদের ভাড়া মওকুফের অনুরোধ করেছিলাম। সেই অনুরোধে সাড়া দিয়েছে আমার স্ত্রী।

শ্যামা হক চৌধুরী জানিয়েছেন, আমার কলোনিতে প্রায় ১৮টি পরিবার থাকে। তারা সবাই নিম্নআয়ের মানুষ। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে বাধ্যতামূলক ছুটি দীর্ঘ হওয়ায় খাদ্য সংকটসহ বিভিন্ন সমস্যায় পড়েছেন দরিদ্র মানুষ।

তিনি জানান, আমার স্বামী সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে কলোনির প্রত্যেক ভাড়াটিয়ার ভাড়া মওকুফ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তাই কলোনিতে বসবাস করা পরিবারগুলোর কাছ থেকে এক লাখ টাকা ভাড়া আমরা নেব না।

এর আগে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ডে বসবাসরত নিম্নমধ্যবিত্ত যেসব পরিবার বিভিন্ন বাসাবাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করছেন, তাদের এক মাসের ভাড়াও মওকুফ করার জন্য বাড়িওয়ালাদের প্রতি অনুরোধ জানান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

তিনি জানান, বাড়িওয়ালারা যদি এক মাসের ভাড়া মওকুফ করেন, তা হলে সিটি কর্পোরেশন তাদের প্রতি সম্মান জানিয়ে এক মাসের পানির বিল মওকুফ করবে।

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এস

বিস্তারিত খবর

সিলেটে বাংলাদেশের প্রথম ‘মানবতার ঘর'

 প্রকাশিত: ২০২০-০৪-০১ ১৩:৪৯:২৯

পাশ্চাত্যের আদলে বাংলাদেশের এই প্রথম সিলেট নগরীতে হত দরিদ্রদের খাদ্য ও বস্ত্রের যোগানে যাত্রা শুরু করলো ‘মানবতার ঘর,। খাদ্য ও বস্ত্র নিয়ে কারো বাসায় নয়, রাখা থাকবে একটি ছোট্র ঘরে। এখানে রাখা খাদ্য ও কাপড় নিজ দায়িত্বে নিয়ে যেতে পারবে যেকোনো হত দরিদ্র লোক। এমনি এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে ন্যাশনাল প্রেস সোসাইটি (গণমাধ্যম ও মানবাধিকার সংস্থা) সিলেট বিভাগীয় শাখা।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) বাদ আসর এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। সিলেটের প্রথম মুসলমান হযরত গাজী বুরহান উদ্দিন এর স্মৃতি বিজড়িত ২৪ নং ওয়ার্ডের হাজী হালু মাঝি জামে মসজিদের সম্মুখে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। মসজিদের পাশে ষ্টীল দিয়ে নির্মাণ করা একটি ঘরে খাদ্য সামগ্রী রাখা থাকবে একপাশে। অন্যপাশে রাখা থাকবে বিভিন্ন ধরণের কাপড়।

ব্যতিক্রমী এ ধরণের কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান, দোয়ার মাধ্যমে শুরু করা হয়। ন্যাশনাল প্রেস সোসাইটি (গণমাধ্যম ও মানবাধিকার সংস্থা) সিলেট বিভাগীয় শাখার সভাপতি মো. জুম্মানের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক মো. আমিনুল ইসলামের পরিচালনায় এতে দোয়া পরিচালনা করেন হাজী হালু মাঝি জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা মোঃ সিরাজ উদ্দিন আনসারি।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, হাজী হালু মাঝি জামে মসজিদের মোতাওয়াল্লি ফারুক আহমদ মটু, পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি মো. শফিক মিয়া, সহকারি মোতাওয়াল্লি নিজাম মিয়া, পঞ্চায়েত কমিটির সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা, কোষাদক্ষ হোসেন আহমদ, প্রবীণ মুরব্বী গিয়াস উদ্দিন, সংগঠনের সিলেট বিভাগীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক জুনেদ আহমদ চৌধুরী, সুরমা সমাজ কল্যাণ সমিতির সভাপতি মাসুম আহমদ।

সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এখানে রাখা থাকবে একেকটি খাদ্যের প্যাকেটে ২ কেজি চাল, আধা কেজি ডাল, আধা কেজি পেয়াজ, আধা লিটার তেল, এক কেজি লবন ও ২ কেজি আলু। খাদ্য সামগ্রীর পাশাপাশি রাখা থাকবে বিভিন্ন ধরণের কাপড়। যেকোন হত দরিদ্ররা নিয়ে যেতে পারবে ষ্টীলের তৈরী এই ঘর থেকে।

আপাতত: ২৪ নং ওয়ার্ডে এই কার্যক্রম শুরু করা হলেও পর্যায়ক্রমে সিলেট নগরীর সকল ওয়ার্ডে এটি চালু করা হবে।

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এস

বিস্তারিত খবর

সিলেটে আইসোলেশনে নেয়ার পর কিশোরীর মৃত্যু

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-৩১ ১১:৫৬:৩৪

সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের আইসোলেশন সেন্টারে নেয়ার আড়াই ঘণ্টা পর এক কিশোরীর (১৬) মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলে দুপুর দেড়টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় এ কিশোরী। গত দুই মাস ধরে লান্স ও হার্টের সমস্যায় ভুগছিলেন ওই কিশোরী।

এ ছাড়া ওই আইসোলেশনে থাকা ৫ জনের ৩ জনের করোনাভাইরাস পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। দু'জন চিকিৎসাধীন আছেন, তাদের অবস্থাও ভালো।

মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৩টায় সাংবাদিকদের এ সব তথ্য জানিয়েছেন শামসুদ্দিন হাসপাতালের অধীক্ষক ও ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. ইউনুছুর রহমান।

তিনি বলেন, কিশোরী ভর্তি হওয়ার পরপরই আমাদের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা তাকে দেখে অক্সিজেন ও অন্যান্য সাপোর্ট দেন। তার শরীরে করোনাভাইরাসের কোনো উপসর্গ নেই। দুই মাস আগে থেকেই লান্স ও হার্টের সমস্যায় তার জ্বর ও শ্বাসকষ্ট ছিল।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. ইউনুছুর রহমান বলেন, আমরা তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জেনেছি, সে কোনো বিদেশির সংস্পর্শে যায়নি। সে জন্য তার করোনা পরীক্ষার দরকার নেই। কারণ আমাদের চিকিৎসকরা এটিকে স্বাভাবিক মৃত্যু বলে নিশ্চিত করেছেন। আমরা কিশোরীর লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছি। পরিবার স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় লাশ দাফন করবেন।

নমুনা রাখার দরকার নেই জানিয়ে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. ইউনুছুর রহমান বলেন, আমরা তার নমুনা রাখব না। কারণ এটি স্বাভাবিক মৃত্যু।

এ দিকে সিলেটে শামসুদ্দিন হাসপাতালের করোনাভাইরাস সন্দেহভাজন ইউনিটে ৬ জন রোগী চিকিৎসাধীন আছেন। সোমবার পর্যন্ত হাসপাতালে ৫ জন রোগী ছিলেন।

তাদের মধ্যে ৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করে রোববার ঢাকায় পাঠানো হয়। তাদের ৩ জনেরই করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। আর তারা এখন অনেকটা সুস্থ। তাই তাদের বাসায় পাঠানো হবে। বাকি দুইজনের শারীরিক অবস্থাও ভালো, তাদের নমুনা পরীক্ষার জন্য সংগ্রহ করা হবে বলে জানিয়েছেন শামসুদ্দিন হাসপাতালের আরএমও সুশান্ত কুমার মহাপাত্র।

এ ছাড়া সিলেট বিভাগে সোমবার সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় হোম কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে আরও ৩০ জনকে। তবে সিলেট জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কাউকে কোয়ারেন্টিনে নেয়ার প্রয়োজন হয়নি।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য অধিদফতর সিলেটের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. আনিসুর রহমান। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হোম কোয়ারেন্টিনে রাখাদের মধ্যে সুনামগঞ্জে ১৪ জন, হবিগঞ্জে ১০ জন এবং মৌলভীবাজারে ৪ জন রয়েছেন। সবমিলিয়ে সিলেট বিভাগে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয় ৩ হাজার ৬২ জনকে। এদের মধ্যে ১ হাজার ৮২৯ জনকে এখন পর্যন্ত ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এস

বিস্তারিত খবর

সিলেটে হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র পেল ২৫৬ জন

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-৩১ ১০:৩৫:১৮

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সিলেটে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা ২৫৬ জনকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগটিতে ৩০ জনকে কোয়ারেন্টিন রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছেন সিলেটে ২ জন, সুনামগঞ্জে ১৪ জন, হবিগঞ্জে ১০ জন ও মৌলভীবাজারে ৪ জন।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) তাদের থেকে ছাড়পত্র দেয় হয়।

সিলেট স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে বিভাগটিতে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন এক হাজার ২৩৩ জন। এরমধ্যে রয়েছেন সিলেটে ৪৭৮ জন, সুনামগঞ্জে ২২০ জন, হবিগঞ্জে ৩৫৪ জন ও মৌলভীবাজারে ১৮১ জন।

তিনি বলেন, গত ১০ মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত বিভাগটিতে হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ১ হাজার ৭৯৯ জন। এরমধ্যে রয়েছেন সিলেটে ৪০৮ জন, সুনামগঞ্জে ৩৯২ জন, হবিগঞ্জে ৫৪২ জন ও মৌলভীবাজারে ৪৫৪ জন।

তিনি আরো জানান, সিলেট শহীদ ডা. শামসুদ্দিন হাসপাতাল আইসোলেশনে রয়েছেন ২৩ বছর ও ষাটোর্ধ্ব দুই নারী ও তিন পুরুষ। এদের মধ্যে একজন ফ্রান্স, অপরজন লন্ডন প্রবাসী। অন্য তিন জনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে। নতুন দু’জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হবে। ইতোমধ্যে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আসা করোনা টেস্টের পলিমার চেইন রিঅ্যাকশন (পিসিআর) মেশিন এখনো প্রস্তুত হয়নি।

এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

স্যার, সবাই শুধু মুখোশ আর হাত ধোয়ার ঔষধ দেয়, পেটে দেয়ার কিছু দেয় না

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৮ ০৬:৪৭:৪৯

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে থেকে সারা দেশে লকডাউন করা হয়েছে। এক সাথে দু’জন চলাচল নিষিদ্ধ ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রয়োজনীয় কাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে সারাদেশে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। একই সাথে দোকানপাট বন্ধ, যানচলাচলও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
সিলেট নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায় দোকানপাট বন্ধ থাকায় জনশূন্য হয়ে পড়েছে রাস্তাঘাট। নগরীর জিন্দাবাজার, বন্দরবাজার, আম্বরখানা, মদিনা মার্কেট ঘুরে দৃশ্য দেখা যায়। তবে মাঝে মধ্যে রিক্সা চলাচল করতে চোখে পড়ে।

এক রিক্সাচালক বলেন, ‘স্যার, পেট-পিঠের তো লগটাউন (লকডাউন) হয় না। রিক্সা না চালালে খাবো কি? বাচ্চা-কাচ্চা (বউ-বাচ্চা) তো না খেয়ে মরবে। হক্কলে (সবাই) খালি (শুধু) মুখোশ (মাস্ক) আর হাতধোয়ার ঔষুধ দেয়, পেটে দেয়ার মতো খাবার তো কেউ দেয় না।
জানা যায়- সারাদেশে লকডাউন চললেও সাধারণ অসহায় ও দিনমজুরদের জন্য কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। কোন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনও খাদ্যদ্রব্য দিয়ে সহযোগিতা করেনি। এ অবস্থায় অনেকে বলছেন, দিনমজুর শ্রেণির লোকেরা করোনার আগে না খেয়েই মারা যাবে


এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এস
 

বিস্তারিত খবর

সিলেটে ৩ মাসের বাড়ি ভাড়া নেবেন না যুক্তরাজ্য প্রবাসী

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৬ ১০:৪৮:৫৯

করোনাভাইরাসের সুযোগ নিয়ে যেখানে অসাধু ব্যবসায়ীরা নিত্যপণ্যের দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন, সেখানে ৩০ টি বাড়ি ও দোকানের ভাড়া না নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলার যুক্তরাজ্য প্রবাসী ইলাশ গ্রুপের চেয়ারম্যান ইলিয়াছ আলী।

বর্তমান সময়ে করোনা ভাইরাসের কারণে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার জন্য বলা হচ্ছে প্রশাসনরে পক্ষ থেকে। কিন্তু ব্যবসা প্রতিষ্ঠন বন্ধ রেখে ব্যবসায়ী ও ভারাটিয়ারা বাড়ি ও দোকানে ভাড়া কোথায় থেকে দিবেন বিষয়টি মাথায় রেখে ওই প্রবাসী এই সংকটের সময় ভাড়াটিয়াদের কাছ থেকে বাড়ি ভাড়া ও দোকান ভারা আগমী তিন মাস না নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

অনেকেই এখন ঘর থেকে বের হতে পারছেন না। অনেকের আর্থিক সংকটও দেখা দিচ্ছে। এমন অবস্থায় আগামী এপ্রিল, মে, জুন  এই তিন মাসের ভাড়া না নেওয়ার জন্য যুক্তরাজ্যে থেকেও বাংলাদেশে প্রবাসীর দ্বায়ীত্বরদের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ইলাশ গ্রুপের ম্যানেজার সালাহ উদ্দিন।

এক বার্তায় ইলাশ গ্রুপের চেয়ারম্যান ইলিয়াছ আলী সরকারের নিদের্শনা মেনে চলা ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, বিশ্ব ব্যাপি মহামারি আকার ধারণ করা করোনা ভাইরাসের কারেন বাংলাদেশে এ পর্যন্ত ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। প্রায় ৪৪ আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সারা দেশে গন পরিবহন বন্ধু এবং দোকানপাট বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

তাই এই ক্লান্তি লগ্নে যে যার অবস্তান থেকে সরকারের পাশাপাশি করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে কাজ করার আহবান জানান তিনি।

বিস্তারিত খবর

সিলেটে করোনাভাইরাস সচেতনতায় হাতধোয়া কর্মসূচি নিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত- ২০

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৬ ০০:৫৬:৩৩

সিলেটে করোনাভাইরাস সচেতনতায় হাতধোয়া কর্মসূচি নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় দুই দফা পাল্টাপাল্টি হামলায় উভয়পক্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। বুধবার সন্ধ্যা রাতে নগরীর পশ্চিম কাজলশাহ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, বিকালে ৯ নং ওয়ার্ডের এতিম স্কুল রোডের কিছু যুবক করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে হাতধোয়া কর্মসূচি ও জীবাণুনাশক স্প্রে করে আসা-যাওয়া মানুষের মাঝে।

এসময় পশ্চিম কাজলশাহ এলাকার গিয়াস মিয়া নামের এক ব্যক্তির হাতে স্প্রে দিতে গেলে তিনি তাদেরকে গালিগালাজ করেন। বিষয়টি নিয়ে পশ্চিম কাজলশাহ এলাকার বাসিন্দা ও এতিম স্কুল এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে এক দফা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এর জেরে সন্ধ্যার পর ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পুরো এলাকা। এসময় এতিম স্কুল রোডের জুমন, শরীফ, হিমেল, নাহিদের নেতৃত্বে বেশ কিছু যুবক দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে গিয়াস মিয়ার বাসায় হামলা চালায়। ভাঙচুর করে কয়েকটি দোকান।

একপর্যায়ে দুপক্ষের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু হলে অন্তত ২০ জন আহত হন।

কোতোয়ালি থানার ওসি সেলিম মিঞা যুগান্তরকে বলেন, এ ঘটনায় আহতদের মধ্যে একজনকে ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাসায় চলে গেছেন।

তিনি জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মখলিসুর রমমান কামরান ও ৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবুল কালাম আজাদ লায়েক।

তারা দুপক্ষকে নিয়ে সমাধানের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। এখনও কোনোপক্ষই থানা অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব বলে জানান ওসি।



এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অধ্যক্ষ জুবায়ের সিদ্দীকী’র ইন্তেকাল

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৫ ০০:৪১:০৯

স্কলার্সহোম স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ, প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ, বিশিষ্ট লেখক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব. জুবায়ের সিদ্দীকী আজ (২৫ মার্চ) ভোর রাতে ঢাকা সিএমএইচ এ ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।
মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। আজ বাদ যোহর সিলেট নগরের শাহী ঈদগাহ জামে মসজিদে (ঈদগাহ ময়দানের উত্তর পাশে) জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে বলে পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, জুবায়ের সিদ্দীকী ১৯৬৭ সালে তৎকালীন পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। এবং ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হিসাবে ১৯৯৯ সালের জানুয়ারি মাসে অবসরে যান। জীবনের বাকি সময়টা বসে না থেকে তিনি শিক্ষা বিস্তারে কাজ শুরু করেন। তিনি এই মহান কাজে এতটাই ব্রতী যে, রাজধানী ঢাকা শহর ছেড়ে নিজের জেলা সিলেটে এসে মহান শিক্ষকতা পেশায় আত্মনিয়োগ করেন।

বিস্তারিত খবর

সিলেটে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা বৃদ্ধের মৃত্যু

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৪ ২৩:৫১:১৮

সিলেটে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে নিজ বাসায় মারা যান তিনি। 
গেল ১৪ মার্চ যুক্তরাজ্য থেকে ফেরেন তার ছেলে। পরদিনই ষাটোর্ধ্ব বাবার শ্বাসকষ্ট শুরু হলে, তাকে কিডনি ফাউন্ডেশনে নিয়ে যাওয়া হয়। তখন তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেন চিকিৎসক। তবে বৃদ্ধের করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা হয়নি।
স্থানীয়রা জানায়, কিডনি জটিলতায় ভুগছিলেন তিনি।
এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

সিলেটে মারা যাওয়া সেই নারী করোনায় আক্রান্ত ‍ছিলেন না: আইইডিসিআর

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৪ ০২:৫১:৪৬


সিলেটে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে মারা যাওয়া যুক্তরাজ্য ফেরত সেই নারীর শরীরে কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে জানিয়েছে সরকারের সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)।

আইইডিসিআর’র প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এ এস এম আলমগীর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল বলেন, আইইডিসিআরের পরীক্ষায় ওই নারীর শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।

নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে গত ৪ মার্চ লন্ডন থেকে দেশে ফেরেন ওই নারী। তিনি সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর এলাকার বাসিন্দা।

জ্বর, সর্দি, কাশির সঙ্গে শাসকষ্টের উপসর্গ দেখা দিয়ে গত ২০ মার্চ ওই নারীকে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। করোনাভাইরাসের মত উপসর্গ থাকায় তাকে রাখা হয় আইসোলেশনে।

দুই দিন আইসোলেশনে থাকার পর গত রবিবার ভোররাতে মারা যান ৬১ বছর বয়সী ওই নারী। সংক্রমণবিধি অনুযায়ী ওইদিনই তাকে নগরীর মানিকপীর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

মারা যাওয়া সেই নারী পরিবারের সবাইকে বাধ্যতামূলক হোমকোয়ারেন্টাইনে পাঠায় জেলা প্রশাসন।

গত বছরের শেষ দিন চীনের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইসের রোগী শনাক্ত হয়। এরপর এই ভাইরাস বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে। এখন পর্যন্ত প্রাণসংহারি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সাড়ে ১৬ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশেও প্রথম করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয়। সেদিন তিনজনের শরীরে করোনা শনাক্তের কথা জানানো হয়। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী গতকাল পর্যন্ত ৩৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন দুইজন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন পাঁচজন।

বিস্তারিত খবর

এবার সিলেটে বাড়িভাড়া মওকুফ করলেন সাংবাদিক খালেদ

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৩ ০৯:০৪:১১

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেমেছে সারাবিশ্ব। সম্প্রতি নাগরিকদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার সুবিধার্তে বাড়ির মালিকদের তিন মাসের ভাড়া না নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে উগন্ডার সরকার।

বাংলাদেশের বিভিন্ন যায়গায় কিছু মানুষ ব্যক্তি উদ্যোগে ঠিকই এগিয়ে এসেছেন। এরইমধ্যে সিলেটের তরুণ সাংবাদিক বিজয় টিভির সিলেট প্রতিনিধি খালেদুর রহমান’ তার শহরের নিজস্ব বাড়ি ও মার্কেটের বসবাসরত ভাড়াটিয়াদের মার্চ মাসের ভাড়া মওকুফ করে দিয়েছেন।

খালেদুর রহমান বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কবলে পড়ে সারা পৃথিবী এখন থমকে গেছে। এইটা থামাতে আমাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে যতটা সম্ভব কিছু করা উচিত।

তিনি আজ ফেইসবুকে এই ঘোষণা দেন। পোস্টটি হুবহু তুলে ধরা হলো…

হলি নিবাস ১২/২ বাদাম বাগিচা আম্বরখানা সিলেট। আমাদের বাসা এবং মার্কেটের আগামি এক মাসের জন্য বাসা বা দোকান ভাড়া পানি বিলসহ ইত্যাদি বিল পরিশোধ করতে হবেনা। সকল বাড়িওয়ালারা এই বিপদে মানুষের পাশে দাড়ান। এটি কঠিন সময় আল্লাহ আমাদের সবাই কে হেফাজত করুন।

সিলেটের নিজ বাড়ির ভাড়াটিয়াদের ভাড়া মওকুফ নিয়ে তিনি আরও  বলেন, ফেসবুক পোস্টটি করার পর থেকে অনেকে প্রশংসা করছেন সত্যি ভালো লাগছে। আসল কথা হচ্ছে আমি প্রথমে চাইনি নিজের একটা সামান্য কাজ প্রচার করতে। কিন্তু এটা বাস্তব যে এর আগে ঢাকা শহরে বাড়ি ভাড়া মওকুফ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েকজনের পোস্ট দেখে নিজেও অনুপ্রাণিত হই।

এবং আমি বিশ্বাস করি এটা দেখে দেশের আরও অনেক বাড়ির মালিক উদ্বু্গ্ধ হবে। তারাও এগিয়ে আসবে ভাড়াটিয়াদের পাশে।’

বিস্তারিত খবর

যেভাবে দাফন হলো আইসোলেশনে থাকা সিলেটের সেই নারীর

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২২ ১১:০০:৪০

সিলেটে বিদেশ ফেরত আইসোলেশনে মারা যাওয়া সেই নারীর দাফন সম্পন্ন হয়েছে।রোববার (২২ মার্চ)দুপুরে দিকে নগরীর মানিকপীর (র.) মাজারের গোরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়।
 
সিলেট কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) সৌমেন মৈত্র বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, এর আগে মরদেহ দাফনের জন্য সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে ড্রেজার দিয়ে ওই গোরস্থানে কবর খোঁড়া হয়। বেলা একটার দিকে মরদেহ একটি অ্যাম্বুলেন্স করে সেখানে নিয়ো যাওয়া হয়। এরপর দাফন করা হয়েছে।

সিলেট সিটি করেপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বলেন, সিসিকের তত্ত্বাবধানেই ওই নারীর দাফন করা হয়েছে। আমরা সব নিয়মাবলী মেনে এবং সর্বোচ্চ সতর্কতায় মৃত রোগীর দাফন কার্যক্রম সম্পন্ন করেছি।

তিনি বলেন, তবে বাইরের কিছু লোকজন বাধা স্বত্ত্বেও গোরস্থানে ঢুকে পড়ে।এসব বিষয়ে আসলে আমাদের সবাইকে সতর্ক হতে হবে।

এর আগে যুক্তরাজ্য ফেরত ষাটোর্ধ্ব ওই নারী ২২ মার্চ ভোররাত ৩ টার দিকে নগরীর শহীদ শামসুদ্দীন হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে মারা যান।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, গত ৪ মার্চ যুক্তরাজ্য থেকে ওই নারী দেশে ফেরেন। জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্ট হলে ২০ মার্চ তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। করোনা সন্দেহে তাকে হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়।

সূত্রমতে, ওই নারী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কিনা তা শনাক্তে শনিবার (২১ মার্চ) ঢাকা থেকে আইইডিসিআর-এর লোকজন এসে রক্ত নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এর আগেই তার মৃত্যু হয়।

ওই হাসপাতালে সৌদিফেরত এক নারী ও এক কিশোরসহ এখনও তিনজন চিকিৎসাধীন বলে জানায় হাসপাতাল সূত্র।

সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের উপ পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে শনাক্তের আগেই ওই নারীর মৃত্যু হয়। এ কারণে তিনি করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কি না- তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

বিস্তারিত খবর

সিলেটে করোনা সন্দেহে আইসোলেশনে থাকা নারীর মৃত্যু

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২২ ০২:২৫:৫০

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালের আইসোলেশনে থাকা যুক্তরাজ্য ফেরত এক নারীর (৬১) মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে সিলেট শহীদ শামসুদ্দীন হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ওই নারীর বাসা সিলেট নগরীর শামীমাবাদ আবাসিক এলাকায় বলে জানা গেছে। তবে তার মৃত্যু করোনা ভাইরাসের কারণে হয়েছে কি না তা সিলেট বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক দেব পদ রায় নিশ্চিত নন।

তিনি জানান, আইইডিসিআরের একটি টিম স্যাম্পল নিতে সিলেট আসছে। এখন আমরা বিভাগীয় কমিশনার ও মেয়রসহ শামসুদ্দীন হাসপাতালে সভায় বসেছি। আমাদের পরবর্তী করণীয় কি তা সিদ্ধান্ত নিতে।

গত ৪ মার্চ যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফিরেছিলেন ওই নারী। এরপর শুক্রবার জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে শহীদ শামসুদ্দীন হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হন তিনি।

আজ রবিবার আইইডিসিআর থেকে লোকজন এসে তার রক্ত পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহের কথা ছিল।

বিস্তারিত খবর

বর কোয়ারেন্টাইনে, নববধূ পিত্রালয়ে

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২০ ১২:৪৫:৫৮


সিলেটের কানাইঘাটে বিয়ে করে বিপাকে পড়েছেন প্রবাস ফেরত এক যুবক।  শিব্বির আহমদ নামের ওই প্রবাসী যুবকের বিয়ের অনুষ্ঠানের খবর জানতে পেরে হস্তক্ষেপ করেছে স্থানীয় প্রশাসন। বরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে যাবার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  নববিবাহিত বধূকে নিজ ঘরে আনতে পারবেন না তিনি। নববধূ পিত্রালয়ে থাকবেন। আগামী ২৫ মার্চের পর যুবকের স্বাস্থ্য পরীক্ষায় করোনাভাইরাসের আলামত পাওয়া না গেলে তখনই কেবল পাত্রীকে নিজ বাসস্থানে আনতে পারবেন।
বিদেশ ফেরত প্রবাসী শিব্বির আহমদ কানাইঘাট উপজেলার দক্ষিণ বাণীগ্রাম ইউনিয়নের নিউ বাউরভাগ পশ্চিম গ্রামের শফিকুল হকের ছেলে। এই যুবক গত ১১ মার্চ মধ্যপ্রাচ্য থেকে দেশে এসেছেন। নিয়ম অনুযায়ী যেখানে তার ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা, সেটা না করে আনন্দ-উৎসব করে বিয়ের আয়োজন করেছেন। তার বিয়ে অনুষ্ঠানের নির্ধারিত তারিখ ছিল গতকাল শুক্রবার।  এ উপলক্ষে কনের পিত্রালয়ে তথা কানাইঘাট পৌরসভার শ্রীপুর গ্রামের আজির উদ্দীনের বাড়িতে বিয়ে ও ভোজ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
বরযাত্রী দল নিয়ে কনের পিত্রালয়ে গিয়ে আয়োজন সম্পন্ন করে পাত্রীকে সাথে নিয়ে আসার কথা ছিল শিব্বিরের। বর সেজে কনের পিত্রালয়ে যাবার সকল আয়োজনও তিনি সম্পন্ন করেছিলেন।
সংবাদ পেয়ে কানাইঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ বারিউল করিম খান তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। বরকে কনের পিত্রালয়ে যেতে নিষেধ করেন এবং হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেন।
উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এমন নির্দেশের পর কনের পিত্রালয়ে বরের অনুপিস্থিতে বিয়ের আয়োজন সম্পন্ন হয় তথা বিয়ের আকদ পড়ানো হয়। ২৫ তারিখের পর মেডিকেল রিপোর্টের পরই কেবল বাকি অনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে পারবেন ওই যুবক।
প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ওই যুবক নির্দেশ না মানলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। শিব্বির হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকছে কিনা তা কঠোরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হবে।

বিস্তারিত খবর

করোনাভাইরাস: সিলেটজুড়ে কোয়ারেন্টাইনে ১২১৪ জন

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২০ ১২:৪৪:৪৮


সিলেট বিভাগে হোম কোয়ারেন্টাইনের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়ে গেছে। করোনাভাইরাস ঠেকাতে সতর্কতা হিসেবে এ বিভাগে সন্দেহভাজন এক হাজার ২১৪ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেটের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান গতকাল শুক্রবার বিকালে গণমাধ্যমকে জানান, সর্বশেষ ২৪ ঘন্টায় সিলেট বিভাগে নতুন করে ৩৩২ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তন্মধ্যে সিলেট জেলায় ১০৪ জন, সুনামগঞ্জে ৪৮ জন, মৌলভীবাজারে ১০১ জন এবং হবিগঞ্জে ৭৯ জন কোয়ারেন্টাইনে আছেন।
তিনি জানান, সিলেট বিভাগের সিলেট জেলায় ৬৮২ জন, সুনামগঞ্জ জেলায় ৯১ জন, মৌলভীবাজার জেলায় ৩১৭ জন এবং হবিগঞ্জে ১২৪ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এসব ব্যক্তিদের সিংহভাগই প্রবাসী। বাকিরা তাদের পরিবারের সদস্য।
জানা গেছে, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেটের বিভাগীয় কার্যালয় গত ১০ মার্চ থেকে কোয়ারেন্টাইনের হিসাব রাখছে। যারা বিদেশ থেকে আসছেন, তাদেরকে বাধ্যতামূলকভাবে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে। তবে বিদেশফেরত ব্যক্তিরা কোয়ারেন্টাইনে থাকছেন না বলেও অভিযোগ আছে। এরকম কয়েকজন ব্যক্তিকে ইতিমধ্যে জরিমানাও করা হয়েছে।

বিস্তারিত খবর

সম্প্রসারিত হচ্ছে ওসমানী বিমানবন্দর

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-১১ ০২:১৪:০০

সিলেটে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সম্প্রসারণ (প্রথম পর্যায়) প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

প্রকল্পটি বাস্তবায়নে মোট ব্যয় হবে দুই হাজার ১১৬ কোটি ৫১ লাখ টাকা। বেইজিং ভিত্তিক নির্মাতা সংস্থা বেইজিং আরবান কন্সট্রাকশন গ্রুপ লিমিটেড (বিইউসিজি) প্রকল্পের ঠিকাদার হিসেবে নিয়োগ পেতে যাচ্ছে। সক্ষমতা যাচাইয়ের জন্য প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয় পরিদর্শনের নিয়ম রয়েছে। তবে বর্তমানে চীনের বেইজিং করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব থাকায় দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয় পরিদর্শন না করেই কার্যাদেশ দেওয়ার সুপারিশ করেছে।

ওসামানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দেশের তৃতীয় বৃহত্তম আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। ১৯৯৮ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেট থেকে সরাসরি লন্ডনে ফ্লাইট চালুর মাধ্যমে ওসমানী বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে রূপান্তরিত করেন। গত দুই দশকে এ বিমানবন্দরের যাত্রী হ্যান্ডলিং ক্যাপাসিটি বাড়ছে। ওসমানী বিমানবন্দরকে আধুনিক সুপরিসর বিমান তথা বোয়িং-৭৭৭ ধরনের বিমান চলাচলের উপযোগী করে গড়ে তোলার জন্য রানওয়ের শক্তি বৃদ্ধিকরণ সংক্রান্ত অপর একটি প্রকল্প ইতিমধ্যে শেষ পর্যায়ে রয়েছে বলে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের একটি সারসংক্ষেপে উল্লেখ করা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, বর্ধিত যাত্রী ও কার্গো হ্যান্ডলিং চাহিদা মেটানোর জন্য প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল ভবন, কার্গো টার্মিনাল ভবন ইত্যাদিসহ অন্যান্য অবকাঠামোগত সুবিধাদি বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। ফিজিবিলিটি স্টাডিসহ প্রয়োজনীয় ড্রইং-ডিজাইন প্রণয়নের জন্য কোরিয়াভিত্তিক খ্যাতনামা আন্তর্জাতিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ইয়োশিন ইঞ্জিনিয়ারিং করপোরেশন  কোরিয়া)-হিরিম আর্কিটেকচার অ্যান্ড প্ল্যানার্স কোম্পানি লিমিটেড জেভি কে নিয়োগ করা হয়।  সম্ভাব্যতা সমীক্ষার প্রথম পর্যায়ের কাজ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অর্থাৎ ২০৩৯ সাল পর্যন্ত বিমানবন্দরের যাত্রী ও কার্গো হ্যান্ডলিং চাহিদা মেটানোর লক্ষ্যে একটি আন্তর্জাতিক প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল ভবন, কার্গো টার্মিনাল ভবন, কন্ট্রোল টাওয়ার, বোর্ডিং ব্রিজ, পার্কিং অ‌্যাপ্রোন, টেক্সিওয়ে, কারপার্ক, সংযোগ সড়কসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় অবকাঠমো নির্মাণকাজ বাস্তবায়নের সুপারিশ করা হয়। সে মোতাবেক জিওবি ও সিএএবির নিজস্ব অর্থায়নে ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত মেয়াদে বাস্তবায়নের জন্য দুই হাজার ৩০৯ কোটি ৭৯ রাখ ১৪ হাজার টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে ‘ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর  সম্প্রাসরণ (প্রথম পর্যায়) শীর্ষক প্রকল্পটি হাতে নেওয়া হয়। প্রকল্পের ডিপিপি ২০১৮ সালের ৭ নভেম্বর সরকার কর্তৃক অনুমোদিত হয়।

প্রকল্পের ঠিকাদার নিয়োগের জন্য ইতিপূর্বে ২০১৯ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি তারিখে দরপত্র আহ্বান করা হলে ৮টি প্রতিষ্ঠান দরপত্র দাখিল হয় ও সিএএবির—দরপত্রসমূহের স্থায়ী দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক মূল্যায়ন করা হয়। প্রাপ্ত দরপত্রসমূহের কোনটি দরপত্র তফসিলের সব চাহিদা পূরণ করতে না পারায় সব দরপত্র নন-রেসপন্সিভ বিবেচিত হয়। পরে ২০১৯ সালের ১৯ নভেম্বর পুনরায় দরপত্র আহ্বান করা হলে এতে মোট ১৯টি দরপত্রের মধ্যে নির্দিষ্ট সময়ে ৬টি দরপত্র পাওয়া যায়। দরপত্রগুলো ৩ সদস্য বিশিষ্ট কারিগরি সাব-কমিটি মূল্যায়ন করে ২০২০ সালের ২৫ জানুয়ারি তাদের প্রতিবেদন দাখিল করে। পরে ২৬ জানুয়ারি দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির বৈঠকে বেইজিং আরবান কন্সট্রাকশন গ্রুপ (বিইউসিজি) এবং এল অ্যান্ড টিএনডিই জেভি এর দরপত্র দুটি কারিগরিভাবে রেসপন্সিভ বিবেচিত হয় এবং বাকি ৪টি প্রতিষ্ঠানের দরপত্রগুলো নানা কারণে নন-রেসপন্সিভ হিসেবে বিবেচিত হয়।

এদিকে বিইউসিজির দরপত্র নন-রেসপন্সিভ ঘোষণা  দাবি করে একটি প্রতিষ্ঠান উচ্চ আদালতে রিট পিটিশন করে। আদালতের নির্দেশ আসা পর্যন্ত সব কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়। পরবর্তীতে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি আপিলেট ডিভিশনের ফুল বেঞ্চ স্থগিতাদেশ দেয়। সেদিনই রেসপন্সিভ দুই প্রতিষ্ঠানের আর্থিক প্রস্তাব খোলা হয়। এতে বেইজিং আরবান কন্সট্রাকশন গ্রুপ লিমিটেড দুই হাজার ১১৮ কোটি ৬৮ লাখ ৯২ হাজার ৫৭৮ টাকা এবং এল অ্যান্ড টিএনডিই জেভি দুই হাজার ৬৮৩ কোটি টাকা দর উল্লেখ করে। দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি সব বিষয় পর্যালোচনা করে বেইজিং আরবান কন্সট্রাকশন গ্রুপ লিমিটেডকে কার্যাদেশ দেওয়ার সুপারিশ করেছে। প্রস্তাবটি অনুমোদনের জন্য বুধবার সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে উপস্থাপন করা হবে।

বিস্তারিত খবর

বিশ্বের ৯৭তম ভাষা সিলেটি, কথা বলেন ১ কোটি ১৮ লাখ

 প্রকাশিত: ২০২০-০২-২৬ ০১:৫২:০৭

সারা বিশ্বে সবেচেয়ে বেশি কথা বলা হয় যেসব ভাষায় সেগুলোর শীর্ষ ১০০টির মধ্যে স্থান করে নিয়েছে বাংলাদেশের সিলেটের আঞ্চলিক ভাষা। ‘সিলেটি’ বা ‘সিলটি’ হিসেবে পরিচিত এ কথ্য ভাষাটির স্থান হয়েছে তালিকার ৯৭তম স্থানে। চিত্রের মাধ্যমে তথ্য উপস্থাপনকারী ওয়েবসাইট ভিজ্যুয়াল ক্যাপিটালিস্টের প্রকাশিত এক প্রবন্ধে এ তথ্য তুলে ধরা হয়। শনিবার প্রকাশিত ওই প্রবন্ধে বলা হয়, সর্বাধিক কথিত ১০০ ভাষার তালিকায় ১ কোটি ১৮ লাখ ভাষাভাষী নিয়ে সিলেটির অবস্থান ৯৭তম। তালিকায় স্থান পেয়েছে বাংলাদেশের আরো একটি আঞ্চলিক ভাষা, চাটগাঁইয়া পরিচয়ে চট্টগ্রাম অঞ্চলের কথ্য ভাষার স্থান এ তালিকায় ৮৮তম। চাটগাঁইয়া ভাষায় কথা বলেন ১ কোটি ৩০ লাখ লোক। দুটো ভাষারই স্থান হয়েছে ইন্দো ইউরোপিয়ান গোত্রে।

বিশ্বের জনসংখ্যার হিসেব রাখা প্রতিষ্ঠান ইথনোলগের ২২তম সংস্করণ থেকে ভাষার এ তথ্য নেওয়া হয়েছে। বিশ্বের ৭ হাজার ১১১টি ভাষা থেকে সর্বাধিক ব্যবহারকারী হিসেবে এই ১০০টি ভাষার তালিকা তৈরি করা হয়েছে। ভাষার তালিকা অনুযায়ী, বিশ্বে সবচেয়ে বেশি কথা বলা হয় ইংরেজি ভাষায়। প্রথম স্থানে থাকা এ ভাষায় কথা বলে ১১৩ কোটি মানুষ। দ্বিতীয় স্থানে মান্দারিন চাইনিজ ভাষায় কথা বলে ১১১ কোটি মানুষ। তৃতীয় স্থানে হিন্দিতে কথা বলে ৬১ কোটি মানুষ। চতুর্থ স্থানে স্প্যানিশ ভাষায় কথা বলে ৫৩ কোটি মানুষ। এ তালিকায় সপ্তম স্থানে রয়েছে বাংলা ভাষা। সারা বিশ্বে প্রায় ২৬ কোটি মানুষের মুখের ভাষা বাংলা।

সিলেটি ভাষা শুধু বাংলাদেশের সিলেট অঞ্চলেই সীমাবদ্ধ নয়। ভারতের আসাম রাজ্যের বরাক উপত্যকায় প্রচলিত ভাষা এটি। এছাড়া সিলেট সীমান্তবর্তী ভারতের মেঘালয়, ত্রিপুরা রাজ্যেও এ ভাষার চর্চা হয়। পার্শ্ববর্তী মণিপুর ও নাগাল্যান্ড রাজ্যের কিছু অংশেও সিলেটি ভাষার ব্যবহার হয়। এমনকি ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যেও সিলেটি ভাষা একেবারে ‘অপাঙক্তেয়’ নয়। বাংলাদেশ ও ভারতের বাইরে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, মধ্যপ্রাচ্যের অনেক স্থানেই প্রবাসীদের মধ্যে সিলেটি ভাষা ব্যবহারের ঝোঁক দেখা যায়। এমনকি যুক্তরাজ্যে অনেকে বাংলা ভাষা বলতে সিলেটের আঞ্চলিক ভাষাকেই বুঝে থাকেন। সিলেটি আঞ্চলিক ভাষার বদৌলতেই যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের দ্বিতীয় ভাষা হিসেবেও স্থান করে নিয়েছে বাংলা।

বাংলার একটি উপভাষা হলেও বাংলা ভাষার মূল রীতির সাথে সিলেটি ভাষার বেশ পার্থক্য দেখা যায়। বাংলা ভাষার প্রমিত রীতির ভিত্তি নদীয়া তথা পশ্চিমাঞ্চলীয়। আর সিলেটের আঞ্চলিক ভাষায় রয়েছে পূবের প্রভাব।

বিস্তারিত খবর

বিয়ানীবাজারের চারখাইয়ে হচ্ছে নতুন থানা

 প্রকাশিত: ২০২০-০২-০৮ ০২:১৮:৩০

বিয়ানীবাজার, জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট থানার অর্ন্তগত ৬/৭টি ইউনিয়ন নিয়ে চারখাই নামে নতুন থানা গঠনের প্রস্তাব নিয়ে কাজ করছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর। সম্প্রতি প্রস্তাবিত থানার জায়গা অধিগ্রহণ করার জন্য পরিদর্শন করেছেন সিলেট পুলিশের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মোহাম্মদ আবুল কালাম।

এসময় তাঁর সাথে সহকারি পুলিশ সুপার (সার্কেল) সুদীপ্ত রায়, বিয়ানীবাজার সহকারি কমিশনার (ভূমি) খুশনূর রুবাইয়াত, বিয়ানীবাজার থানার ওসি অবনী শংকর কর, জকিগঞ্জ থানার ওসি মীর নাসির ও কানাইঘাট থানার ওসি শামসুদ্দোহা, চারখাই ইউপি চেয়ারম্যান মাহমদ আলী উপস্থিত ছিলেন।

বিয়ানীবাজার উপজেলার তিন ইউনিয়ন এবং জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট উপজেলার দুইটি করে ইউনিয়ন নিয়ে প্রস্তাব করা হয়েছে চারখাই থানা।

প্রসঙ্গত, বিয়ানীবাজার উপজেলার আলীনগর ও চারখাই ইউনিয়ন বিয়ানীবাজার উপজেলা সদর থেকে সবচেয়ে দূরবর্তী হওয়ায় এক দশক পূর্বে চারখাইয়ে পুলিশ ফাড়ির স্থাপনের দাবি উঠে। স্থানীয়দের দাবির প্রেক্ষিতে চারখাই ইউনিয়ন পরিষদের কয়েকটি কক্ষ নিয়ে অস্থায়ী পুলিশ ফাড়ি স্থাপন করা হয়। স্থানীয় অধিবাসীরা ইউনিয়নের বিপরীত পাশে জকিগঞ্জ সড়কের পাশ্ববর্তী স্থানে কিছু জায়গা পুলিশ ফাড়ির জন্য চিহ্নিত করেন। পুলিশ ফাড়ির জন্য চিহ্নিত করা ভূমি চারখাই থানার জন্য অধিগ্রহণ করা যায়কি না এ সম্ভাব্যতা যাচাই করতে পরিদর্শনে আসে জেলা পুলিশের অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবুল কালাম।

বিয়ানীবাজার থানার ওসি অবনী শংকর কর বলেন, চারখাইয়ে নতুন থানা গঠনের একটি প্রস্তাবনা রয়েছে। এর আলোকে ভূমি অধিগ্রহণের সম্ভাব্যতা দেখতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ পরিদর্শনে আসেন।

বিস্তারিত খবর

সিলেটের প্রবীণ মুহাদ্দিস অধ্যাপক সিরাজুল হক-এর ইন্তেকাল, বিভিন্ন মহলের শোক

 প্রকাশিত: ২০২০-০২-০৬ ০৯:০৩:৪৫

সিলেটের প্রবীণ আলেমে দ্বীন, সিলেট সরকারী আলিয়া মাদরাসার প্রাক্তন মুহাদ্দিস ও হোস্টেল সুপার, আমার শ্রদ্ধেয় উস্তাদ, অধ্যাপক মাওলানা সিরাজুল হক ইন্তিকাল করেছেন, ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি বুধবার বাংলাদেশ সময় রাত ১০.৫০মিনিটে  তাঁর নিজ বাসভবন দরগাহ মহল্লায় ইন্তেকাল করেছেন।মৃত্যু কালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর।মরহুমের দুই  ছেলে ও তিন মেয়ে।বড় ছেলে ও মেয়ে থাকেন লন্ডনে,মেজো মেয়ে থাকেন আমেরিকায় এবং ছোট ছেলে-মেয়ে থাকেন বাংলাদেশে।এছাড়াও হজরতের অনেক ছাত্র, মুহিব্বীন ও মুতাআল্লিকীন এবং আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন।মরহুমের নামাজে জানাজা ৭ই ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বাদ জুমা দরগাহে হজরত শাহজালাল রহ: মসজিদ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে।

 ক্রমেই সিলেটবাসী অভিভাবক শূন্য হয়ে পড়েছেন।বরেণ্য আলেমরা একে একে বিদায় নিচ্ছেন।পাড়ি জমাচ্ছেন পরকালের দিকে।যারা ছিলেন আলেম গড়ার কারিগর।ছিলেন ধর্মীয় অঙ্গনের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব।তারা ছিলেন নতুন প্রজন্মের অনুসরণীয় ও সর্বজন শ্রদ্ধেয়।মাত্র কয়েক দিনের ব্যবধানে চলে গেলেন কওমি অঙ্গনের শীর্ষ আলেম,আল্লামা তফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী রহ: আর গত ৫ই ফেব্রুয়ারি সরকারী মাদরাসা অঙ্গনের অন্যতম মুহাদ্দিস মাওলানা সিরাজুল হকও চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

উল্লেখ যে,মরহুম মাওলানা সিরাজুল হক দীর্ঘদিন ধরে কিডনি ও প্যারালাইসেস সহ অনেক অসুখে ভুগছিলেন।মাওলানা সিরাজুল হক দীর্ঘকালীন সিলেট সরকারী আলিয়া মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস ছিলেন।এর পুর্বে তিনি মাদরাসা-ই আলিয়া ঢাকায় দীর্ঘদিন সুনামের সাথে শিক্ষকতাও করেছেন। তাঁর জন্মস্থান সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার আঙ্গাঁরজুর গ্রামে।

এদিকে সিলেটের প্রবীণ শিক্ষাবিদ, অধ্যাপক মাওলানা সিরাজুল হকের ইন্তেকালে শোক জানিয়েছেন টাইম টিভির সিইও এবং বাংলা পত্রিকার সম্পাদক আবু তাহের, দৈনিক কাজিরবাজার পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ সুজাত আলী, মাওলানা আবদুল মতীন ফাউন্ডেশন সিলেট এর অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ আখতার হোসাইন,সাংবাদিক এমদাদ চৌধুরী দীপু, নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইয়র্ক বাংলা ম্যাগাজিন এর সম্পাদক মাওলানা রশীদ আহমদ, ফাউন্ডেশন অফ গ্রেটার জৈন্তা নিউইয়র্ক এর সেক্রেটারি জেনারেল জামীল আনছারী,হিউম্যানিটি ক্লাবের সেক্রেটারি আলম চৌধুরী প্রমুখ।নেতৃবৃন্দ মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

বিস্তারিত খবর

সরছে ঝুলে থাকা তার আর বৈদ্যুতিক খুঁটি, দেশের প্রথম ‘স্মার্ট সিটি’ হতে যাচ্ছে সিলেট

 প্রকাশিত: ২০২০-০১-০৭ ০৯:৪৬:৪৫

বাংলাদেশের উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় শহর সিলেট সুপরিচিত চা-বাগান, পাহাড় টিলা এবং মাজারের শহর হিসেবে। প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক মানুষ বেড়াতেও যান এই শহরে।

কিন্তু হঠাৎ করেই ভিন্ন একটি বিষয় নিয়ে ব্যাপক আলোচনায় এসেছে এই শহর। ডিজিটাল স্মার্ট প্রকল্পের অধীনে সিলেটই হতে যাচ্ছে বাংলাদেশের প্রথম ঝুলে থাকা তার আর বৈদ্যুতিক খুঁটিবিহীন শহর।

ইতোমধ্যে শহরের দরগা গেইট এলাকার সড়ক থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে সব তারের জঞ্জাল ও বিদ্যুতের খুঁটি।

ফলে পুরো এলাকাটি পেয়েছে একটি ভিন্নরূপ, বলছেন শহরটির একজন অধিবাসী কানিজ ফাতেমা।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিধায়ক রায় চৌধুরী বিবিসিকে বলছেন, পাইলট প্রকল্পের অধীনে দরগা গেইট থেকে আম্বরখানা সড়ক সহ দরগা এলাকা থেকে সব বিদ্যুতের খুঁটি সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

‘পুরো এলাকা এখন দৃষ্টিনন্দন রূপ পেয়েছে। পর্যায়ক্রমে পুরো শহর থেকে তার আর খুঁটি সরিয়ে নেয়া হবে। বিদ্যুতসহ সব পরিষেবার লাইন নেয়া হবে মাটির নিচ দিয়ে। এ কার্যক্রম এখন চলমান রয়েছে’।

তিনি বলেন মাজার এলাকায় কাজ শেষ হয়েছে এবং বাকী কাজ চলছে। বিদ্যুৎ বিভাগ তাদের খুঁটি ও তার সরিয়ে মাটির নীচে প্রতিস্থাপন করছে আর সিটি কর্পোরেশন তাতে সহযোগিতা করছে বলছে জানান তিনি।

কর্তৃপক্ষ যে পরিকল্পনা নিয়েছে তাতে মাজার এলাকা, আম্বরখানা থেকে বন্দর বাজার, জিন্দাবাজার থেকে চৌহাট্রা পর্যন্ত আবার চৌহাট্রা থেকে বাগবাড়ী এবং শাহজালাল উপশহরের কয়েকটি ব্লক এ প্রকল্পের আওতায় খুঁটি ও তারমুক্ত করার কাজ চলছে।

পূর্ব দরগা গেইট থেকে শাহজালাল মাজার পর্যন্ত - পুরো মাজার এলাকা হয়ে কোর্ট পয়েন্ট পর্যন্ত সড়ক খুঁটি ও তারমুক্ত হয়ে যাবে।

বিস্তারিত খবর

সিলেট আ.লীগে নতুন কমিটি ঘোষণা

 প্রকাশিত: ২০১৯-১২-০৫ ১০:১২:৫৫


সিলেট মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে তাদের নাম ঘোষণা করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ঘোষিত কমিটির মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি হয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন মহানগরের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হয়েছেন জেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন সাবেক যুগ্ম সম্পাদক নাসির উদ্দিন খাঁন।

সম্মেলনে জেলার সভাপতি প্রার্থী ছিলেন ৭ জন, সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ছিলেন ৯ জন। অপরদিকে মহানগরে সভাপতি প্রার্থী ছিলেন ৪ জন, সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ছিলেন ১২ জন। প্রার্থীদের নাম ঘোষণার পর তাদেরকে ২০ মিনিট মধ্যে সমঝোতা করে নিজেদের মধ্যে ঐক্যমতে পৌঁছার সুযোগ দেয়া হয়।

সমঝোতা না হওয়ায় নেতৃবৃন্দ দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে সিদ্ধান্ত দেবেন তা মেনে নেবেন বলে জানান। এ সময় ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সিলেট মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের নতুন নেতৃত্বের নাম ঘোষণা করেন।

বিস্তারিত খবর

ডিজিটাল হচ্ছে সিলেট বিভাগ, অনলাইনেই সকল সেবা

 প্রকাশিত: ২০১৯-১১-২০ ০১:১৮:৪৫

ডিজিটালাইজড হচ্ছে সিলেট বিভাগ। নাগরিক দুর্ভোগ হ্রাস ও সেবাপ্রাপ্তিকে সহজ করতে সিলেটকে ‘ডিজিটাল বিভাগ’ হিসেবে গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ‘মুজিব বর্ষ’কে সামনে রেখে আগামী বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে এ বিভাগ ‘ডিজিটাল’ হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিস্টরা।

মঙ্গলবার দুপুরে ‘ডিজিটাল সিলেট বিভাগের কার্যক্রম ও অগ্রগতি’ নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব তথ্য জানান সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান। বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের হলরুমে এ মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার তাহমিদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সিলেটকে ডিজিটাল বিভাগ করতে কয়েকটি ধাপে কাজ চলছে। এর মধ্যে রয়েছে সুশাসন সংক্রান্ত ডিজিটাল সেবা, আমার গ্রাম আমার শহর সংক্রান্ত ডিজিটাল সেবা, তরুণদের কর্মসংস্থান সংক্রান্ত ডিজিটাল সেবা প্রভৃতি।

সুশাসন সংক্রান্ত
সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার জানান, চলতি বছরের জুলাই থেকে সিলেট বিভাগের চারটি জেলার ই-ফাইলিংয়ের ক্ষেত্রে বেশ অগ্রগতি হয়েছে। এক্ষেত্রে সিলেটের চারটি জেলা দেশের শীর্ষ ৬টি জেলার মধ্যে অবস্থান করছে। গেল জুলাইয়ে সিলেট ছিল ১৬তম স্থানে, এখন ৬ষ্ঠ স্থানে। সুনামগঞ্জ ১৭তম স্থানে ছিল গেল জুলাইয়ে, এখন ২য় স্থানে। হবিগঞ্জ ছিল ৩য় স্থানে, এখন যৌথভাবে ১ম স্থানে। মৌলভীবাজার ছিল ১৩তম স্থানে, এখন যৌথভাবে ১ম স্থানে আছে।

মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গেল ১ সেপ্টেম্বর থেকে সিলেট বিভাগের ৪০টি উপজেলায় শতভাগ ই-মিউটেশন (অনলাইনে ভূমির নামজারি, www.land.gov.bd) চালু করা হয়েছে। এছাড়া বিভাগীয় কমিশনারের সাথে মাঠ পর্যায়ের সকল কর্মকর্তাদের যোগাযোগের জন্য ‘বার্তা’ (barta.gov.bd) নামের অ্যাপস চালু করা হচ্ছে। এই অ্যাপস-এর মাধ্যমে বিভাগীয় কমিশনার সকল জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কিংবা সহকারী কমিশনারদের (ভূমি) একসাথে যেকোনো তথ্য প্রেরণ বা নির্দেশনা দিতে পারবেন। অন্যদিকে মাঠ পর্যায় যেকোনো জরুরি তথ্য, ছবি, ভয়েস রেকর্ড তাৎক্ষণিকভাবে বিভাগীয় কমিশনারের কাছে পাঠানো যাবে। এটি আগামী ৩০ নভেম্বর থেকে চালু হতে পারে।

‘আমার গ্রাম আমার শহর’ সংক্রান্ত
মতবিনিময় সভায় সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সিলেট বিভাগে যেকোনো নাগরিক ৩৩৩ কল সেন্টারে ফোন করে এখন ৫০টির মতো সেবার আবেদন দাখিল করতে পারবেন। এর সেবাসমূহের মধ্যে আছে- ‘একসেবা’ (eksheba.gov.bd) প্ল্যাটফর্ম থেকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের বিভিন্ন সেবা প্রাপ্তির আবেদন দাখিল, খতিয়ান/পর্চার আবেদন দাখিল, নগদ কৃষি (ছাদ কৃষি)’র অনলাইন ব্যবস্থাপনা, তথ্য অধিকার আইনের আওতায় সরকারি অফিস থেকে বিভিন্ন তথ্য ও সেবা প্রাপ্তির আবেদন দাখিল ও দক্ষতা উন্নয়নে প্রশিক্ষণ প্রাপ্তির লক্ষ্যে বেকার নিবন্ধন প্রভৃতি।

তিনি জানান, ৩৩৩ এর মাধ্যমে সরকারি সেবা প্রাপ্তির পদ্ধতির বিস্তারিত তথ্য, পর্যটন কেন্দ্রসমূহের তথ্য, সামাজিক সমস্যা (বাল্যবিবাহ, খাদ্যে ভেজাল, ভোক্তা অধিকার, মাদক, জুয়া, ইভটিজিং, পরিবেশ দূষণ, সরকারি সম্পত্তির ক্ষয়সাধন, পরীক্ষায় অতিরিক্ত ফি আদায়) প্রতিকারে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিতকরণ, ইসলামিক মাসআলা-মাসায়েল জানান, নিরাপদ অভিবাসন (বিদেশে গমন) সংক্রান্ত তথ্য ও অভিবাসনে প্রতারণার স্বীকার হলে অভিযোগ দাখিল, ই-টিন সংক্রান্ত তথ্য, রেলসেবা সংক্রান্ত তথ্য ও অভিযোগ দাখিল প্রভৃতি সেবা পাওয়া যাবে।

বিভাগীয় কমিশনার জানান, সিলেট বিভাগের সকল জেলায় ডিজিটাল রেকর্ড রুম পদ্ধতি বাস্তবায়নের মাধ্যমে সকল জমির পর্চা ইলেকট্রনিক উপায়ে এবং ইউডিসির মাধ্যমে প্রদানের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ৩৩৩ এর মাধ্যমে যেকোনো নাগরিক পর্চার আবেদন দাখিল করতে পারবেন।

মতবিনিময় সভায় জানানো হয়, সমাজকল্যাণ অধিদপ্তর-এর মাধ্যমে প্রদানকৃত সামাজিক নিরাপত্তা বলয়ের ভাতা ও মুক্তিযোদ্ধা ভাতা আগামী ডিসেম্বর থেকে সিলেট বিভাগে ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রদানের পরিকল্পনা করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ভাতা গ্রহীতাদের মধ্যে ৭০ ভাগের তথ্য ডিজিটালাইজ করা হয়েছে।

সিলেট বিভাগে কৃষকদের ডাটাবেজ তৈরির কার্যক্রমও শুরু হয়েছে বলে জানানো হয়। ইতিমধ্যে মৌলভীবাজার জেলার সকল কৃষকের ডাটাবেজ তৈরি হয়েছে। বাকি তিনটি জেলার আংশিক ডাটাবেজ তৈরির কার্যক্রম চলমান। ডাটাবেজ হয়ে গেলে বিভিন্ন ধরনের কৃষি সেবা কৃষকদের ফোনের মাধ্যমে প্রদান করা সম্ভব হবে। কৃষক ৩৩৩১ নম্বরে ফোন করে তার এলাকার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তার সাথে কথা বলে কৃষি সহায়তা নিতে পারবেন। পরীক্ষামূলকভাবে এ প্রক্রিয়া শুরু করে সফলতাও মিলেছে।

বর্তমানে ডিজিটাল পদ্ধতিতে ছাদকৃষি সংক্রান্ত সেবা দেওয়া হচ্ছে। সিলেট বিভাগের যেকোনো নাগরিক ৩৩৩ নম্বরে ফোন করে ছাদকৃষি সংক্রান্ত সকল সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। এছাড়া এটুআই-এর উদ্যোগে ছাদকৃষি সংক্রান্ত একটি অ্যাপসও তৈরি করা হয়েছে। সিলেট বিভাগের সকল সরকারি দপ্তরের ছাদে ছাদকৃষি তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলেও জানানো হয় মতবিনিময় সভায়।

তরুণদের কর্মসংস্থান সংক্রান্ত
সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই)-এর মাধ্যমে উদ্ভাবিত স্কিলস পোর্টালের মাধ্যমে (skills.gov.bd) বেকার যুবকদের রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ডাটাবেজ তৈরি করা হচ্ছে। প্রশিক্ষণ প্রদানকারী সকল প্রতিষ্ঠান সমূহের সমন্বয়ে পর্যায়ক্রমে রেজিস্ট্রেশনকৃত যুবকদের বিভিন্ন ট্রেডে পর্যায়ক্রমে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে।

তিনি আরো জানান, সিলেট বিভাগের শিল্পকারখানার চাহিদা নিরূপণ করা ও চাহিদা মোতাবেক বেকার যুবকদের দক্ষতা তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

বিস্তারিত খবর

২ ঘন্টা লাইনে দাড়িয়ে এক কেজি পেঁয়াজ কিনলেন সিলেটের মেয়র

 প্রকাশিত: ২০১৯-১১-১৮ ০৯:০২:৫০

প্রায় দুই ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে এক কেজি পেঁয়াজ কিনেছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। সোমবার বেলা পৌনে ২টার দিকে তিনি ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) একটি ট্রাক থেকে ৪৫ টাকা দরে এক কেজি পেঁয়াজ কেনেন।

এর আগে বেলা ১২টায় নগরের ক্বিনব্রিজের নিচে ট্রাকসেলের লাইনে দাঁড়ান মেয়র আরিফ। এসময় মেয়রকে দেখে অনেকটাই অবাক হন সাধারণ ক্রেতারা। মেয়র লাইনে দাঁড়ানোর পর সিসিকের কয়েকজন কাউন্সিলরও লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ সংগ্রহ করেছেন।

এ বিষয়ে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, ‘বর্তমানে দেশে পেঁয়াজের দাম সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে, আমার নিজেরও ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। পেঁয়াজের জন্য মানুষ অস্থির। আমার ঘরেও নেই পেঁয়াজ। ৪৫ টাকায় টিসিবি পেঁয়াজ বিক্রি করছে খবর পেয়েই এখানে আসি। এখন জনসাধারণের সাথে আমিও পেঁয়াজ কিনতে লাইনে দাঁড়িয়েছি।’

উল্লেখ্য, সোমবার সকাল থেকে নগরীর রিকাবীবাজারস্থ কাজি নজরুল ইসলাম অডিটরিয়ামের সামনে ক্বীনব্রিজ মোড়ে ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি করেছে টিসিবি। আদালতের নির্দেশনা অনুসারে র‌্যাবের অভিযানে আটক ভারত থেকে অবৈধপথে আসা ৭ টন পেঁয়াজ সেখানে বিক্রি করা হয়

বিস্তারিত খবর

দেশজুড়ে আবার আলোচিত হলো সিলেটিদের আতিথেয়তা

 প্রকাশিত: ২০১৯-১০-২৮ ০১:৫৩:৪২

সিলেটীরা অতিথিপরায়ন হিসেবে পরিচিত। এবারও আতিথেয়তা দিয়ে ২ লক্ষাধিক মানুষের মন জয় করেছে সিলেট বাসী। গত শনিবার শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০২০ সেশনের স্নাতক (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ৭১ হাজারেরও অধিক পরীক্ষার্থী ভর্তিযুদ্ধে অংশ নেন। তাদের সাথে আরো প্রায় দেড় লক্ষাধিক অভিভাবক ও আত্মীয়স্বজন আসেন সিলেটে। সব মিলিয়ে নগরে প্রায় ২ লাখের বেশী মানুষের সমাগম হয় সিলেটে। তবুও পরীক্ষার্থীদের কোন সমস্যা হয়নি।

সিলেটবাসী এতোই অতিথিপরায়ন যে- পরীক্ষার আগ মুহুর্তে ফ্রি মোটরসাইকেল সার্ভিস চালু করে। সামাজিক বিভিন্ন সংগঠনের প্রায় ৩ শতাধিকেরও বেশী মোটরসাইকেল ছিলো। পরীক্ষার্থীদের সময়মতো কেন্দ্রে পৌছে দিতে তারা বিনা ভাড়ায় সার্ভিস দেন একেক টা পয়েন্ট থেকে ১/২ জন করে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় গেইটে নামিয়ে দিয়ে আবার ফিরে আসে বাইকাররা নিজ দায়িত্বরত পয়েন্টে, এভাবেই চলে সারা দিন। এছাড়াও সিলেটের বিভিন্ন কলেজ থেকে বাস বরাদ্দ দেওয়া হয়। এমসি কলেজ, সিলেট সরকারি কলেজ, বাস মালিক সমিতি,সেচ্ছাসেবি সংগঠথ থেকে ফ্রি বাস সার্ভিস চালু করা হয় যা ছিল চোখে পড়ার মত। এডমিট কার্ড দেখিয়ে পরীক্ষার্থীরা বাস ব্যবহার করেন।

সিলেটের শীর্ষ ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি ২০টি বাস চালু করে। বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের গন্তব্যে পৌঁছে দিতে বাসগুলো ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও ‘সিলেট বাইকিং কমিউনিটি’, সেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন বুষ্টার সহ বেশ কয়েকটি সামাজিক সংগঠন ফ্রি মোটরসাইকেল সার্ভিস দেয়। সব মিলিয়ে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মাঝে ভুগান্তি নামক হতাশা দেখা যায়নি। প্রত্যেক পরীক্ষার্থীই নির্দিষ্ট সময়ের আগেই পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌছে যান।

সিলেটবাসীর পরম আতিথেয়তায় মুগ্ধ হয়ে রাজধানীর খিলগাঁও থেকে আসা পরীক্ষার্থী তানিয়া জাহান শিমু বলেন – সিলেটে এই প্রথম আসছি। কিন্তু সিলেটবাসী যে এতো আন্তরিক তা জানা ছিলনা। দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছি। বিভিন্ন জায়গা ঘুরে বেড়িয়েছি। কিন্তু সিলেটের মতো পরম মমতার চাদর কেউ দিতে পারেনি।

খুলনা বিভাগের ফুলতলা উপজেলা থেকে আসা পরীক্ষার্থী আদনান হোসেন হৃদয় বলেন- সিলেটের মানুষ সত্যিই অতিথিপরায়ন। এ এলাকার মানুষ যে এতো আন্তরিক তা সিলেটে না আসলে জানতাম না। শাবিতে যদি চাঞ্চ পেয়ে যাই, তাহলে সিলেটে থেকে লেখাপড়া শেষে চাকরিও করবো।

বরিশাল থেকে আসা এক পরীক্ষার্থীর অভিভাবক প্রফুল্ল দাস বলেন, সিলেটের মানুষ শান্তিপ্রিয়। আগে শুধু শুনেছি আর এখন নিজ চোখে দেখলাম। সত্যিই খুব ভালো লেগেছে। মোটরসাইকেল, বাস সার্ভিস যানবাহনের সব রকমের সুবিধা ছিল প্রশংসা করার মতো। এছাড়া শহরের ট্রাফিক বাবস্থা ছিল চোখে পড়ার মত। পরীক্ষার্থীদের বহন করা গাড়ি দেখলেই পথ ছেড়ে দাঁড়ায় অন্যান্য যান বাহন।

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত