যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭ ইং

|   ঢাকা - 04:47am

|   লন্ডন - 10:47pm

|   নিউইয়র্ক - 05:47pm

  সর্বশেষ :

  ধর্ম অবমাননা নিয়ে রংপুরে সহিংসতা, আদালতে টিটু রায়ের স্বীকারোক্তি   টিকাতেই নিরাময় হবে ক্যান্সার   মিয়ানমারে রোহিঙ্গারা ‘জাতিগত বৈষম্যের’ শিকার : অ্যামনেস্টি   ঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র জালিয়াতি, আটক ৮   নাইজেরিয়ায় মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৫০   রোহিঙ্গাদের ফেরাতে চলতি সপ্তাহে সমঝোতার আশা সু চি’র   জানুয়ারি থেকে সব বাহিনীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিশেষ ভাতা: প্রধানমন্ত্রী   আমেরিকান মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসে সেরা হলেন যারা   পদত্যাগ নয়, জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন মুগাবে   কেন সৌদি আরব এমন করছে?   মরক্কোয় ত্রাণ নেওয়ার সময় পদদলিত হয়ে নিহত ১৫   ৭ মার্চকে ঐতিহাসিক দিবস ঘোষণা চেয়ে হাইকোর্টে রিট   শাহজালালের মাজারের কুপের পানিকে জমজমের পানি বলে প্রতারণা : তদন্তের নির্দেশ আদালতের   এলপিজি আমদানির জাহাজ কিনলো বেক্সিমকো পেট্রোলিয়াম   রোহঙ্গিা সঙ্কট নিরসনে চীনের ৩ ধাপের প্রস্তাব

>>  সিলেট এর সকল সংবাদ

শাহজালালের মাজারের কুপের পানিকে জমজমের পানি বলে প্রতারণা : তদন্তের নির্দেশ আদালতের

সিলেটে হযরত শাহজালাল (রহ.) এর মাজারে ডিপ টিবওয়েলের পানিকে পবিত্র মক্কার জমজম কূপে’র পানি বলে বিক্রির মাধ্যমে মানুষের ধর্মীয় বিশ্বাস ও আবেগকে পুঁজি করে ফায়দা লুটছে একটি মহল।

১৯ নভেম্বর রোববার এ প্রতারণার বিরুদ্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের প্রত্যাশায় সিলেটের মূখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরোর আদালতে একটি আবেদন করেন।

নগরীর কদমতলীর দরিয়া শাহ মাজার রোডের এইচ এম আব্দুর রহমানের করা আবেদন আমলে নিয়ে আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মূখ্য মহানগর হাকিম আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট মাহফুজুর

বিস্তারিত খবর

পুত্রসহ শিল্পপতি রাগীব আলী জামিনে মুক্ত

 প্রকাশিত: ২০১৭-১০-২৯ ১৩:০২:৪৩

সিলেটের তারাপুর চা-বাগানের ভূমি আত্মসাতে ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক (চিঠি) জালিয়াতি মামলায় দণ্ডিত আলোচিত শিল্পপতি রাগীব আলী ও তাঁর ছেলে আবদুল হাই সিলেট কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন। রোববার দুপুরে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তি পান তাঁরা।
এর আগে, গত বৃহস্পতিবার তাদের জামিনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিল উচ্চ আদালতে খারিজ হওয়ায় জামিন আদেশ বহাল থাকে।
গত বৃহস্পতিবার সকালে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি আবদুল  ওয়াহহাব মিয়ার নেতৃত্বাধীন বিচারপতি ইমান আলী, বিচাপতি সৈয়দ মাহমুদ হাসান ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর বেঞ্চ রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিল খারিজের আদেশ দেন।
রাগীব আলীর পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস, ব্যারিস্টার মেহেদী হাসান, সাবেক বিচারপতি মনসুরুল হক চৌধুরী, ব্যারিস্টার ইয়াদাজামান, অ্যাডভোকেট আসাদ উল্লাহ ও ব্যারিস্টার আবদুল হালিম কাফি। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল দিলুরুজ্জামান।
গত ২ ফেব্রুয়ারি সিলেটের তারাপুর চা-বাগান ইজারার ক্ষেত্রে ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতির বিষয়ে দায়ের করা মামলায় বিতর্কিত ব্যবসায়ী রাগীব আলী ও তাঁর ছেলে আবদুল হাইকে ১৪ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত।
আসামিদের বিরুদ্ধে সন্দেহাতীতভাবে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সিলেটের মুখ্য মহানগর বিচারিক হাকিম মো. সাইফুজ্জামান হিরো ৪৬৬ ধারায় রাগীব আলী ও তাঁর ছেলেকে ছয় বছরের সশ্রম কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের কারাদণ্ড এবং ৪৬৮ ধারায় সমপরিমাণ সাজা দেন।
এ ছাড়া ৪২০ ও ৪৭১ ধারায় এক বছর করে দুই বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয় তাদের। পৃথক চারটি ধারায় রাগীব আলী ও তাঁর ছেলে আবদুল হাইকে মোট ১৪ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।
ওই রায়ের বিরুদ্ধে ১৬ ফেব্রুয়ারি দণ্ডপ্রাপ্তরা মহানগর দায়রা জজ আদালতে আপিল করেন। আপিলে তাঁরা জামিন চাইলে ২৪ মে সিলেটের বিশেষ দায়রা জজ আদালতে তা নামঞ্জুর করে দেন। এ আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে জামিন চেয়ে তাঁরা আবেদন করেন।

এলএবাংলাটাইমস/স/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিলেট কীভাবে বাংলাদেশের অংশ হলো

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৮-১৯ ০২:৫৬:৩৭

১৯৪৭ সালে ভারতবর্ষ ভাগ করে পাকিস্তান ও ভারত নামে দুটি স্বাধীন রাষ্ট্র গঠনের সিদ্ধান্ত হলেও প্রশ্ন ওঠে আসামের অংশ সিলেটের ভাগ্যে কী হবে?

মুসলমান আর হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে ভারতকে ভাগ করার যে দায়িত্ব পড়েছিল লর্ড মাউন্টব্যাটেনের ওপর।

১৯৪৭ সালের ৩ জুন এক ঘোষণায় তিনি সিলেটের ভবিষ্যৎ নির্ধারনের দায়িত্ব দেন স্থানীয় জনসাধারণের কাঁধে। সিদ্ধান্ত হলো গণভোট অনুষ্ঠানের।

এ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১৯৪৭ সালের ৬ ও ৭ জুলাই সিলেটে গণভোট অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে মোট ভোটার ছিল ৫ লাখ ৪৬ হাজার ৮১৫ জন। ভোট দিয়েছিল ৭৭ শতাংশ মানুষ।

২৩৯টি ভোটকেন্দ্রে বড় কোনো ঝামেলা ছাড়াই শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছিল বলেই জানা যায়। ১৯৪৭ সালের ভারত স্বাধীনতা আইনের ধারা ৩ অনুযায়ী সিলেটে গণভোট সংক্রান্ত কার্যক্রমের বৈধতা দেয়া হয়েছে।

দেশভাগের সময় ৫ম শ্রেণীর ছাত্র জকিগঞ্জের মোহাম্মদ নূরউদ্দীনের মনে রয়েছে সেই ভোটের কথা। মোহাম্মদ নূরউদ্দীন তৃতীয় শ্রেণী পর্যন্ত পড়েছিলেন করিমগঞ্জের প্রাথমিক স্কুলে।

ভোটে করিমগঞ্জের মানুষও আসাম ছাড়ার রায় দিলেও করিমগঞ্জের কিছু অংশ র‍্যাডক্লিফ লাইনে ভারতের আসামে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

‘আমরা বাইরাইয়া মিছিল দিছি করিমগঞ্জে। মসজিদ যেখানে ছিল সেখানে স্লোগান নাই। এইভাবে করছি। ভোটে আমরা করিমগঞ্জকেও পাইছি। এই যে সাড়ে তিন থানা গেল সবটা পাইছি। কিন্তু আমাদের নেতাদের অভাবেই কংগ্রেস বড়লাটের লগে মিল করিয়া নিয়া গেছে।’

কুশিয়ারা নদীর তীরে দাঁড়িয়ে নূরউদ্দীন বলেন, তার নানা বাড়ি, ভগ্নীপতিসহ অনেক আত্মীয়ের বাড়ি পড়ে যায় করিমগঞ্জে আর তারা থাকেন পূর্ব বাংলায় বর্তমান জকিগঞ্জ এলাকায়।

‘আত্মীয়স্বজন সবাই থাইকা গেছে। ইন্ডিয়ায় থাকছে। এখনো আছে। আমরার যাওয়া আসা নাই। তারাও আসে না।’

সিলেটের গণভোট দেখেছেন মাহতাবউদ্দীন আহমেদও। মনে করে বলেন সেই কিশোর বয়সে বড়দের সঙ্গে পাকিস্তানের পক্ষে কী স্লোগান দিতেন তারা।

‘মুসলিম লীগের মার্কা কী- কুড়াল ছাড়া কী, পাকিস্তান জিন্দাবাদ-লড়কে লেঙ্গে পাকিস্তান, কায়দে আজম জিন্দাবাদ এইগুলা স্লোগান ছিল।’

মাহতাবউদ্দীন জানান ভোটের প্রচারে সিলেটে মুসলিম লীগের বড় নেতারা এসেছেন। তার মনে আছে সিলেটের শাহী ইদগায়ে মোহাম্মাদ আলি জিন্নাহও এসেছিলেন।

দাবি করলেন, গণভোটের প্রচারে এসে করিমগঞ্জে তাদের বাড়িতে একবেলা খেয়েছিলেন তৎকালীন তরুণ ছাত্রনেতা শেখ মুজিবুর রহমান এবং ১২ জন কর্মী।

‘কংগ্রেসের মার্কা ছিল ঘর আর মুসলিম লীগের ছিল কুড়াল। হিন্দুদের মধ্যে নমশূদ্ররা ছিল মুসলিম লীগের পক্ষে। আলেমদের একদল ছিল কংগ্রেসি। হুসেইন আহমেদ মাদানি উনি আর ওনার একটা গ্রুপ ছিল কংগ্রেসি।’

দেশভাগের ইতিহাসে সিলেটের গণভোট এক বিরল ঘটনা। এই ভোটে জয়ী হতে মুসলিম লীগের ব্যাপক প্রচার প্রচারণা চালায়। সিলেটের জনগণকে পাকিস্তানের পক্ষে ভোট দিতে নানাভাবে উদ্বুদ্ধ করেছিল মুসলিম লীগ।

পাকিস্তানের পক্ষে ভোট দেয়া ফরজ ঘোষণা করে ফতোয়াও জারি করা হয়। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বইয়ে উল্লেখ রয়েছে গণভোটের জন্য শেখ মুজিবুর রহমান ৫০০ কর্মী নিয়ে কলকাতা থেকে সিলেট এসেছিলেন।

শেখ মুজিব লিখেছেন, শহীদ সোহরাওয়ার্দীর অনুরোধে হিন্দু রায়বাহাদুর আরপি সাহা একাধিক লঞ্চ সিলেটে পাঠিয়েছিলেন মুসলিম লীগের পক্ষে। সিলেটে গণভোটে জয়লাভ করে তারা আবার কলকাতা ফিরে যান।

শিক্ষাবিদ ও সিলেটের কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সভাপতি অধ্যাপক মো. আব্দুল আজিজ তখন ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র।

তিনি বলেন, ‘মুসলমানদের জন্য গণভোট পরিচালনার জন্য একটা রেফারেন্ডাম বোর্ড হয়। সেই বোর্ডের সভাপতি হলেন আব্দুল মতিন চৌধুরী নামে একজন প্রবীণ নেতা। যিনি এককালে জিন্নাহ সাহেবের খুব ঘনিষ্টজন ছিলেন। আর সেক্রেটারি হয়েছিলেন অ্যাডভোকেট আব্দুল হাফিজ যিনি বর্তমান অর্থমন্ত্রী মুহিত সাহেবের বাবা।’

তার কথায় সিলেটে ৬০ ভাগ মুসলিম থাকা সত্ত্বেও মুসলমানদের একটি অংশ কংগ্রেসপন্থী হওয়ায় ভোটের প্রচার প্রচারণার প্রয়োজন হয়।

‘পাকিস্তানের পক্ষে পড়ল ২ লাখ ৩৯ হাজার ৬১৯ ভোট আর ভারতে যোগদানের পক্ষে পড়ল ১ লাখ ৮৪ হাজার ৪১ ভোট। মুসলিম লীগ ৫৫ হাজার ৫৭৮ ভোট বেশি। এজন্য সিলেটিরা গর্ব অনুভব করতো যে আমরা বাই চয়েস পাকিস্তানে আসছি।’

১৯৪৭-এ সিলেটের ঐতিহাসিক গণভোটেই ঠিক হয় পূর্ব পাকিস্তানের একাংশের মানচিত্র। কিন্তু গণভোটের রায় না মেনে মানচিত্রে দাগ কেটে করিমগঞ্জের কিছু অংশ ভারতকে দিয়ে দেয়ায় সিলেটের মানুষের কাছেও চির বিতর্কিত হয়ে যায় র‍্যাডক্লিফ লাইন।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

পুলিশের উপর হামলাকারী ছাত্রলীগ কর্মীদের হন্যে হয়ে খুঁজছে পুলিশ

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৮-১৭ ০৮:২৫:১০

রিকাবীবাজারে পুলিশ সদস্য শফি আহমদের উপর হামলার ঘটনায় সিলেট কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে আসামীদের পরিচয় নিশ্চিত হয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করতে হন্যে হয়ে খুঁজছে পুলিশ।
সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার এই মামলা দায়ের করা হয়। দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় পুলিশকে পিটিয়ে আহত করার অপরাধে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক দফতর সম্পাদক তানভীর কবির চৌধুরী সুমনকে প্রধান আসামী করে মামলাটি দায়ের করে পুলিশ। মামলা নং-২০। এতে আরও ৭ থেকে ৮ জন অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়।
সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) মো. জেদান আল মূসা মামলা দায়েরের বিষয় নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থলের সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ দেখে আসামীদের চিহ্নিত করা  হয়েছে। তাদের গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে ।
হমালায় আহত পুলিশ সদস্য শফি আহমদ জানান, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে রিকাবীবাজারের নূরী রেস্টুরেন্টে নাস্তা করতে যান তিনি। বিল দেওয়ার সময় কাউন্টারের সামনে ম্যানেজারের সাথে তানভীর কবির চৌধুরী সুমন ও তার সহযোগিদের কথা কাটাকাটির ঘটনা দেখতে পান। ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা এ সময় ম্যানেজারকে বলে শোক দিবসের কর্মসূচী পালন করে নাস্তা করতে এসেছে তাই তারা বিল দেবে না। এ নিয়ে ম্যানেজারের সাথে তাদের কথাকাটাকাটি হয়। শফি আহমদ ঝগড়া না করে তার বিল রাখার জন্য বললে আচমকা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তার উপর হামলা চালায়। এ সময় তাকে উপর্যুপরি চড় থাপ্পড় মারতে থাকে। নিজেকে পুলিশ সদস্য পরিচয় দিলেও তিনি রেহাই পাননি বলে জানান। পরে তাকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের দফতর সম্পাদক তানভীর কবির চৌধুরী সুমনের ব্যক্তিগত মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

জাহানারা তৈমুছ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট, লস এঞ্জেলেস, ইউএসএ-এর অর্থায়নে ফ্রি খতনা ক্যাম্প

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৫-০২ ১৬:৪৩:৪২

জাহানার তৈমুছ ও‌য়েল‌ফেয়ার ট্রা‌স্ট, লস এ‌ঞ্জে‌লেস, ইউএসএ-এর  অর্থায়‌নে ফ্রি খতনা ক্যাম্প অনু‌ষ্ঠিত হ‌য়ে‌ছে। গত সোমবার সি‌লে‌টের দ‌ক্ষিণ সুরমায় জালালাবাদ দ্বি-পা‌ক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ে দিনব্যাপী এই আয়োজ‌নে প্রায় ১০০ জন দরিদ্র শিশু‌কে খতনা দেওয়া হয়। ক্যাম্পে সা‌র্বিক সহ‌যো‌গিতা ক‌রে  স্থানীয় যুবকদের  সামা‌জিক সংগঠন অরু‌ণোদয় যুব সংঘ।
এ উপল‌ক্ষে বিদ্যাল‌য়ের কনফারেন্স হলে আ‌য়ো‌জিত অনুষ্ঠা‌নে প্রধান অ‌তি‌থি ছি‌লেন বাংলা‌দেশ আওয়ামী লী‌গের কেন্দ্রীয় সাংগঠ‌নিক সম্পাদক ও সি‌লেট জজ কো‌র্টের ‌পি‌পি অ্যাড‌ভোকেট মিসবাহ উ‌দ্দিন সিরাজ। বি‌শেষ অ‌তি‌থি ছি‌লেন সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সেক্রেটারি, দৈনিক নয়া দিগন্ত’র সিলেট ব্যুারো চিফ আফতাব উদ্দিন, দ‌ক্ষিণ সুরমা থানার অফিসার ইনচার্জ হারুন অর রশীদ, স্থানীয় মোল্লারগাঁও ইউ‌পির চেয়ারম্যন আলহাজ্ব শেখ মকন মিয়া, জাহানারা তৈমুছ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান লস এঞ্জেলেস প্রবাসী মোঃ আব্দুস সামাদ, সি‌লেট জজ কো‌র্টের এ‌পি‌পি মোস্তফা শাহীন চৌধুরী, অ্যাডভোকেট মি‌সেস ফার‌মিস ও আয়কর উপ‌দেষ্টা অ্যাড‌ভো‌কেট শা‌হিনুল ইসলাম।



অরু‌ণোদয় যুব সংঘ’র সভাপতি কিবরিয়া খান নাসেরের সভাপতিত্বে ও সহ-সভাপতি মোঃ আব্দুল মুমিত খান ছামিলের পরিচালনায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ-সভাপতি মোঃ শফিউল ইসলাম। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, রাগিব-রাবেয়া ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল ওয়াহিদ সারো, সিলেট জজ কোর্টের এপিপি আব্দুর রহমান সেলিম, এলাকার বিশিষ্ট মুরব্বি জালালাবাদ দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ তজম্মুল ইসলাম, শামীম আহমদ, সাইস্তা খান, একরাম খান, সাখাওয়াত খান, গ্রামের মুরব্বি ছয়ফুল খান, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মিছবাহ আহমদ, তছলিম খান, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সৈয়দ মাছুম, সংগঠনের অর্থ সম্পাদক সুজাদ খান, শাওন, ছায়েফ, হাদি, সাফি, বরাত, ছালেখ, রাহাত, আলমগীর, ফুয়াদ, ছায়েম, সানুর, আব্দুর রহিম, মঞ্জুর, সালমান, রুম্মান, রকিব, হোসাইন, সাকিব, হাবিব, পারভেজ, মিজান, জুনায়েল, এনাম খান, নাইম, সিরাজুল মুবিন প্রমুখ।  

এছাড়াও এলাকার গণ্যমান্য ব্য‌ক্তিবর্গ, সি‌লে‌টে কর্মরত প্রিন্ট ও ই‌লেক্ট্র‌নিক্স মি‌ডিয়ার সাংবা‌দিকরা উপ‌স্থিত ছি‌লেন। অনুষ্ঠান শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন সংগঠনের সদস্য আব্বাস আলী খান।



প্রধান অতিথির বক্তব্যে অ্যাডভোকেট মিছবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেছেন, ভালো কাজের মানুষকে মূল্যায়ন করতে হবে। আব্দুস সামাদের মত সুযোগ্য মায়ের সুযোগ্য সন্তান যেভাবে তরুণ বয়সে নিজেকে এই সমাজসেবার কাজে নিয়োজিত করেছেন তা অবশ্যই প্রশংসনীয়। তিনি তার মা বাবার নামে জাহানারা তৈমুছ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট গঠন করে সমাজের দুঃখী মানুষের সেবা করছেন তার এই কাজ দেখে সমাজের তরুণরা উদ্বুদ্ধ হবে। বর্তমানে আমাদের সমাজ একটা অন্ধকারের মধ্যে চলছে। যুবকরা অনেকে নেশাগ্রস্থ। বিভিন্ন খারাপ কাজে লিপ্ত। এই বয়সে আব্দুস সামাদ যে মানসিকতা নিয়ে সমাজসেবায় নেমেছেন। এটা নি:সন্দেহে অন্যদের জন্য উদাহরণ।  মিছবাহ সিরাজ আরও বলেন, আব্দুস সামাদের মত ছেলে আমাদের গর্ব। এরকম ছেলে প্রতিটি গ্রামে যেন হয়। এসময় তিনি জাহানারা তৈমুছ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের প্রয়োজনে যেকোনো সময় যেকোনো সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। আব্দুস সামাদকে সহযোগিতার জন্য সবার প্রতি আহ্বানও জানান।



বি‌শেষ অ‌তি‌থির বক্তব্যে স্থানীয় মোল্লারগাঁও ইউ‌পির জনপ্রিয় চেয়ারম্যন আলহাজ্ব শেখ মকন মিয়া বলেন, আমাদের এলাকায় এরকম একটি বিশাল আয়োজন অবশ্যই আমাদের জন্য মহাখুশির বিষয়। আমি ব্যক্তিগতভাবে আব্দুস সামাদকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আমরা তাকে নিয়ে গর্বিত। তার সকল কাজে আমাদরে সহযোগিতা করা আবশ্যক।

দ‌ক্ষিণ সুরমা থানার অফিসার ইনচার্জ হারুন অর রশীদ বলেন, তরুণরাই সমাজের সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র। তরুণরা চাইলে যেকোনো কিছু করতে পারে। আব্দুস সামাদের মতো তরুণরা এভাবে এগিয়ে এলে দেশ অচিরেই অনেক দূর এগিয়ে যাবে। আমি আব্দুস সামাদের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছি।



জাহানারা তৈমুছ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান,  জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব ক্যালিফোর্নিয়ার পাবলিক রিলেশন অফিসার, এলএ বাংলাটাইমস-এর সিইও, এলএ বাংলা গ্রুপের প্রেসিডেন্ট ও লস এঞ্জেলেস প্রবাসী তরুণ সমাজসেবক আব্দুস সামাদ তার বক্তব্যে বলেন, আমি আমার মা-বাবার নামে এই ট্রাস্ট গঠন করেছি সমাজসেবামূলক কাজ করার উদ্যেশ্যে। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই আমরা সাধ্যমতো মানুষকে সাহায্য সহযোগিতা করার চেষ্টা করছি। এরই ধারাবাহিকতায় আজকের এই আয়োজন। এসময় তিনি এলাকার মুরব্বিয়ান ও যুবসমাজ এবং অরুণোদয় যুব সংঘের সদস্যবৃন্দ, প্রিন্ট ও  ও  ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ, সর্বস্তরের এলাকাবাসী- সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন, আজকের এই মহতি উদ্যোগে যারা বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেছেন আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ। আপনাদের এমন ভালোবাসায় সত্যিই আমি মুগ্ধ হয়েছি।
অরুণোদয় যুব সংঘ’র প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি বলেন, এই সংগঠনের সদস্যদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও আন্তরিকতায় এমন একটা বিশাল আয়োজন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এবং অনুষ্ঠান সফল করতে এলাকার সর্বস্তরের মানুষও যে সহযোগিতা করেছেন আমি সবার প্রতি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ।
আব্দুস সামাদ আরও বলেন, আমরা যারা প্রবাসে থাকি আমরা সবসময় দেশ নিয়ে চিন্তা করি। দেশের যুব সমাজকে নিযে চিন্তা করি। দেশের উন্নয়ন চাই। দেশের বঞ্চিত, দরিদ্র, অসহায় মানুষের কথা চিন্তা করি। আমার মনে হয় সব প্রবাসীরাই এমন চিন্তা করেন। এভাবে সবাই নিজ নিজ অস্থান থেকে কাজ করলে দেশ আরও এগিয়ে যাবে এটা আমাদের প্রত্যাশা।
এসময় তিনি তার মা-বাবার জন্য সবার কাছে দোয়া কামনা করেন।



আলোচনা সভা শেষে খতনা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন অ্যাড‌ভোকেট মিছবাহ উ‌দ্দিন সিরাজ। সবশেষে তিনি ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ অতিথিরা আব্দুস সামাদের বাসায় মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেন।

বিস্তারিত খবর

ছাত্রলীগের নামে অপকর্ম করলে কোনো ছাড় নেই : জাকির হোসাইন

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৪-১৬ ১৫:২৫:৪০

ছাত্রলীগের নামে যারা অপকর্ম করবে তাদের কাউকে ছাড় না দেয়ার হুশিয়ারি দিয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন বলেছেন, অপকর্মকারীদের ছাত্রলীগ নিজেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর হাতে তুলে দিচ্ছে। তিনি বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে কারা ফটকে হামলাসহ অন্যান্য ঘটনায় যেসব ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর নাম ওঠে এসেছে তাদের বিরুদ্ধেও সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিয়েছে ছাত্রলীগ। কিছুদিন আগে সিলেট শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। তদন্তে সাংবাদিক নির্যাতনের সাথে যাদের নাম ওঠে আসবে তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।
সিলেট প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে এস এম জাকির হোসাইন বলেন, একটি নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত ছাত্রলীগ করা যাবে। যাদের বয়স বেশি হয়ে গেছে তাদেরকে চাকরিসহ অন্য পথ খোঁজার পরামর্শ দেন তিনি।
সিলেট প্রেসক্লাবের ক্রীড়া ও সংস্কৃতি সম্পাদক আবদুল আহাদের পরিচালনায় মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির। বক্তব্য রাখেন ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ মো. রেনু।
ক্বওমী মাদরাসার স্বীকৃতি দেয়াকে স্বাগত জানিয়ে ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, সরকারি চাকরিতে সিলেটের মানুষের পিছিয়ে পড়া রোধ করতে সিলেটে পিএসসির আলাদা পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করতে হবে। এছাড়া বেসরকারি ব্যাংকগুলোর পরীক্ষাও সিলেটে নেয়ার দাবি জানান ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। প্রতিটি ক্ষেত্রে স্থানীয়দের নিয়োগ নিশ্চিতেরও দাবি জানান তিনি। সেই সাথে সিলেটে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি স্থাপনের দাবি জানান এসএম জাকির হোসাইন। এই দাবির পক্ষে সাংবাদিকদের আরো বেশি করে লেখনীর অনুরোধ জানান তিনি।
মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মুহাম্মদ আমজাদ হোসাইন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সমরেন্দ্র বিশ্বাস সমর ও মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মো. আফতাব উদ্দিন, পাঠাগার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবু সাঈদ মো. নোমান, নির্বাহী সদস্য মো. কামরুল ইসলাম, চ্যানেল এস’র বিশেষ প্রতিনিধি আব্দুল মালিক জাকা, ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আব্দুল বাতিন ফয়সল, একাত্তর টিভির ব্যুরো প্রধান ইকবাল মাহমুদ, দৈনিক সংগ্রামের ব্যুরো প্রধান কবির আহমদ, দৈনিক সকালের খবরের ব্যুরো প্রধান ফারুক আহমদ, ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার মঞ্জুর আহমদ, আরটিভির সিলেট প্রতিনিধি কামকামুর রাজ্জাক রুনু, দৈনিক সিলেটের ডাকের স্টাফ রিপোর্টার নূর আহমদ, যমুনা টেলিভিশনের ব্যুরো প্রধান মাহবুবুর রহমান রিপন, এনটিভির সিলেট প্রতিনিধি মারুফ আহমদ, এটিএন নিউজের সিলেট প্রতিনিধি সজল ছত্রী, যমুনা টিভির ক্যামেরাপার্সন নিরানন্দ পাল, সময় টিভির চিত্র সাংবাদিক দিগেন সিংহ, দৈনিক ভোরের কাগজের সিলেট প্রতিনিধি সিন্টু রঞ্জন চন্দ, ডেইলী স্টারের ফটো সাংবাদিক শেখ আশরাফুল আলম নাসির, সময় টিভির চিত্র সাংবাদিক নৌসাদ আহমেদ চৌধুরী, এসএ টিভির ব্যুরো ইনচার্জ আব্দুল আলিম শাহ, এসএ টিভির ক্যামেরাপার্সন শ্যামানন্দ দাস, মাছরাঙা টিভির স্টাফ রিপোর্টার শাকির আহমদ, ক্যামেরাপার্সন রাজন, চ্যানেল ২৪-এর স্টাফ রিপোর্টার মাইদুল রাসেল, ক্যামেরাপার্সন শফি আহমেদ, চ্যানেল এস’র রিপোর্টার  সুজাত প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ, মহানগর সভাপতি আব্দুল বাছিত রোম্মান, মৌলভীবাজার ছাত্রলীগের সভাপতি আসাদুজ্জামান রনি, সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রায়হান চৌধুরী।

এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ফের মেয়রের চেয়ারে বসলেন আরিফ

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৪-০২ ০৪:০৮:০১

সাময়িক বরখাস্ত হওয়ার দুই বছর তিন মাস পর উচ্চ আদালতের নির্দেশে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের (সিসিক) মেয়রের চেয়ারে বসলেন আরিফুল হক চৌধুরী।

রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় তিনি সিটি কর্পোরেশনে গিয়ে পৌঁছলে তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান সিসিক কাউন্সিলর ও কর্মকর্তারা।

রোববার দায়িত্ব গ্রহণের পর এক প্রতিক্রিয়ায় আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, দায়িত্ব পালনে আমি সকলের সহযোগিতা চাই। আমি জনগণকে যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচিত হয়েছিলাম, তা পূরণে কাজ করতে চাই। বিনা দোষে আমাকে ২৭ মাস জনগণের কাছ থেকে দূরে রাখা হয়েছিল।

দায়িত্ব গ্রহণকালে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির নেতা এমএ হক, কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা দলের সহ-সভাপতি আবদুর রাজ্জাক, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিমসহ স্থানীয় বিএনপি নেতৃবৃন্দ।

সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যা মামলার আসামি হয়ে দুই বছর চারদিন কারাভোগের পর গত ৪ জানুয়ারি সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আরিফুল হক চৌধুরী।

কারাগার থেকে মুক্তি পেয়ে সাময়িক বরখাস্ত আদেশ চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন তিনি। উচ্চ আদালতের রায়ে মেয়রের দায়িত্ব ফিরে পান আরিফ। পরে গত ৩০ মার্চ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ সংক্রান্ত চিঠি তার কাছে পৌঁছে।

সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যা মামলার সম্পূরক অভিযোগপত্রে নাম আসার পর ২০১৫ সালের ৭ জানুয়ারি স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ এক আদেশে সিসিক মেয়র আরিফকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে।

এই আদেশের বিরুদ্ধে মেয়র আরিফ রিট পিটিশন দায়ের করলে শুনানি শেষে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ গত ১২ মার্চ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। পরে এই আদেশের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আপীল করে রাষ্ট্রপক্ষ। প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের তিন সদস্যের বেঞ্চ রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন খারিজ করে দিয়ে হাইকোর্টের আদেশ বহাল রাখেন।

উল্লেখ্য, ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জের বৈদ্যের বাজারে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় দুর্বৃত্তদের গ্রেনেড হামলায় নিহত হন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া। ওই হত্যাকাণ্ডের প্রায় ১০ বছর পর তৃতীয় সম্পূরক চার্জশিটে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিসিক মেয়র আরিফুর হক চৌধুরীকে আসামি করা হয়।

২০১৪ সালের ২১ ডিসেম্বর কিবরিয়া হত্যা মামলার চার্জশিট আদালতে গৃহীত হলে ২৮ ডিসেম্বর আদালতে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। আদালত মেয়র আরিফুলের জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। কারাগারে থাকা অবস্থায় ২০০৪ সালের ২১ জুন সুনামগঞ্জে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের জনসভায় বোমা হামলার ঘটনার দীর্ঘ প্রায় ১২ বছর পর ২০১৬ সালের শেষ দিকে মেয়র আরিফকে শ্যোন এরেস্ট দেখানো হয়।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ওসমানী মেডিকেল রোডে একজনকে কুপিয়ে হত্যা

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৩-৩১ ১৪:৫৭:৫১

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সম্মুখে শুক্রবার ৮টা দিকে ডন হাসান (২৭) নামের এক যুবককে দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় ৩ জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার জেদান আল মুসা জানান, নিহত ডন হাসান একটি মামলার চার্জশীটভুক্ত আসামী এবং এক সময় সে ছাত্রদল করত। আটককৃত ৩ জন কতোয়ালী থানায় রয়েছে। তাদের একজনের নাম রাব্বী। আটককৃতদের কাছ থেকে হত্যাকান্ডের ভিডিও ক্লিপ এবং ওয়ান সুটার গান ও একটি ছোরা উদ্ধার করা হয়েছে।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিলেট ওসমানী বিমানবন্দর থেকে সরাসরি আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৩-১৬ ০২:২২:৫৯

সিলেট এমএজি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে চালু হলো সরাসরি আন্তর্জাতিক ফ্লাইট। গতকাল বুধবার বিকাল ৩টার দিকে দুবাই থেকে ১৪৭ জন যাত্রী নিয়ে ফ্লাই দুবাই এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট ওসমানীতে এসে অবতরণ করে। দেশে এবারই প্রথম দেশী-বিদেশী কোম্পানীর কোড শেয়ার ব্যবস্থার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু হলো।

রিজেন্ট এয়ারওয়েজের সাথে কোড শেয়ার ব্যবস্থায় দুবাই-সিলেট-দুবাই সরাসরি এই ফ্লাইট চালুু করে ফ্লাই দুবাই।

এ সময় ফ্লাইটে আগত যাত্রীদের স্বাগত জানান বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, জাতিসংঘে বাংলাদেশের প্রাক্তন স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ কে আবদুল মোমেন, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এহসানুল গনি চৌধুরী, রিজেন্ট এয়ারওয়েজের চেয়ারম্যান ইয়াসিন আলী, ফ্লাই দুবাইয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা গায়েত আল গায়েত, রিজেন্ট এয়ারওয়েজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এম. ফজলে আকবর, ফ্লাই দুবাইয়ের বাংলাদেশ জিএসএ স্কাই এভিয়েশন সার্ভিসের চেয়ারম্যান সাইফুল হক প্রমুখ।
এরপর বিমানবন্দর লাউঞ্জে আয়োজন করা হয় একটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাশেদ খান মেনন বলেন, আজ সিলেটবাসীর জন্য অত্যন্ত আনন্দের দিন। দীর্ঘদিন থেকেই তারা সিলেট থেকে সরাসরি আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের দাবি জানিয়ে আসছেন। ২০১৫ সালে একবার আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু হলেও কিছু বাধার কারণে তা বন্ধ হয়ে যায়।

মন্ত্রী বলেন, ফ্লাই দুবাই’র সাথে রিজেন্টের কোড শেয়ারের বিষয়টি খুব সহজ ছিলো না। এটি করতে অনেক বাধার সম্মুখীন হতে হয়েছে। আশা করছি এখন আর সমস্যা হবে না।

তিনি বলেন, ওসমানী বিমানবন্দরের রানওয়ে সম্প্রসারণে ৪৫২ কোটি টাকার প্রকল্প একেনেকে অনুমোদন হয়েছে। শীঘ্রই এই প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। রানওয়ে সম্প্রসারিত হলে আরো আন্তর্জাতিক ফ্লাইট সিলেট থেকে চালু হবে। আরো কয়েকটি বিদেশী উড়োজাহাড় সিলেট থেকে ফ্লাইট চালুর আগ্রহ প্রকাশ করেছে। আশা করি, আগামী ২/৩ বছরের মধ্যে এটি পূর্ণাঙ্গ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হবে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, বর্তমান বিশ্বে এভিয়েশন শিল্পে এ ধরনের কোড শেয়ার ব্যবস্থা বেশ কার্যকর হলেও বাংলাদেশে এই প্রথম দেশি-বিদেশি দুটি বিমানসংস্থা এই ব্যবস্থা রুট পরিচালনায় সম্পৃক্ত হয়েছে। এর ফলে পরিচালন পারমিট ও কোড, বিমানবন্দর স্পট এবং গ্রাউন্ড হ্যান্ডলিংয়ের দায়িত্বে থাকবে রিজেন্ট এয়ারওয়েজ। ফ্লাইট পরিচালনা, টিকেটিং, সেলস-মার্কেটিংয়সহ পুরো দায়িত্ব ফ্লাই দুবাইয়ের। সপ্তাহে প্রতিদিন দুবাই-সিলেট-দুবাই রুটে চলবে ফ্লাই দুবাইয়ের ১৭৫ আসনের বোয়িং ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজ।

এরআগে গত ২০১৫ সালের ১ মে ওসমানী বিমানবন্দর থেকে সরাসরি দুবাই-সিলেট-দুবাই ফ্লাইট চালু করেছিলো ফ্লাই দুবাই। তবে গ্রাউন্ড হ্যাডেলিং অনুমতি না থাকা ও বাংলাদেশ বিমানের আপত্তির কারণে একদিন পরই তা বন্ধ হয়ে যায়।

তবে এবার রিজেন্ট এয়ারওয়েজের সাথে কোড শেয়ার ব্যবস্থায় সরাসরি ফ্লাইট চালুু করল ফ্লাই দুবাই। যদিও রিজেন্টের সাথে কোড শেয়ারে আপত্তি জানিয়েছে বাংলাদেশ বিমানের কর্মকর্তারা। গতকাল বুধবার ফ্লাই দুবাই’র ফ্লাইটরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিমানমন্ত্রী রাশেদ খান মেননসহ অন্য অতিথিরাও জানিয়েছেন, ‘অনেক বাধার পর’ এই ফ্লাইট চালু করা হয়েছে।

আনুষ্ঠানিকতা শেষে সাড়ে ৫ টায় ১৬৯ জন যাত্রী নিয়ে ওসমানী থেকে দুবাই’র উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে ফ্লাই দুবাই।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৮ সালের ২০ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক তকমা গায়ে লাগে ওসমানী বিমানবন্দরের। প্রায় ১৭ বছর পর ২০১৫ সালের ১ এপ্রিল এমএজি ওসমানী বিমানবন্দর থেকে চালু হয় সরাসরি আন্তর্জাতিক ফ্লাইট। দুবাই থেকে ১৬৩ জন যাত্রী নিয়ে ফ্লাই দুবাইয়ের একটি ফ্লাইট ওই দিন বিকেলে অবতরণ করে। পরে ওসমানীর রিফুয়েলিং স্টেশন থেকে জ্বালানি সংগ্রহ করে ১৩০ জন যাত্রী নিয়ে ফের দুবাইয়ের উদ্দেশে উড্ডয়ন করে ফ্লাইটটি। এর মধ্য দিয়ে সিলেটবাসীর বহুল প্রতীক্ষিত স্বপ্নের বাস্তবায়ন ঘটেছিল। কিন্তু এরপরই ফ্লাইট চালনা বন্ধ করে দেয় ফ্লাই দুবাই। অবশেষে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ফের শুরু হলো আন্তর্জাতিক ফ্লাইট।

এখন থেকে ফ্লাই দুবাই এয়ারলাইন্স ওসমানী বিমানবন্দরের মাধ্যমে আগামী তিন মাস সপ্তাহে পাঁচদিন আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনা করবে। এরপর পুরো সপ্তাহই থাকবে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

মেয়র পদ ফিরে পেলেন সিলেটের আরিফ

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৩-১৩ ১৫:১৪:৫০

সিলেট সিটি করপোরেশনের বিএনপি সমর্থিত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার বিভাগের আদেশ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। বরখাস্তের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে তার করা আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে সোমবার (১৩ মার্চ) বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে আরিফুলের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন, সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার আবদুল হালিম কাফি। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

পরে আবদুল হালিম কাফি বলেন, আদালত স্থানীয় সরকার বিভাগের সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছেন। একইসঙ্গে তার দায়িত্ব পালনে যাতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি না করা হয় সে বিষয়ে স্থানীয় সরকার সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারসহ সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

তিনি আরও বলেন, মেয়র আরিফুলকে বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি চার সপ্তাহের রুলও জারি করা হয়েছে।

কিবরিয়া হত্যা মামলায় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) সম্পূরক অভিযোগপত্র ২০১৪ সালের বছরের ১৩ নভেম্বর হবিগঞ্জের আদালতে দাখিল করলে আরিফুল হকসহ নতুন করে নয়জন অভিযুক্ত হন। ৩০ ডিসেম্বর আরিফুল হবিগঞ্জ আদালতে আত্মসমর্পণ করলে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়।

পরের বছর ৭ জানুয়ারি আরিফুলকে মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। পরে উচ্চ আদালত থেকে জামিন পেয়ে চলতি বছর ৪ জানুয়ারি তিনি কারামুক্ত হন।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বিয়ানীবাজারে ট্রাকচাপায় নিহত চার

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৩-১০ ১৪:১৫:৪৫

সিলেটের বিয়ানীবাজারে ট্রাকচাপায় অটোরিকশার চার আরোহী নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন একজন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার টিকরপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন চক্রবর্তী গণমাধ্যমকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নিহতদের মধ্যে দুই জনের পরিচয় নিশ্চিত করেছেন পুলিশ। এরা হলেন, কানাইঘাট উপজেলার সাব্বির আহমেদ (৩০) ও দুলাল মিয়া (২৬)। এছাড়া আহত অপর ব্যক্তিকে সিলেট ওসমানী মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে ওসি চন্দন জানিয়েছেন, সিলেট থেকে বিয়ানীবাজারগামী একটি ট্রাকের চাপায় ঘটনাস্থলেই তিন অটোরিকশা আরোহী নিহত হয়েছেন। আহতদের অপর দুইজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে দুলাল নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিলেট শহরকে একটি স্মার্ট শহর হিসেবে গড়ে তোলা হবে: ড. মোমেন

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৩-০৭ ১৪:০৬:৫৭

জাতিসংঘ বাংলাদেশ মিশন-এর সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, তথ্য প্রযুক্তির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে দ্রুত গতিতে। এরই ধারাবাহিকতায় শীঘ্রই সিলেট একটি স্মার্ট শহর হিসেবে তৈরি হবে। মানুষ ঘরে বসেই যেকোনো তথ্য জানতে পারবে। বাংলাদেশ তথা সিলেট কে গড়তে ব্যবসায়ীদেরকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। সিলেট জেলা ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদ-এর অভিষেক ২০১৭ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সোমবার নগরীর হোটেল নির্ভানা ইনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সিলেট জেলা ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদ-এর সভাপতি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ মোঃ মখন মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।

পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ তুরণ মিয়ার স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ, সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, সিলেট জেলা বি এম এ’র সভাপতি প্রফেসর ডা. রুকন উদ্দিন আহমদ, সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্সের সহ সভাপতি হাসিন আহমদ, সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহী উদ্দিন সেলিম,সিলেট মহানগর ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদের সভাপতি শ্রী চন্দন সাহা, সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক।

পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল আহাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ আহমেদুর রব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুহেল আহমদ সাহেল ও সাংঘঠনিক সম্পাদক এইচ এ এ তাপাদার রুহেলের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জেলা ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদের উপদেষ্টা এডভোকেট মুজিবুর রহমান চৌধুরী, সহ সভাপতি আতিকুর রহমান আতিক।

ড. এ কে আব্দুল মোমেন আরো বলেন, সিলেটের উন্নতির জন্য বিভিন্ন ধরনের উপযোগী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এমনকি ২০১৮ সালের পর বাংলাদেশে গ্যাসের সমস্যা থাকবেনা। আর্থ সামাজিক কিংবা অবকাঠামোগত উন্নয়নের জন্য ব্যবসায়ীদেরকে তাদের জনপ্রতিনিধিদের কাছে তাদের সকল সমস্যা তুলে ধরতে হবে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন পরিষদের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক লুৎফুর রহমান লিলু। গীতা থেকে পাঠ করেন পরিষদের ্রপ্রচার সম্পাদক শ্রী সরোজ ভট্টাচার্য্য।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদ‘র নেতৃবৃন্দের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ মিয়া চুন্নু, হোসেন আহমদ, হাজী মুহাম্মদ বশির মিয়া, নুরুল ইসলাম সুমন, সহ সভাপতি মুফতি নেহাল উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা সাজ্জাদুর রহমান আলতা, কবির চৌধুরী, মো: আলেক মিয়া, আব্দুল কাইয়ুম মুকুল, সৈয়দ রাজন আহমদ, লায়েক মিয়া, সাহিত্য সম্পাদক মনজুর আহমদ, সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, মো: জাহাঙ্গীর আলম, আনিসুর রহমান তিতাস, গাজী জামিল, আশরাফুর রহমান পাঠান।
মহানগর নেতৃবৃন্দের মধ্যে সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুর রকিব শিকদার, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুর রহমান রিপন, আব্দুল হাদী পাবেল, রিয়াদুল হাসান রুহেলসহ বিভিন্ন মার্কেটের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ। অনুষ্ঠানে নবগঠিত কার্যকরী কমিটির শপথ পাঠ করান সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিলেটে আলিয়া ও কওমি মাদরাসার ছাত্র-সমর্থকদের সংঘর্ঘে ১ জন নিহত

 প্রকাশিত: ২০১৭-০২-২৭ ১০:৫১:৫২

সুনামগঞ্জের ছাতকে আলীয়া ও কওমি মাদ্রসার ছাত্র-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষার্থী, পথচারী ও পুলিশ সদস্যসহ আহত হয়েছেন শতাধিক ব্যক্তি। সংঘর্ষে আহত আব্দুল বাছেত বাবুলকে (৪৫) সিলেট এমএজি ওসামানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে তিনি সেখানে মারা যান।

সোমবার দুপুর ১টার দিকে ছাতক হাইস্কুল মাঠে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। বিকেল ৫টা পর্যন্ত সংঘর্ষ চলে। সংঘর্ষ থামাতে সুনামগঞ্জ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ও র‌্যাব ছাতকে পাঠানো হয়।

সংঘর্ষে আহত বাবুল সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন ছাতক থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশেক সুজা মামুন।

এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন-মজলু মিয়া (৪০), আব্দুল কাদির (৫০), আব্দুল জব্বার (৩০), সুরত আলী (২৫), শহীদ মিয়া (২০), আলেখ মিয়া (২৫), তানভীর আহমদ (১৮), রুমন মিয়া (১৭), আহমদ শরীফ (২৫) মেহেদী হাসান (১৮) লাহিন চৌধুরী (৪০), ইমরান আহমদ (২২), তারেক মিয়া (২৩), মাসুম আহমদ (২৫), মোস্তফা কামাল (২৪), মোক্তার হোসেন (৩০), ও নূর হোসেন (২৬)। তাদেরকে সিলেট এমএজি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও অন্তত আরও ৭০ জনকে ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এর মধ্যে ছররা গুলিতে অন্তত ১৫ জন আহত বলে জানিয়েছেন ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. ফারুক আহমদ।

এ ছাড়াও উভয় পক্ষের ইট পাটকেলে ছাতক থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশেক সুজা মামুন, এসআই শফিকুল আলম, এসআই সোহেল রানা, এসআই নূর মোহাম্মদ খান, এসআই সৈয়দ আব্দুল মান্নান ও কনস্টেবল মাহফুজুর রহমান, শরীফ উদ্দিন, সৌরভ ও ওয়াহিদুজ্জামান আহত হয়েছেন।

সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে ছাতক থানা পুলিশ ৩৬ রাউন্ড রাবার বুলেট ও ৭০ রাউন্ড টিআরসেল নিক্ষেপ করেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রবিবার উপজেলার জাউয়াবাজার এলাকায় আলীয়া মাদ্রসার ছাত্র-শিক্ষক ও সমর্থক ৩ দিনব্যাপি ওয়াজ মাহফিলের আয়োজন করেন। রবিবার মাহফিলে বাধা দেয় কওমি মাদ্রসার ছাত্র-শিক্ষক ও সমর্থকরা। এর জের ধরে সোমবার ছাতক হাইস্কুল মাঠে কওমি মাদ্রসার ছাত্র-শিক্ষক ও সমর্থকদের সঙ্গে আলীয়া মাদ্রসার ছাত্র-শিক্ষক ও সমর্থকদের সংঘর্ষ বাধে। এতে ছাতক শহরের ট্রাফিক পয়েন্ট থেকে জালালিয়া মাদ্রসা পর্যন্ত অন্তত আধাকিলোমিটার পর্যন্ত সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে পরীক্ষার্থী, পথচারীসহ অন্তত শতাধিক লোক আহত হয়।

সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. হারুন অর রশীদ জানান, সংঘর্ষ থামাতে সুনামগঞ্জ থেকে অতিরিক্ত ৩ প্লাটুন পুলিশ ও র‌্যাব ছাতক পাঠানো হয়।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

আদালতে যা বললেন খাদিজা

 প্রকাশিত: ২০১৭-০২-২৬ ১২:১৮:২১

কলেজছাত্রী খাদিজা বেগম হত্যাচেষ্টা মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ কার্যক্রম শেষ হয়েছে।

রোববার সিলেট মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরোর আদালতে সাক্ষ্য প্রদান করেন খাদিজা। সাক্ষ্য প্রদানের একপর্যায়ে তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। আদালতে তিনি বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেন।

আদালত সূত্র জানায়, রোববার দুপুর ১২টায় সাক্ষ্য প্রদান শুরু করেন খাদিজা। এ সময় বদরুল উত্তেজিত হয়ে ওঠেন। তিনি কিছু বলার জন্য বিচারকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তবে বিচারক সাক্ষ্য গ্রহণ কার্যক্রম চালিয়ে যেতে নির্দেশ দেন।

আদালতে খাদিজা বলেন, ‘গত বছরের ৩ অক্টোবর আনুমানিক বিকাল ৫টার সময় এমসি কলেজে পরীক্ষা দিয়ে এক বান্ধবীর সঙ্গে বেরিয়ে আসার সময় বদরুল আমার পথরোধ করেন। তিনি আমার ওপর ধারালো চাপাতি দিয়ে হামলা চালান। আমাকে কুপিয়ে ক্ষতবিক্ষত করে দেন।’

সাক্ষ্য প্রদানের একপর্যায়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন খাদিজা। এ সময় আইনজীবীরা তাকে সান্ত্বনা প্রদান করেন। এরপর খাদিজা বলেন, ‘বদরুল আমাকে অনেকটা প্রতিবন্ধী করে দিয়েছে। আমি তার সর্বোচ্চ শাস্তি চাই।’

বাদীপক্ষের আইনজীবী এবং রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা খাদিজাকে ফের প্রশ্ন করেন, আপনি বদরুলের কি ধরনের শাস্তি দেখতে চান? খাদিজা ফের বলেন, ‘আমি তার সর্বোচ্চ শাস্তি চাই।’

সাক্ষ্য প্রদান শেষে বদরুলের আইনজীবী সাজ্জাদুর রহমান খাদিজাকে জেরা করেন। তিনি খাদিজাকে প্রশ্ন করেন, ‘বদরুলের সঙ্গে আপনার পরিচয় কিভাবে হয়েছিল?’

প্রত্যুত্তরে খাদিজা বলেন, ‘পাঁচ-ছয় বছর আগে তিনি আমাদের বাড়িতে লজিং মাস্টার ছিলেন।’

এরপর আইনজীবী সাজ্জাদুর রহমান আদালতে বদরুলের সঙ্গে খাদিজার একটি ছবি প্রদর্শন করেন। এ সময় বাদীপক্ষের এবং রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা প্রতিবাদ জানান।

বদরুলের আইনজীবী খাদিজাকে বলেন, ‘বদরুলের সঙ্গে আপনার ভালবাসার সম্পর্ক ছিল।’ খাদিজা তা অস্বীকার করেন। আইনজীবী সাজ্জাদুর রহমান বলেন, ‘যেখানে সেদিন ঘটনা ঘটেছিল, সেখানে আপনি (খাদিজা) স্বেচ্ছায় বদরুলের সঙ্গে গিয়েছিলেন।’ খাদিজা এ বিষয়টি অস্বীকার করেন।

প্রসঙ্গত, গত ৩ অক্টোবর এমসি কলেজের পুকুরপাড়ে সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী খাদিজা বেগম নার্গিসকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অনিয়মিত ছাত্র ও শাবি ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলম। ঘটনার পরপরই শিক্ষার্থীরা বদরুলকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিলেটে দশ দিনব্যাপী বেঙ্গল সংস্কৃতি উৎসব শুরু

 প্রকাশিত: ২০১৭-০২-২৩ ০৪:২৯:৫০

সিলেটে পর্দা উঠেছে দশদিনব্যাপী ‘মানবিক সাধনায় বেঙ্গল সাংস্কৃতিক উৎসব’-এর।
সিলেট নগরীর মাছিমপুর এলাকার আবুল মাল আবদুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সে গতকাল বুধবার রাত আটটায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ও সাংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর ও বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আবুল খায়েরসহ অতিথিরা বেঙ্গল সংস্কৃতি উৎসব সিলেটের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
এর আগে বিকেল ৪ টায় শবনম ফেরদৌসী নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র বর্ন টুগেদার (জন্মসাথী) প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে শুরু হয় এ উৎসব। সৈয়দ মুজতবা আলী মঞ্চে প্রদর্শিত হয় এ প্রামাণ্যচিত্র।
এরপর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা থেকে মূল মঞ্চ, যেটি নামকরণ করা হয়েছে হাছন রাজা মঞ্চ-সেখানে অনুষ্ঠান শুরু হয়। ওয়ার্দা রিহাবের নির্দেশনায় মণিপুরি নৃত্যের মাধ্যমে এ মঞ্চের অনুষ্ঠান শুরু হয়।
আজ এই মঞ্চে জাতীয় রবীন্দ্রসংগীত সম্মিলন পরিষদ সিলেট-এর পরিবেশনায় দেশের গান, অদিতি মহসিনের কণ্ঠে রবীন্দ্রসংগীত এবং ফোক ফিউশন নিয়ে গানের দল জলের গান অংশ নেবে।
গতকাল বিকেল থেকেই আগ্রহী দর্শক-শ্রোতারা উৎসবস্থলের সামনে রেজিস্ট্রেশনের জন্যে জড়ো হন। ক্রীড়া কমপ্লেক্সের মূল ফটকের সামনে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশনের সুবিধা রাখা হয়েছে। এখানে বিকেল থেকেই দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে।
আয়োজকরা জানিয়েছেন, আগ্রহীরা অনুষ্ঠানস্থলে এসে বিনামূলে রেজিস্ট্রেশন করে ভেতরে প্রবেশ করতে পারবেন।
দশ দিনব্যাপী এ উৎসবে বাদ্যযন্ত্র প্রদর্শনী, কারুশিল্প, সাহিত্য সম্মেলন, গান, চলচ্চিত্র, লোকগান, নাটক, স্থাপত্য প্্রদর্শনী, আর্টক্যাম্পে স্বনামধন্য বাংলাদেশি শিল্পীসহ ভারত,নেপাল ও বিভিন্ন দেশের খ্যাতনামা শিল্পিসহ উদীয়মান শিল্পীরাও অংশ নেবেন।
প্রতিদিন দুপুর থেকে মধ্যরাতব্যাপী চলবে অনুষ্ঠান। কেবল ২৪ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি উৎসব শুরু হবে সকাল ১০টা থেকে।
সংস্কৃতি চর্চার উৎকর্ষ লক্ষ্য ধরে মানবিক সাধনায় এই প্রথমবারের মতো রাজধানীর বাইরে কোনো বিভাগীয় শহরে এত বড় পরিসরের সংস্কৃতি উৎসব আয়োজন করছে বেঙ্গল। সিলেটের এ উৎসবটি উৎসর্গ করা হয়েছে জ্ঞানতাপস আব্দুর রাজ্জাকের উদ্দেশে।

এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি.

বিস্তারিত খবর

ঢাকায় ৩-৪ ও সিলেটে ৬-৭ মার্চ ‘আন্তর্জাতিক সিলেট উৎসব’

 প্রকাশিত: ২০১৭-০২-১২ ১৩:৪৫:১০

ঢাকাস্থ জালালাবাদ এসোসিয়েশনের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক সিলেট উৎসব-২০১৭ এর আয়োজন করা হয়েছে। আগামী ৩ মার্চ ঢাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে এ উৎসবের উদ্বোধন হবে। পরে ৬ মার্চ সিলেট অংশের উদ্বোধন হবে। সিলেট নগরীর আবুল মাল আবদুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সে ২ দিনব্যাপী এ উৎসবে থাকবে সিলেটের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি তুলে ধরা হবে। পাশাপাশি থাকবে প্রবাসীদের মিলনমেলাও।

শনিবার দুপুর ১২ টায় সিলেট স্টেশন ক্লাবে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের উদ্যোগে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আন্তর্জাতিক সিলেট উৎসবের আহ্বায়ক আবু হোসেন চৌধুরী।

এই উৎসবের ঢাকা ও সিলেট দু’টি অংশেরই উদ্বোধন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি। এতে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি, জাতীয় সংসদের হুইপ শাহাব উদ্দিন এবং সিলেট বিভাগের অন্যান্য সংসদ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন।
লিখিত বক্তব্যে জানানো হয়, সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে-‘শান্তি ও সমৃদ্ধির জন্য সম্প্রীতির অভিযাত্রা।’ আগামী ৩ থেকে ৪ মার্চ ঢাকায় এবং ৬ থেকে ৭ মার্চ সিলেটে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হবে।

উৎসবের প্রধান উপদেষ্টা অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি। প্রধান পৃষ্ঠপোষক গ্রীণডেল্টা ইন্স্যুরেন্স এর প্রধান উপদেষ্টা নাসির এ চৌধুরী ও প্রধান সমন্বয়কারী, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান হাফিজ আহমদ মজুমদার।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ২০১৪ সালের ডিসেম্বর মাসে জালালাবাদ এসোসিয়েশন ও দক্ষিণ কলকাতা সিলেট এসোসিয়েশন আয়োজন করেছিল ইন্দো বাংলা সিলেট উৎসবের। ওই উৎসবে ভারত ও বাংলাদেশসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে কয়েক হাজার সিলেটী অংশগ্রহণ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি সিএম তোফায়েল সামি’র ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ জগলুল পাশা ছাড়াও মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন সিলেট সিটি করেপোরেশনের সাবেক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সিলেট সিটি করপোরেশনের সাময়িক বরখাস্তকৃত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাইয়ুম চৌধুরী প্রমুখ।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

শিল্পপতি রাগীব আলী ও তার ছেলের ১৪ বছরের কারাদন্ড

 প্রকাশিত: ২০১৭-০২-০২ ১১:২৫:০০

মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি মামলায় (১১৪৬/০৫) সিলেটের শিল্পপতি রাগীব আলী ও তার ছেলে আব্দুল হাইয়ের ১৪ বছরের কারাদন্ড হয়েছে। সিলেটের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুজ্জামান হিরো বৃহস্পতিবার পৃথক চারটি ধারায় তাদেরকে এ সাজা দেন।
আদালতের আদেশে বলা হয়, আসামী রাগীব আলী ও আব্দুল হাই এর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আনীত দন্ডবিধি ৪৬৬/৪৬৮/৪৭১/৪২০ ও ৩৪ ধারার অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাদের প্রত্যেককে দন্ডবিধির ৪৬৬ ধারায় ৬ বছরের সশ্রম কারাদন্ডসহ দশ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরো তিন মাসের কারাদন্ডে দন্ডিত করা হলো। দন্ডবিধির ৪৬৮ ধারায় তাদের প্রত্যেককে ৬ বছরের সশ্রম কারাদন্ডসহ দশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো তিন মাসের কারাদন্ড এবং দন্ডবিধির ৪২০ ধারা এবং ৪৭১ ধারায় তাদেরকে আরো এক বছর করে কারাদন্ড প্রদান করা হলো।

আদালতের সাথে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, চারটি ধারার সাজাই এক সাথে চলবে। এ জন্য রাগীব আলী ও তার ছেলেকে সর্বোচ্চ সাজা ৬ বছর জেল খাটতে হবে।
সিলেটের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ আদালত চত্বরে অপেক্ষমান সাংবাদিকদের বলেন, পৃথক চারটি ধারায় রাগীব আলীর সব মিলিয়ে ১৪ বছরের কারাদন্ড হয়েছে।
২০১৬ সালের ১০ জুলাই তারাপুর চা বাগান লিজের ক্ষেত্রে স্বাক্ষর জালিয়াতির মামলাটির চার্জশিট দাখিল পিবিআই(পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন)। এ মামলার চার্জশিটে অভিযুক্ত করা রাগীব আলী ও তার পুত্র আবদুল হাইকে। চার্জ গঠনের পর মাত্র ১১ কার্যদিবসে মামলাটির কার্যক্রম শেষ হয়। মোট ১৪ জন স্বাক্ষীর মধ্যে সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয় ১১ জনের। এছাড়া, রাগীব আলীর পক্ষে আরো ২ জন সাফাই সাক্ষ্য দেন।

বিস্তারিত খবর

সিলেটে গোপশহর প্রিমিয়ার লীগের উদ্বোধন

 প্রকাশিত: ২০১৭-০১-২৭ ১৪:৪৯:৫৪

সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ৬ষ্ঠ গোপশহর প্রিমিয়ার লীগের উদ্ভোধনী খেলা । শুক্রবার গোপশহর ফাইটার্স ও গোপশহর ওয়ারিয়র্স এই দুটি দলের খেলার মধ্য দিয়ে টুর্নামেন্টটি উদ্বোধন হয়।

উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফেরদৌস চৌধূরী রুহেল। বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মামুন খান, শামীম আহমদ ও কাওছার হাওলাদার। সভাপতিত্ব করেন এ. এ. এম মিরাজ জাকির।

উদ্বোধনী ম্যাচে টসে জিতে গোপশহর ওয়ারিয়র্স ব্যাট করতে নেমে  নির্ধারিত ১৬ ওভার শেষে গোপশহর ফাইটার্সকে ১৬১ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় । পাল্টা জবাবে গোপশহর ফাইটার্স প্রথম থেকে দেখে খেলেও শেষ পর্যন্ত লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের অসাবধানতার কারণে ১৪৮ রানেই তাদের সব কয়টি উইকেট হারায়। গোপশহর ওয়ারিয়র্স’র সামাদ ৪৬ রান , সালমান ৪৭ রান করেন । 

গোপশহর ফাইটার্স’র ফাহাদ ও জাহেদ ১টি করে উইকেট সংগ্রহ করেন।  গোপশহর ফাইটার্স’র রাজ্জি ৩৪ রান ও পারভেজ ২৬ রান করেন । গোপশহর ওয়ারিয়র্স’র ফাহাদ ও ফরহাদ ৩টি করে উইকেট লাভ করেন ।

ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হোন গোপশহর ওয়ারিয়র্সের সামাদ হাসান।

উল্লেখ্য, লীগ পদ্ধতিতে শুরু হওয়া টুর্নামেন্টটি দেড়মাস ব্যাপী প্রতি শুক্র, শনি ও বুধবার দুটি করে ম্যাচ গোপশহর মাদ্রাসা পার্শ্ববর্তী মাঠে অনুষ্ঠিত হবে।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিলেটে উদ্বোধন হচ্ছে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির পাঁচ তারকা হসপিটাল

 প্রকাশিত: ২০১৭-০১-২১ ১৩:১৬:২৫

প্রায় তিনশ' কোটি টাকা বিনিয়োগে সিলেটে চালু হতে যাচ্ছে পাঁচ তারকা মানের আল হারামাইন হাসপাতাল প্রাইভেট লিমিটেড। সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ও সর্বোত্তম সেবার অঙ্গীকার নিয়ে আড়াইশ' শয্যার এ হাসপাতালটির উদ্বোধন হবে আগামী ২৩ জানুয়ারি।

কার্যক্রম শুরুর লগ্নে ব্যতিক্রমী আয়োজন করেছে আল হারামাইন হাসপাতাল প্রাইভেট লিমিটেড। আগামী ২৩ জানুয়ারী থেকে আল হারামাইন ৩০ জানুয়ারী পর্যন্ত সপ্তাহব্যাপী ফ্রি চিকিৎসা পরামর্শ প্রদান করা হবে।

সিলেট নগরীর সোবহানীঘাটে নির্মিত এ হাসপাতালের বহির্বিভাগ ও ডায়াগনস্টিক (প্যাথলজি ও ইমেজিং) কার্যক্রম শুরু হবে ২৩ জানুয়ারি।

খ্যাতিয়ামান প্রবাসী ব্যবসায়ী মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান এই হাসপাতালটি গড়ে তুলেছেন। তিনি বলেন, আড়াইশ' শয্যার এ হাসপাতালে চিকিৎসা ক্ষেত্রে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিগুলো নিয়ে আসা হয়েছে। প্রায় ২৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ফিলিপাইন থেকে আনা হয়েছে অত্যাধুনিক এমআরআই ও সিটিস্ক্যান মেশিন। হাসপাতালে থাকছে বাংলাদেশের প্রথম ৬টি মডিউলার অপরাশেন থিয়েটার। দেশের প্রসিদ্ধ চিকিৎকরা ছাড়াও বিদেশী চিকিৎসকরাও এখানে চিকিৎসা সেবা প্রদান করবেন।

তিনি বলেন, সিলেটের প্রথম পাঁচ তারকা মানের এই হাসপাতালে সর্বোত্তম সেবা নিশ্চিত করা হবে।

মাহতাবুর রহমান বিশ্ব নন্দিত পারফিউম ব্র্যান্ড আল হারামাইন পারফিউমস গ্রুপের কর্ণধার ও এনআরবি ব্যাংকের চেয়ারম্যান। এছাড়া বিয়ানীবাজার হাসপাতালের ট্রাস্টি হিসেবেও রয়েছেন তিনি।

আল হারামাইন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, তাদের হাসপাতালের কার্যক্রম চালু উপলক্ষে ২৩ জানুয়ারী থেকে প্রতিদিন হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত রোগীদের ফ্রি চিকিৎসা পরামর্শ দিবেন। 


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

দেশের প্রথম ‘ডিজিটাল শহর’ হচ্ছে সিলেট

 প্রকাশিত: ২০১৭-০১-১৯ ১২:০৩:৩৭

সিলেটকে দেশের প্রথম ডিজিটাল শহর হিসেবে গড়ে তোলার কাজ এগিয়ে চলছে । সেই ল‌ক্ষে এক জরুরী মত‌বি‌নিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সি‌লেট জেলা প্রশাস‌কের স‌ম্মেলন ক‌ক্ষে এ মতবিনিময় অনু‌ষ্ঠিত হয়।‌

জেলা প্রশাসক মো.জয়নাল আ‌বে‌দীনের সভাপ‌তিত্বে এতে উপস্থিত ছিলেন  জা‌তিসং‌ঘে নিযুক্ত বাংলা‌দে‌শের সা‌বেক স্থায়ী প্র‌তি‌নি‌ধি ও রাষ্ট্রদূত ড. এ কে আব্দুল মো‌মেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে বি‌ভিন্ন সরকা‌রি বেসরকা‌রি দপ্ত‌রের প্র‌তি‌নি‌ধিরা উপস্থিত ছিলেন।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিলেটে ৬ কোটি টাকার মাদক ধ্বংস করল বিজিবি

 প্রকাশিত: ২০১৭-০১-১৫ ১০:১৫:৫২

সিলেটের বিভিন্ন সীমান্ত থেকে উদ্ধারকৃত প্রায় ৬ কোটি টাকার মাধকদ্রব্য ধ্বংস করেছে ৫ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন (বিজিবি)। রোববার সকালে নগরীর আখালিয়ার বিজিবি ক্যাম্পে মাদকদ্রব্যগুলো বুলডোজার দিয়ে ধ্বংস করা হয়।

মাদকদব্য ধ্বংস অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ৪১ বিজিবির উপ পরিচালক মেজর শাহেদ মেহের, ৫ বিজিবির সহকারি পরিচালক মো. নুরুল ইসলাম ফকির, নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট রোজিনা আক্তার প্রমুখ।

বিজিবি জানায়, গত বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে চলতি বছরের ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত সিলেট জেলার সীমান্তবর্তী এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব মাদকদ্রব্য জব্দ করে।

এরমধ্যে ৫ বিজিবির অভিযানে ৩৫ হাজার ৩৭৪ বোতল বিভিন্ন প্রকার মদ, ৩ হাজার ২৩৫ বোতল বিয়ার, ফেন্সিডিল ৫২০ বোতল, বাংলা মদ ২০৫ লিটার ও গাঁজা ২ হাজার ৪০০ কেজি রয়েছে।

এ ছাড়া ৪১ বিজিবির অভিযানে বিভিন্ন প্রকার মদ ৩ হাজার ৬৯২ বোতল, ফেন্সিডিল ২২৩ বোতল, জেন্সিডিল সিরাপ ৫৫৫ বোতল রয়েছে। ধ্বংসকৃত মাদকদ্রব্যের মূল্য ৫ কোটি ৯৯ লাখ ৯৩ হাজার ৮৫০ টাকা।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

জামিনে মুক্তি পেলেন আরিফুল হক চৌধুরী

 প্রকাশিত: ২০১৭-০১-০৪ ১২:৩১:১৪

কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন সিলেট সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। দীর্ঘ ২ বছর ৫ দিন কারাভোগের পর বুধবার বিকাল ৫ টায় সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তি পান আরিফুল হক।

এর আগে সকালে সিলেট দায়রা জজ মনির আহমদ পাটেয়ারীর আদালতে আরিফুল হক চৌধুরীর উপস্থিতিতে জামিনের কাগজপত্র প্রদর্শন করেন তার আইনজীবীরা।

বুধবার সন্ধ্যায় আরিফুল হকের মুক্তির বিষয়টি সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ জেল সুপার ছগির হোসেন মিঞা নিশ্চিত করেছেন।

আরিফুল হক চৌধুরী মুক্তি পেতে যাচ্ছেন এ সংবাদে দুপুর থেকে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে ভিড় করেন গণমাধ্যমকর্মী ও আরিফের ঘনিষ্ঠরা।

সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি হিসেবে ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর হবিগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে আত্মসমর্পণ করেন আরিফ। ওইদিন আদালত তার জামিন না মঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠান।

এরপর থেকেই কারাবন্দি ছিলেন বিএনপির এ মেয়র। ২ বছর পাঁচদিন পর মুক্তি পান তিনি। মাঝখানে অবশ্য মায়ের অসুস্থতার কারণে কিছুদিন প্যারোলে মুক্তি দেয়া হয়েছিল তাকে।

আরিফ মুক্তি পেতে যাচ্ছেন সে আভাস মিলেছিল বুধবার সকালে। সিলেটের জেলা ও দায়রা জজ মনির আহমদ পাটেয়ারীর আদালতে আরিফুল হক চৌধুরীকে হাজির করা হয়। এ সময় আসামিপক্ষ আদালতে আরিফের জামিনের কাগজপত্র প্রদর্শন করেন। আদালতও মুক্তিতে সম্মতি জানান। এরপর আরিফের মুক্তির কেবল সময়ের ব্যাপার বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবীরা।

আরিফুল হক সাবেক অর্থমন্ত্রী এ এম এস কিবরিয়া ছাড়াও সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের জনসভায় গ্রেনেড বিস্ফোরণ ও হত্যা মামলারও আসামি। এ দুই ঘটনায় হত্যা ও বিস্ফোরক মামলাসহ মোট চারটি মামলাতে জামিন পেয়েছেন আরিফুল হক চৌধুরী।

২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বৈদ্যের বাজারে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভা শেষে ফেরার পথে গ্রেনেড হামলায় নিহত হন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়াসহ পাঁচজন। এ ঘটনায় হত্যা এবং বিস্ফোরক আইনে পৃথক দুইটি মামলা করা হয়।

২০১৪ সালের গত ২১ ডিসেম্বর আরিফুল হক চৌধুরী, জি কে গউছ এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরীসহ ১১ জনকে অভিযুক্ত করে হবিগঞ্জে আদালতে সম্পূরক চার্জশিট দেয় সিআইডি পুলিশ।

২০০৪ সালের ২১ জুন সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের জনসভায় বোমা হামলা হলে এক যুবলীগকর্মী নিহত হন।

দুটি মামলাতে আসামি করা হয়েছে আরিফকে। নির্বাচিত মেয়র হলেও এ মামলার কারণে স্থানীয় সরকার ও সমবামন্ত্রণালয় ২০১৬ সালের শুরুর দিকে তাকে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদ সাময়িক বরখাস্ত করে।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

আপিল বিভাগেও আরিফুল-গউছের জামিন বহাল : মুক্তিতে বাধা নেই

 প্রকাশিত: ২০১৭-০১-০৩ ১০:১৪:৩৫

পৃথক দুটি মামলায় সিলেট সিটি করপোরেশনের (বরখাস্তকৃত) মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জি কে গউছকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে মেয়রদের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন ও ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন। সঙ্গে ছিলেন অ্যাডভোকেট মাসুদ রানা। পরে আইনজীবী মাসুদ রানা জানান, জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আপিল বিভাগ। এই আদেশের ফলে তাদের মুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই।

রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ২০ ডিসেন্বর মেয়র আরিফুল ও গউছকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিত করেন চেম্বার বিচারপতি। একই সঙ্গে আবেদনটি শুনানির জন্য ২ জানুয়ারি দিন ধার্য করে আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন। সেই অনুযায়ী আবেদনটি শুনানির জন্য আসলে মঙ্গলবার আপিল বিভাগ তাদেরকে দেওয়া হাইকোর্টের জামিন বহাল রাখলেন।

এর আগে গত ১১ ডিসেম্বর সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে আওয়ামী লীগ নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের সমাবেশে বোমা হামলা মামলায় মেয়র আরিফুল হককে ছয় মাসের জামিন দেন হাইকোর্ট। একই দিনে আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যার ঘটনায় বিস্ফোরক আইনে দায়ের করা মামলায় হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জি কে গউছকেও হাইকোর্ট ছয় মাসের জামিন দেন।

মামলার বিবরণীতে জানা যায়, ২০০৪ সালের ২১ জুন দুপুরে দিরাই বাজারে একটি সমাবেশে বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। এ সমাবেশে প্রধান অথিতির বক্তব্য রাখছিলেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। এ বোমা হামলায় এক যুবলীগকর্মী নিহত হয় ও ২৯ জন আহত হয়।

ওই ঘটনায় দায়ের করা মামলায় তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে ১৩ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। সে সময় এসআই হেলাল উদ্দিন বাদী হয়ে দিরাই থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এদিকে ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জের বৈদ্যের বাজারে জনসভায় গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়াসহ পাঁচজন নিহত হন। গ্রেনেড হামলার এ ঘটনায় জেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য আবদুল মজিদ খান বাদী হয়ে হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দুটি মামলা করেন।

এই তিনটি মামলাতেই সিলেট সিটি করপোরেশনের বরখাস্তকৃত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জি কে গউছকে গ্রেফতার দেখানো হয়।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিলেট ইজতেমা মাঠে কয়েক লাখ মুসল্লির জুমার নামাজ আদায়

 প্রকাশিত: ২০১৬-১২-৩০ ১১:০৬:৫০

শুক্রবার সিলেটে ইজতেমায় জড়ো হয়েছিলেন বিপুল সংখ্যক মুসল্লী। ইজতেমা মাঠে কয়েক লক্ষ মুসল্লী একসাথে জুমার নামাজ আদায় করেন। শুক্রবার সকাল থেকেই সিলেট- সুনামগঞ্জ মহাসড়কের মোল্লারগাও ইউপির খিদিরপুর মাঠে লাখো মুসল্লীর ঢল নামে।

সকাল ৯টার পর থেকে দক্ষিন সুরমার চন্ডিপুল থেকে উত্তর সুরমার তেমূখী পর্যন্ত মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।এ সময় মুসল্লীরা পায়ে হেটে ইজতেমা মাঠে যান।

দুপুর ১১টা থেকে মুসলিম উম্মার শান্তি কামনা, হেদায়ত ও আখেরাত বিষয়ক বয়ান পেশ করা হয়।

দুপুর ১টায় জু’মার খুতবার মধ্য দিয়ে নামাজ শুরু হয়। নামাজ শেষে মোল্লারগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ মাহমুদ আলী, এক নারীসহ ছয়জনের জানাযা পড়ানো হয়।

শুক্রবার বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মুসল্লীদের সমাগম বাড়তে থাকে। সিলেট সুনামগঞ্জ সড়কের বাইপাস রোডের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার মোল্লারগাঁও ইউনিয়নের বাইপাস সড়ক সংলগ্ন ইজতেমা ময়দান শুক্রবার সকালেই ইজতমা মাঠ পুরোটা ভরে যায়। নালিদের জন্য আলাদা প্যান্ডেল না থাকায় ইজতেমায় ইবাদতের উদ্দেশ্যে আসা নারীরা প্যান্ডেলের পাশের বাড়িগুলোতে অবস্থান করে বয়ান শুনেছেন।

১১টি খিত্তায় ডেরা টানিয়ে মুসল্লীরা অবস্থান করছেন। প্রায় ১৫ লাখ বর্গ ফুট আয়তনের বিশাল প্যান্ডেল নির্মাণসহ ইজতেমা মাঠে বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত মুসল্লীদের জন্য ১১ টি খিত্তা ভিত্তিক ওজু-গোসলের জন্য ১১ টি ডিপ টিউবওয়েল ও ১২টি জলাধার স্থাপন করা হয়েছে।

নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য বিউবোর পক্ষ থেকে ২টি অস্থায়ী ট্রান্সফরমার স্থাপন করা হয়েছে। নির্মিত হয়েছে ১ হাজার ৮শ’টি অস্থায়ী শৌচাগার। একই সঙ্গে সিভিল সার্জনসহ দাতব্য সংস্থাগুলোর পক্ষ থেকে ইজতেমা ময়দানে মেডিকেল ক্যাম্প খোলা হয়েছে। অসুস্থ মুসল্লিদের খেদমতে রয়েছে আল মারকাজুল খায়েরি আল ইসলামির এম্বুলেন্স। রেডক্রিসেন্টের পক্ষ থেকেও স্বাস্থ্য সেবার জন্য একটি ক্যাম্প খোলা হয়েছে। এছাড়া, কয়েকটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজও সেখানে মেডিকেল ক্যাম্প খুলেছে।

তাবলীগ জামায়াতের সর্ববৃহৎ এই আয়োজনের নিরাপত্তার জন্য ইজতেমার ময়দানে রয়েছে আইনশৃংখলা বাহিনীর চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। থাকছে চেক পোস্ট, পিকেট পার্টি, খিত্তা ভিত্তিক পার্টি ও সাদা পোশাকের পুলিশ। এছাড়া র‌্যাব সদস্যরাও স্ট্যান্ডবাই ডিউটি করবেন জানিয়েছেন সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (মিডিয়া) জেদান আল মুসা।

তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে। সেই সঙ্গে পুলিশ সদস্যরা বাইনোকুইলারের মাধ্যমে পুরো এলাকার ওপর নজরদারি রেখেছে। পুলিশের পক্ষ থেকে সেখানে একটি ক্যাম্প, কন্ট্রোল রুম ও ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ করা হয়েছে বলে জানান তিনি। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ইজতেমা ময়দানে কয়েক লাখ মুসল্লীর সমাগম হয়েছে। আখেরী মোনাজাতে প্রায় ১০ লাখ মুসল্লীর সমাগম ঘটবে বলে জানান জেদান।

বিশ্ব ইজতেমার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় জেলা প্রশাসককে প্রধান করে একটি উপদেষ্টা কমিটি গঠন করা ছাড়াও কয়েকটি উপ-কমিটিও রয়েছে।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হলেন এডভোকেট লুৎফুর

 প্রকাশিত: ২০১৬-১২-২৮ ১১:৩৯:৪১

সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন এডভোকেট লুৎফুর রহমান। জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এ প্রার্থী আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

বুধবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সিলেটে ১৫টি কেন্দ্রের মধ্যে সব কয়টি কেন্দ্রের ভোটের বেসরকারি ফলাফলের ভিত্তিতে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন লুৎফুর রহমান।

আনারস প্রতীকে তিনি পেয়েছেন ৭৯৬টি ভোট।

লুৎফুর রহমানের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি শিক্ষাবিদ এনামুল হক সরদার। এসব কেন্দ্রে কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে ৫৫৩ ভোট পেয়েছেন তিনি।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত