যুক্তরাষ্ট্রে আজ সোমবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 09:33am

|   লন্ডন - 03:33am

|   নিউইয়র্ক - 10:33pm

  সর্বশেষ :

  মুশফিকের অনবদ্য ডাবল সেঞ্চুরি   প্রথম দিনে বিএনপির ১ হাজার ৩২৬টি মনোনয়নপত্র বিক্রি   ৪ হাজার ৩৬৭টি মনোনয়ন বিক্রি করেছে আ.লীগ, আয় ১৩ কোটি টাকা   সিডনিতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক নাটক ‘লিভ মি অ্যালন’ মঞ্চায়িত   ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানলের ভয়াবহতা বাড়ছেই, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩১   নির্বাচন এক সপ্তাহ পেছাল, ৩০ ডিসেম্বর ভোট   বিশ্বের সবচেয়ে সেক্সি পুরুষ ইদ্রিস এলবা   একটা গোলাপি হিরার দাম ৪১৮ কোটি!   ৩ আসনের জন্য মনোনয়ন ফরম কিনলেন খালেদা জিয়া   ইসরায়েলিদের গুলিতে হামাস কমান্ডারসহ নিহত ৭   প্রথম বিশ্বযুদ্ধ সমাপ্তির শতবর্ষ পূর্তিতে স্মরণানুষ্ঠান   ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করবে বিএনপিসহ ৮ দল   ঢাবির হলে ছাত্রদের বের করে কক্ষ দখল করল ছাত্রলীগ   ইতালিতে আইয়ুব বাচ্চু’র স্মরনে “রূপালী গিটার”   পেটারসনে ‘বাংলাদেশ বুলেবার্ড’ নামে সড়ক হচ্ছে

স্বদেশ


নির্বাচন এক সপ্তাহ পেছাল, ৩০ ডিসেম্বর ভোট

বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে আগামী একাদশতম জাতীয় সংসদ নির্বাচন পেছোনোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। আগামী ২৩ ডিসেম্বরের

২০১৮-১১-১২ ০২:৩০:২৬

বহিঃ বিশ্ব


প্রথম বিশ্বযুদ্ধ সমাপ্তির শতবর্ষ পূর্তিতে স্মরণানুষ্ঠান

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ অবসানের শতবর্ষ পূর্তির স্মরণানুষ্ঠান উপলক্ষে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে জড়ো হয়েছেন বিশ্বের প্রায় ৭০ দেশের রাষ্ট্র ও সরকার

২০১৮-১১-১২ ০০:৪৫:২৯

লস এঞ্জেলেস


যুবলীগের উদ্যোগে ক্যালিফোর্নিয়ায় ঐক্যবদ্ধভাবে শোক দিবস পালন

গত ১৯ আগস্ট রোববার লস এঞ্জেলেসের বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকা লিটল বাংলাদেশের বাংলাদেশ একাডেমী মিলনায়তনে ক্যালিফোর্নীয়া ষ্টেট আওয়ামী যুবলীগ ও

২০১৮-০৮-২৫ ১২:২৫:২৫


নিউইয়র্ক


মাহফুজুর রহমানের দাফন সম্পন্ন, জানাজায় শত শত মানুষ

ইউএনএ : দীর্ঘ প্রায় তিন বছরের মতো মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেছেন কমিউনিটির পরিচিত মুখ, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতা ও খুলনা

বিস্তারিত

ইউরোপের খবর


ব্রেক্সিট নিয়ে ইইউ’র সঙ্গে আপোস নয় : টেরিজা মে

নিউজ ডেস্ক : ব্রেক্সিট পরিকল্পনা নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সঙ্গে কোনো আপোস করা হবে না বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে।

রবিবার

বিস্তারিত


চাকরীর খবর


পদবী প্রতিষ্ঠান আবেদনের শেষ তারিখ
Account Executive Dental Health Services - San Diego/Orange County, CA ২০১৫-০২-১৩
AIRPORT GUIDE 0845 City of Los Angeles Personnel Department ২০১৫-০২-১২

আর্কাইভ

খেলাধুলা

মুশফিকের অনবদ্য ডাবল সেঞ্চুরি

নিউজ ডেস্ক : বড় ইনিংস খেলার অপেক্ষায় ছিলেন। দীর্ঘদিন ধরেই বলে আসছিলেন ইনিংস লম্বা করার কথা। ব্যাটে-বলে হচ্ছিল না। অনেক কাছে গিয়েও ব্যর্থ হচ্ছিলেন। তবুও দমে যাননি। নতুন করে আবার লড়াই শুরু। সেই লড়াইয়ে অবশেষে আসল সফলতা। অপেক্ষা ফুরাল মিরপুর শের-ই-বাংলায়।যে মাঠে ছিল না কোনো সেঞ্চুরি সেই মাঠেই গড়লেন ইতিহাস। পড়লেন রেকর্ড মালা। মহাকাব্যিক ইনিংস উপহার দিলেন মুশফিকুর রহিম।

বিশে^র একমাত্র উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি এখন মুশফিকুর রহিমের নামের পাশে। জ¦লজ¦ল করছে আরও কিছু অর্জন। বাংলাদেশের হয়ে বল ও মিনিটের হিসেবে দীর্ঘতম ইনিংস এখন তার দখলে। সেই সুবাদে টেস্টে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রানের ইনিংসটিতেও তার নাম।

তার ব্যাট যেদিন হাসে সেদিন হাসে পুরো বাংলাদেশও। আজও ব্যতিক্রম হল না। প্রথম দিনের ৩০৩ রানের সঙ্গে আজ বাংলাদেশ যোগ করল আরও ২১৯ রান। সব মিলিয়ে ঢাকা টেস্টে ৭ উইকেট হারিয়ে৫২২ রান তুলে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করল বাংলাদেশ। পড়ন্ত বিকেলে ১৮ ওভার ব্যাটিংয়ের সুযোগ পায় জিম্বাবুয়ে। ২৫ রান তুলতেই তারা হারিয়েছে অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজার উইকেট।

১১১ রানে সোমবার দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করেন মুশফিক। সঙ্গী মাহমুদউল্লাহ। শুরু থেকেই বেশ মন্থর ব্যাটিং তাদের। প্রথম ঘন্টায় ১৪ ওভারে রান মাত্র ২২। আর প্রথম সেশনে ৩০ ওভারে রান ৬২। কোনো উইকেট না হারিয়ে বিরতিতে যান দুই ‘ভায়রা’। মুশফিক অপরাজিত ১৩৫, মাহমুদউল্লাহ ৩৫।

দীর্ঘ সময় ধরে রান খরায় থাকা মাহমুদউল্লাহ ফিরে পেয়েছিলেন নিজের আত্মবিশ^াস। ব্যাট হাতে দ্যুতি ছড়াচ্ছিলেন। কিন্তু ৪০ মিনিটের বিরতির পর নিজের মনোযোগ ধরে রাখতে পারেননি। বিরতির পর ১ রান যোগ করে ফেরেন জারভিসের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে। পুল শটে বাউন্ডারি মেরে দারুণ শুরু করেছিলেন আরিফুল হক। কিন্তু উইকেট বিলিয়ে আসেন জারভিসের বলে। ৪ রান করা আরিফুলের উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো ৫ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েন জারভিস।

দুই ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে ফিরতে দেখেও বিচলিত হননি মুশফিক। দৃঢ় ব্যাটিংয়ে এগিয়ে যান ডাবল সেঞ্চুরিতে।ঘড়ির কাঁটায় যখন ১টা ৫৪ মিনিট তখন মুশফিকের নামের পাশে বাংলাদেশের দীর্ঘতম ইনিংসের রেকর্ড। ২০০০ সালে অভিষেক টেস্টে আমিনুল ইসলাম বুলবুল ৫৩৫ মিনিট ক্রিজে ছিলেন। আর মুশফিক অপরাজিত ৫৩৬ মিনিট।১৯৫ রানে অপরাজিত থেকে গিয়েছিলেন চা-বিরতিতে। চা-বিরতির পরপরই ছুঁয়ে ফেলেন ল্যান্ডমার্ক।

১৯৯ রানে এবার পথ ভুলেননি। কিছুদিন আগে এশিয়া কাপে ৯৯ রানে আউট হয়েছিলেন পাকিস্তানের বিপক্ষে। এবার ১৯৯ রানে থেকেই খেলেছেন ৬ বল। সপ্তম বলে পেয়েছেন ১ রান। ৪০৭ বলে মুশফিক পৌঁছলেন ডাবল সেঞ্চুরিতে। দুই হাত মেলে দৌড়ালেন অনেকদূর। হাতের থেকে পড়ে গেল ব্যাট। গ্লাভস খুলে আঁকলেন ভালোবাসার চিহ্ন। উদযাপন তখনও থামেনি। সিজদাহ করে সৃষ্টিকর্তার প্রতি শুকরিয়া আদায়। ড্রেসিং রুমের বাইরে তখন পুরো দল। হাত তালি দিয়ে মুশফিককের অর্জনকে নিয়ে যাচ্ছিলেন চূড়ায়। আর মিরপুরের গ্যালারিতে তখন একটাই নাম, মুশফিক-মুশফিক-মুশফিক।

মুশফিকের ডাবলের আগে মিরাজ ছুঁয়ে নেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্ট হাফ সেঞ্চুরি। এরপর দুজন দুহাত খুলে কড়া শাসন করেন জিম্বাবুয়ের বোলারদের। ব্যাটিং ধারাবাহিকতায় মুশফিক পৌঁছে যান ২১৯ রানে। ২০১৭ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২১৭ রান করেছিলেন। আজ সেই রান ছাড়িয়ে যান। সাথে আশরাফুলের রেকর্ডও। বলের হিসেবে মোহাম্মদ আশরাফুল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গলে খেলেছিলেন ৪১৭ বল। ২১৯ রানে মুশফিক যখন অপরাজিত থেকে ড্রেসিংরুমে ফিরছিলেন তখন তার নামের পাশে বলের সংখ্যা ৪২১, মিনিট ৫৮৯! ভাবা যায়।

প্রয়োজনের থেকে বেশি অনুশীলন ও পরিশ্রম করেন বলে সতীর্থদের কাছে মুশফিক সব সময় অনুপ্রেরণার আরেক নাম। এবার মুশফিক হয়ে গেলেন টার্গেট! সাদা পোশাকে বাংলাদেশের সবার উপরে তার নাম। তাকে ছাড়িয়ে যেতে সতীর্থদের করতে হবে বিরোচিত কিছু। ছোট গল্প অনেক পড়িয়েছেন মুশফিক। আজ পড়ালেন মহাকাব্য। অসাধারণ, দুর্দান্ত, নান্দনিক, দর্শনীয়, মহাকাব্যিক এ ইনিংসে শীতল হাওয়া বইছে ড্রেসিংরুমে।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

ইসলামী জীবন

২১ নভেম্বর পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশের আকাশে আজ ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র রবিউল আউয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। তাই আগামীকাল ১০ নভেম্বর শনিবার থেকে পবিত্র রবিউল আউয়াল মাস গণনা শুরু হবে।

সে হিসেবে আগামী ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরি, ২১ নভেম্বর ২০১৮ সারাদেশে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপিত হবে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মোকাররমস্থ সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমান।

সভায় ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র রবিউল আউয়াল মাসের চাঁদ দেখা সম্পর্কে সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়সমূহ, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর এবং মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান (স্পারসো) হতে প্রাপ্ত তথ্য নিয়ে পর্যালোচনা করে কমিটি এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

সভায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. খলিলুর রহমান, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মু. আ. হামিদ জমাদ্দার, তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. নজরুল ইসলাম, অতিরিক্ত প্রধান তথ্য কর্মকর্তা ফজলে রাব্বী, ঢাকা জেলার এডিসি (সাধারন) মো. শহিদুজ্জামান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সচিব কাজী নুরুল ইসলাম, স্পারসো’র মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা শাহ মো. মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

এলএবাংলাটাইমস/আইএল/এলআরটি

প্রবাসী কমিউনিটি

সিডনিতে কৃতী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা প্রদান করল রংধনু অজ-বাংলা কালচারাল সোসাইটি

সিডনি সংবাদদাতা : জাতি গঠনে মেধার মূল্যায়ন অপরিহার্য। দেশ ও জাতির উন্নতি করতে হলে মেধাবীদের সম্মাননা জানানো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন। সুদীর্ঘ এক দশক ধরে ধারাবাহিকভাবে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত কৃতী ছাত্র-ছাত্রীদের উৎসাহ-অনুপ্রেরণা যোগাতে কাজ করে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিস্থ 'রংধনু অজ-বাংলা কালচারাল সোসাইটি' সংগঠন ।

সংগঠনটির উদ্যোগে গত ৩ নভেম্বর ২০১৮ শনিবার সন্ধ্যায় লাকেম্বায় সিনিয়র সিটিজেন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয় এ বছরের সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা ও কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদেরকে এওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠান 'এনুয়্যাল ট্যালেন্ট এওয়ার্ড অব রংধনু'। সাংস্কৃতিক সম্পাদক তামান্না রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন হয়। বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে অনুষ্ঠানটির শুরু হয়। এরপর স্থানীয় শিশু-কিশোরদের দলীয় অংশগ্রহণে মনোমুগ্ধকর গান ও নাচ হয়। সাংস্কৃতিক পর্বটি পরিচালনা করেন তামান্না রহমান। একক গান পরিবেশন করে নাবিলা ও একক নৃত্যে দর্শকদের বিমোহিত করে তুলে অপ্সরা l দেশাত্মবোধক, আধুনিক ও পাহাড়ী গানে দলীয় নৃত্যের তালে সুর-ঝংকারে মঞ্চ মাতিয়ে তুলে কুমকুম, আদ্রিতা, এঞ্জেলা, আফসারা, আফরা, মারসিয়া, আদ্রিনা, জারাহ্, আয়শা, শার্লি, প্রিসিলা, ইশিকা, তালহা, ফারহানসহ আরও অনেকে। এদের প্রত্যেকের স্বত:স্ফূর্ত অংশগ্রহণ ছিলো এক কথায় অসাধারন নজর কাড়া। এ সময় উপস্থিত অতিথিদের সকলেই আনন্দে উচ্ছ্বসিত হোন এবং জোর করতালি দিয়ে প্রশংসা করেন।

 নৈশভোজের জন্য মধ্য বিরতি দিয়ে শুরু হয় দ্বিতীয় পর্ব। স্বাগত ব্ক্তব্য রাখেন সংগঠনটির বর্তমান সভাপতি এমএ ওয়াহাব মিয়া, ব্ক্তব্য রাখেন মো. আব্দুল মোতালিব। বিশেষ ব্ক্তব্য রাখেন অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের লাকেম্বা থেকে নির্বাচিত লেবার পার্টির এমপি জিহাদ ডিব। শুভেচ্ছা ব্ক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারন সম্পাদক লিংকন শফিকউল্লাহ। বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের ওয়েন্টওর্থভিল ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সুমন সাহা, ক্যান্টারবারী-ব্যাংকসটাউন এলাকার কাউন্সিলর লেবার পার্টির মোহাম্মদ নাজমুল হুদা ও লিবারেল পার্টির শাহে জামান টিটুও এ সময় সংক্ষিপ্ত ব্ক্তব্য রাখেন । এছাড়াও ব্ক্তব্য রাখেন ক্যাম্পবেল টাউন কাউন্সিলর মাসুদ চৌধুরী, এমএলসি মুভমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারপারসন নির্মল পালসহ প্রমুখ। এরপর শুরু হয় মেধা তালিকানুসারে অসামান্য ফলাফল অর্জনে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে পুরুষ্কার বিতরন।

Year 3 NAPLAN test-এ অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ৮ জন; ক্রমান্বয়ে তারা হচ্ছেন—ফারিজা হোসাইন, তালহা ইবনে শাহরিয়ার, অরুনিমা কবির জয়িতা, আরিব শাহরিয়ার, মরিয়ম আহমেদ, জয়নাহ ফাতিমা, এমডি জায়েদ ইবনে আলম, জারিফ খান, আমরিন হোসেন। এদের মাঝে পুরুষ্কার প্রদান করেন কাউন্সিলর সুমন সাহা। Year 5 NAPLAN test-এ অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ৪ জন; ক্রমান্বয়ে সাদাত শাখাওয়াত দিপ্র, ফারহান ইউসুফ, আয়ান হক ও রাইফ খানকে ট্রফি দিয়ে পুরুষ্কৃত করেন কাউন্সিলর নাজমুল হুদা। Year 7 NAPLAN test-এ অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ৫ জন—সানিহা বিনতে আসাদ, নুশাইবা আনজুম, তাহমিদ ওয়াসিম, রুবাইয়েত শিকদার, হামদান আহমেদ কে পুরুষ্কার দিয়ে অনুপ্রাণিত করেন কাউন্সিলর শাহে জামান টিটু। Year 9 NAPLAN-এ কৃতী ফলাফলের জন্য ৪ জন মনোনীত হয়, যথাক্রমে তারা হলেন - ইলহাম হক, ফারহান শফিক, আরিয়ান জামান, আরফি হক।  OC test-এ কৃতিত্বের সাথে ভালো ফলাফলের জন্য ৬ জন শিক্ষার্থীকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। তারা হলেন আলিফ হোসাইন সিদ্দিকী, জারিফ ফাইয়াজ উদ্দিন, মাহির দাইয়ান, সাহিব আলম, মালিহা তাসনিম, হাসনাইন আবিজ। মেধাবী এই শিক্ষার্থীদেরকে পুরুষ্কার তুলে দেন কাউন্সিলর মাসুদ চৌধুরী। Selective test-এ সাফল্যের সাথে মেধাবী ফলাফলের জন্য ১৬ জন কৃতী শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। তারা হলেন - সামিদ হাসান, ইউসা রহমান কবির, আলিনা কাজী, নির্ভানা তালুকদার, সামিয়া ইসলাম, সামরিন সৈয়দ, সুমাইয়া সুলতানা, অনুরঙ হৃদ কবির, রাফসান রাইয়ান, শাফি আহমেদ, তানিশা জামান, জিয়ান জোহর, আদ্রিতা রহমান, মির জাহিন হাসান, রাদ শাহমত হোসেন, সুহাস কবির। HSC-তে মেধা স্থান অর্জনকারীদের মধ্যে আমির মোহাম্মদ মোস্তাফী অন্যতম। Selective ও HSC-তে কৃতিত্বপূর্ন এ ফলাফলের জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে ক্রেস্ট প্রদান করেন এমপি জিহাদ ডিব।
এছাড়াও ভিন্ন ভিন্ন প্রশংসনীয় কাজে সম্মাননাস্বরুপ ক্রেস্ট প্রদান করা হয় সাফল্য অর্জনকারীদের মধ্যে। তারা হচ্ছেন—রোবোটিক্সে নাবিলা স্রোতস্বিনী, ব্যাডমিন্টনে যৌথভাবে নার্গিস বানু ও নাবিলা বানু। আর্টে পুরুষ্কার গ্রহণ করেন আয়াস আহসান, নাচে নেফিউ আহসান, ইলমা খান পুরুষ্কার প্রাপ্ত হন অংক প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হিসেবে। মারসুর আহসান বই লিখে সম্মাননা অর্জন করেন। হায়াত মাহমুদ সম্মাননা গ্রহণ করেন কবিতা লিখে। এহসান রেজাকে নজরুল সঙ্গীতের উপর সম্মাননা দেওয়া হয়। লাবিব মাহমুদ'কে ক্রিকেট, আদিল শরিফ ও একেএম আবু শহিদকে ব্যাডমিন্টনে পুরুষ্কৃত করা হয় এবং নির্মল পালকে বাংলা ভাষাকে গুরুত্বারোপ করে কমিউনিটিতে বিশেষ অবদানের জন্য নির্মল পালকে সম্মানিত করা হয়। উল্লেখ্য, এ বছরই বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে মোট ৬০ টি পুরুষ্কার বিতরন করা হয়।

সবশেষে ছিলো অতিথি ও আয়োজকবৃন্দের সাথে কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের ফটোসেশন পর্ব।
অনুষ্ঠানটিকে সার্বিকভাবে সফল করে তোলার জন্য উপস্থিত সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন  লিংকন শফিকউল্লাহ। তিনি জানান—সিডনির নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যে বসবাসকারী বাংলাদেশী ছাত্র-ছাত্রীদের যে কেউ যথাযথ নিয়ম মেনে আগামীতে এ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারবে। কৃতী শিক্ষার্থীদের উৎসাহ-অনুপ্রাণিত করার জন্যই সংগঠনটির একমাত্র প্রয়াস। রংধনু আয়োজিত 'এনুয়্যাল ট্যালেন্ট এওয়ার্ড অব রংধনু' অনুষ্ঠানটি সাফল্য করে তুলতে প্রধান সহযোগিতায় ছিলো অস্ট্রালবিল্ট (Australbuilt) ও অন্যান্যদের মধ্যে লিংকার্স ডেভলপমেন্ট (Linkers Development), ডেল্টা ল্যান্ডস্কেপিং (Delta landscaping), সিডনি ফুড (Sydney Food), উইজডম ল (Wisdom Law), বাংলা হেয়ার (Bangla Hair), ল্যান্ড এন্ড লিজ (Land & Lease) এবং গোল্ডেন ফাইবার (Golden Fibre Australia)l

লস এঞ্জেলেস

যুবলীগের উদ্যোগে ক্যালিফোর্নিয়ায় ঐক্যবদ্ধভাবে শোক দিবস পালন

নিউজ ডেস্ক : গত ১৯ আগস্ট রোববার লস এঞ্জেলেসের বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকা লিটল বাংলাদেশের বাংলাদেশ একাডেমী মিলনায়তনে ক্যালিফোর্নীয়া ষ্টেট আওয়ামী যুবলীগ ও লসএঞ্জেলেস সিটি যুবলীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী যথাযথ শোক ও শ্রদ্ধায় পালন করা হয়। আলোচনা সভা ও দোয়ার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সংগ্রামী যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জনাব মন্‌জুর আলম শাহীন। দোয়া অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ক্যালিফোর্নিয়া ষ্টেট আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মিয়া আব্দুর রব।

উল্লেখ্য, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট অতিপ্রত্যুষে ঘটেছিল ইতিহাসের সেই কলঙ্কজনক ঘটনা। জাতীয় আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে সেনাবাহিনীর কিছু উচ্ছৃঙ্খল ও বিপথগামী সৈনিকের হাতে স্বপরিবারে প্রাণ দিয়েছিলেন বাঙালির ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ সন্তান, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এই নৃশংস হামলার ঘটনায় আরো যারা প্রাণ হারিয়েছিলেন তারা হলেন: বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, পুত্র শেখ কামাল, শেখ জামাল, শেখ রাসেল, পুত্রবধূ সুলতানা কামাল, রোজী জামাল, ভাই শেখ নাসের ও কর্নেল জামিল, বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা শেখ ফজলুল হক মনি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, শহীদ সেরনিয়াবাত, শিশু বাবু, আরিফ রিন্টু খানসহ অনেকে। আগস্ট মাসটি তাই বাংলাদেশের মানুষের কাছে শোকের মাসে পরিণত হয়েছে। বর্তমান সরকার ইতিহাসের বেদনাবিধুর ও বিভীষিকাময় এই দিনটিকে জাতীয় শোক দিবস ঘোষনা করেছে।

 

সারা বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাংলাদেশিরা যথাযথ শ্রদ্ধা ও শোকে নানা কর্মসূচির মাধ্যমে দিনটি পালন করে থাকেন। তারই ধারাবাহিকতায় লস এঞ্জেলেসেও বিভিন্ন সংগঠন নানারকম কর্মসুচি পালনের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করছে। ক্যালিফোর্নীয়া ষ্টেট আওয়ামী যুবলীগের উদ্যোগেও ১৯ আগষ্ট রবিবার সন্ধ্যা ৭ টায় লিটল বাংলাদেশের বাংলাদেশ একাডেমী মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

ক্যালিফোর্নিয়া ষ্টেট আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি সুবর্ন নন্দী তাপসের সভাপিতত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম চৌধুরীর পরিচালনায়, লসএঞ্জেলেস সিটি আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি আলমগীর হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান ইমরান এর সার্বিক তত্তাবধানে এবং সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন নুরে আলম সিদ্দিকী(সহ-সভাপতি, ক্যালিফোর্নিয়া ষ্টেট আওয়ামী যুবলীগ), শ্যামল মজুমদার(সাংগঠনিক সম্পাদক, ক্যালিফোর্নিয়া ষ্টেট আওয়ামী যুবলীগ), শংকর সরকার(প্রচার সম্পাদক, ক্যালিফোর্নিয়া ষ্টেট আওয়ামী যুবলীগ), বিভুতী বড়ুয়া(গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক, ক্যালিফোর্নিয়া ষ্টেট আওয়ামী যুবলীগ), শায়লা রুমী(সাংস্কৃতিক সম্পাদক, ক্যালিফোর্নিয়া ষ্টেট আওয়ামী যুবলীগ) অসীম দাম, শচীন মন্ডল, বাবু ভুইয়ান(সহ-সভাপতি, লসএঞ্জেলেস সিটি আওয়ামী যুবলীগ), অনির্বান সাহা টিটো(দপ্তর সম্পাদক, লসএঞ্জেলেস সিটি আওয়ামী যুবলীগ), হিমেল হাসান,  দীলিপ শর্মা(পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক,লসএঞ্জেলেস সিটি আওয়ামী যুবলীগ), শেখ নোমান(আইন বিষয়ক সম্পাদক, লসএঞ্জেলেস সিটি আওয়ামী যুবলীগ), হাসনাত কবির ভুইয়া (গ্রন্থনা ও প্রচার সম্পাদক, লসএঞ্জেলেস সিটি আওয়ামী যুবলীগ) সহ আরও অনেকে।


এছাড়াও শোক সভা ও দোয়া মাহফিলে, সভাপতি তৌফিক সোলেমান খান তুহিন এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ- ক্যালিফোর্নিয়া শাখা, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির খানের নেতৃত্বে ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট আওয়ামীলীগ, সভাপতি শাহ আলম খান চৌধুরীর নেতৃত্বে ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট মহিলা আওয়ামীলীগের অসংখ্য নেতাকর্মীসহ বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পক্ষের সর্বস্তরের মানুষ উপস্থিত ছিলেন । শোক সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা, বঙ্গবন্ধুর দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সহকর্মী, সাবেক জাতীয় পরিষদ সদস্য ও সংসদ সদস্য, সুপ্রিম কোর্টের খ্যাতিমান আইনজীবী, প্রখ্যাত পার্লামেন্টারিয়ান, মাদারীপুর জেলার বাকশালের গভর্নর ও শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবিদুর রেজা খানের সুযোগ্য সন্তান হাসান রেজা খান।


বিনোদন


সিডনিতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক নাটক ‘লিভ মি অ্যালন’ মঞ্চায়িত

কাজী সুলতানা শিমি, অস্ট্রেলিয়া : বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে নির্মিত মঞ্চনাটক ‘লিভ মি অ্যালন’মঞ্চায়িত হয়েছেগত ১০ নভেম্বর সিডনির ওয়াইলিপার্কের অ্যাম্ফিথিয়েটারে।

বিস্তারিত

রান্নাবান্না


বাসায় তৈরি করুন বোরহানি

নিউজ ডেস্ক : অনেকে বোরহানি খেতে খুবই পছন্দ করেন। আবার কোনও কোনও সময় দেখা যায় পছন্দ না করলেও পরিবারের সদস্যদের জন্য বোরহানি আনতে হয় বাইরে থেকে। তবে নিজে এটা

বিস্তারিত


লন্ডন

নিউইয়র্কে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের আলোচনা সভা

নিউজ ডেস্ক : ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতায় ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক সাতই মার্চের মতো ‘মুজিবনগর সরকার’ প্রতিষ্ঠার ঘটনাও ঐতিহাসিক। ১৯৭১ সালের  ১৭ এপ্রিল শেখ মুজিবের অনুপস্থিতিতে মেহেরপুরের আ¤্রকাননে জাতীয় নেতা নজরুল ইসলামকে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি আর তাজউদ্দিন আহমদকে প্রধানমন্ত্রী করে বাংলাদেশ সরকার গঠন করা হয়। সেই দিনের সরকার গঠনের সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের স্বাধীনতার আন্দোলনকে তড়ান্বিত করে। বক্তাদের কেউ কেউ বাংলাদেশের রাজধানী মুজিবনগর করার দাবী এবং আগামী নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগকে পু:ননির্বাচিত করে দেশের উন্নয়নের ধারা আব্যাহত রাখতে ভূমিকা রাখার জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান।

সভায় বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সদস্য অধ্যাপক ডা. এম হাবীবে মিল্লাত মুজিবনগর দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বলেন, বাংলাদেশের সর্বত্রই উন্নয়নের জোয়ার বইছে। দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে হবে। আর এজন্য শুধু আওয়ামী লীগ সমর্থকদের ভোট পেলেই চলবে না, দেশের সংখ্যাগরিষ্ট লোকের ভোট দরকার। কেননা, আওয়ামী লীগ-বিএনপি’র সমর্থকদের বাইরেও বিপুল সংখ্যক ভোটার রয়েছেন। তাদেরকে নৌকার পক্ষে ভোট দিতে প্রবাসীদের অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে।

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন উপলক্ষে গত ১৬ এপ্রিল সোমবার রাতে জ্যাকসন হাইটসের জুইস সেন্টারে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ব্যানারে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সিরাজগঞ্জ-২ আসন (সদর-কামারখন্দ)-এর সদস্য প্রফেসর ডা. হাবীবে মিল্লাত। সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদের অন্যতম সদস্য শরীফ কামরুল আলম হীরা। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্বদ্যিালয়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক ডা. শরাফ উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ ক্যান্সার সোসাইটির সভাপতি ড. প্রফেসর ওয়াহেদ উল্লাহ বাকী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম উপদেষ্টা ড. মহসীন আলী, ডা. মাসুদুল হাসান, ড. প্রদীপ রঞ্জন কর, তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী, বদরুল হোসেন খান ও হাকিকুল ইসলাম খোকন, জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সমন্বয়কারী ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহিম বাদশা, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ড. আবদুল বাতেন, মুক্তিযোদ্ধা সরাফ সরকার ও নিউইর্য়ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুর রহমান রফিক, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের আহবায়ক তারেকুল হায়দার চৌধুরী।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীর সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দলের কার্যকরী পরিষদের সদস্য ও গোপালগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হিন্দাল কাদির বাপ্পা, মুক্তিযোদ্ধা বিএম বাকির হোসেন (হিরু ভূইয়া), মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হোসাইন, শেখ হাসিনা মঞ্চের সভাপতি জালাল উদ্দিন জলিল, আওয়ামী লীগ নেতা ওয়ালী হোসেন, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সহ সভাপতি মঞ্জুর চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি দুরুদ মিয়া রনেল, নিউইর্য়ক মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সাইকুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জেডএ জয়,  সহ সভাপতি শহিদুল ইসলাম, শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ ইউএস’র সভাপতি লিপটন এবং নিউইয়র্ক প্রবাসী ও সিরাজগঞ্জের কামারকন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আবদুল মজিদ মন্ডল ।

সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জিনাত বেগম এবং গীতা থেকে পাঠ করেন গনেশ কির্ত্তনীয়া। এরপর ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুুজিবনগর সরকারের নেতৃবৃন্দ সহ সকল শহীদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। পরে সঙ্গীত শিল্পী রোকেয়া খানমের নেতৃত্বে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। এছাড়াও জিনাত বেগম একটি কবিতা আবৃত্তি করেন।

অনুষ্ঠানে উল্লাপাড়া সমিতি ইউএসএ, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিকলীগ ও যুবলীগের পক্ষ থেকে ডা. হাবীবে ডা. মিল্লাত এমপি-কে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।
সভায় ডা. হাবীবে মিল্লাত বলেন, মুজিবনগর সরকারের তাৎপর্য উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, দিবসটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এক অনন্য দিন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ১৭ এপ্রিল মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলা গ্রামের আ¤্রকাননে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ গ্রহণ করে। আর স্বাধীনতা সংগ্রামের সেই কঠিন মুহুর্তে মুজিবনগর সরকার বাঙালীর স্বাধীনতা আন্দোলনের ন্যয়সঙ্গত অধিকারের পক্ষ্যে বহির্বিশ্বে জনমত গঠন ও বিভিন্ন রাষ্ট্রসমূহের সমর্থন আদায়ে মূল ভূমিকা পালন করে।
ডা. হাবীবে মিল্লাত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডের সংক্ষিপ্ত বিবরণ তুলে ধরে বলেন, বিএনপি-জামায়াত অপশক্তি উন্নয়নের প্রধান শত্রু। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নির্বাচিত না হলে দেশ আবারো পিছিয়ে যাবে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষার্থে তিনি বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগকে আবারো বিজয়ী করার আহবান জানান।

নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগ, মহানগর আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগ, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র শেখ হাসিনা মঞ্চ, যুক্তরাষ্ট্র  মহিলা আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র শেখ কামাল স্মৃতি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের সহযোগিতায় ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় বলে সভায় উল্লেখ করা হয়। 


এলএবাংলাটাইমস/এনওয়াই/এলআরটি

মধ্য প্রাচ্যের খবর

জামাল খাশোগির ছেলেকে দেশ ত্যাগ করতে দিল সৌদি

নিউজ ডেস্ক : তুরস্কের সৌদি কনসুলেটের ভেতর খুন হওয়া সাংবাদিক জামাল খাশোগির জ্যেষ্ঠ ছেলে সালাহ দেশ ছেড়ে বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছেছেন। সৌদি-মার্কিন দ্বৈত নাগরিক সালাহর ওপর রিয়াদের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ছিল। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে চাপ প্রয়োগ করার পর বুধবার তাকে স্বপরিবারে দেশত্যাগের সুযোগ দেয় সৌদি।

বৃহস্পতিবার সালাহ ওয়াশিংটনে পৌঁছেছেন বলে তার পরিবার সংশ্লিষ্ট দুটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। তার মা ও তিন ভাইবোন আগেই সেখানে অবস্থান করছিলেন।

সালাহ যুক্তরাষ্ট্রে এসে পৌঁছানোর কয়েক ঘণ্টা পর মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহকারী মুখপাত্র রবার্ট পালাদিনো জানান, সালাহর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে পম্পেও রিয়াদকে অনুরোধ জানিয়েছিলেন। পম্পেও সৌদি নেতাদের বলেছিলেন,‘তিনি চান সালাহ খাশোগি যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে আসুক।’

মুখপাত্র রবার্ট পালাদিনো জানান, ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলের কনসুলেটের ভেতর কী ঘটেছিল, তা জানতে সৌদি আরবের ওপর চাপ অব্যাহত রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র।

তিনি বলেন, ‘জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডে দায়ীদের জবাবদিহিতার আওতায় আনতে আমরা মার্কিন কংগ্রেসের সঙ্গে পরামর্শ এবং অন্যান্য দেশের সঙ্গে কাজ করতে  ইচ্ছুক।’

এলএবাংলাটাইমস/এমই/এলআরটি

বিজ্ঞাপন

লাইফ স্টাইল


শিশুদের কার্টুনের আসক্তি দূর করতে যা করবেন

নিউজ ডেস্ক : এখনকার শিশুরা কার্টুন দেখতে খুব পছন্দ করে। তবে এটা আসক্তির পর্যায়ে গেলে কিছু সমস্যা দেখা দেয়। এর মধ্যে অন্যতম একটি হলো কার্টুন না চালালে তারা

বিস্তারিত

নামাযের সময়সূচি

জনমত জরিপ


আইটি

নাটোরে বিনামূল্যে আইটি প্রশিক্ষণ দেবে পিপলএনটেক

নিউজ ডেস্ক : হাইটেক পার্কের সহযোগিতায় সম্পূর্ণ বিনামূল্যে নাটোরে আইটি বিষয়ক প্রশিক্ষণ দিবে পিপলএনটেক। এর ফলে, নাটোরের ছাত্র-ছাত্রীরা তাদের নিজস্ব জেলায় ঢাকার মত করেই প্রযুক্তি প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবে।এই প্রজেক্টের আওতায় পিপলএনটেক মূলত দুটি বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ দিবে। ১. গ্রাফিক্স ডিজাইন ২. ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট। পিপলএনটেকে এর ডিরেক্টর লায়ন মোঃ ইউসুফ খান জানিয়েছেন, "শুধুমাত্র প্রশিক্ষণ নয়, প্রশিক্ষণ শেষে ভাল ছাত্রছাত্রীদের চাকরীর ব্যাবস্থা করে দেওয়া হবে'

পিপলএনটেক যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি প্রযুক্তি প্রশিক্ষন ইন্সটিটিউট, যারা নিউইয়র্ক, ভার্জিনিয়া আর কানাডার টরেন্টো সহ ৭ টি ক্যাম্পাসের মাধ্যমে প্রায় দেড় দশক ধরে প্রযুক্তি প্রশিক্ষন ও জর প্লেসমেন্ট (চাকুরীর নিশ্চয়তা) নিয়ে কাজ করছে। বাংলাদেশে তাদের কার্যক্রম ছড়িয়ে দেয়ার প্রাথমিক পদক্ষেপ হিসেবে এই হাইটেক আইটি পার্কে প্রশিক্ষন শুরু করছে।

বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠানটির ডিরেক্টর,  লায়ন মোঃ ইউসুফ খান জানিয়েছেন, "আমরা ধারাবাহিকভাবে এই প্রশিক্ষন দিয়ে থাকি। বর্তমান প্রজন্মকে আইটি ও ডিজিটাল ধারনার বিষয়গুলোকে আরো সহজলভ্য ও সুবিধাজনক করতে আমাদের এই প্রচেষ্টা। প্রশিক্ষনের মাধ্যমে যারা ভালো ফলাফল করে থাকে তাদের ভবিষ্যতে আরো ভালো অবস্থানে নেওয়ার জন্য পিপলএনটেক কাজ করে যাচ্ছে।"

নাটোরের এই হাইটেক পার্কে আইটি কার্যক্রম উদ্বোধন উপলক্ষে, জনার্কীর্ন জমায়েতে, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্য মীর তোফাজ্জেল হোসেন বলেন,  মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে পিপলএনটেক এর এই কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানাচ্ছি। এই প্রশিক্ষনের মাধ্যমে যারা ভালো করবে তাদের ভালো  চাকরির নিশ্চয়তা গড়ে উঠবে। বর্তমানে বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে ও শেখ হানিসার পরিচালনাতে এগিয়ে নিতে তথ্য-প্রযুক্তির কোন বিকল্প নেই।"

পিপলএনটেক এর ব্যাবস্থাপক আবদুল হামিদ বলেন, পিপলএনটেক নাটোরে প্রশিক্ষনের মধ্য দিয়ে নতুন প্রজন্মের কাছে তথ্য-প্রযুক্তির বিষয়কে আরো সহজ করে তুলে ধরবে। এছাড়া ঢাকাতে প্রশিক্ষনের জন্য যেসব সুযোগ-সুবিধা প্রদান করা হয় তার সবগুলো সুযোগ সুবিধা নাটোরে দেওয়া হবে। 

তিনি জানান,  পিপলএনটেক আন্তর্জাতিক মানের প্রতিষ্ঠান, যা গত চৌদ্দ বছর ধরে আমেরিকাতে প্রশিক্ষণ দিয়ে ৫০০০ এর অধিক শিক্ষার্থীদের চাকরি নিশ্চিত করেছে। বর্তমানে পিপলএনটেক আমেরিকা, কানাডা, ইন্ডিয়া ও বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। বাংলাদেশে বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ দিয়ে চাকুরীর ব্যবস্থা করে চলছে পিপলএনটেক।

শেখ কামালের আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টারের প্রজেক্টের আওতায় এই স্বনামধন্য প্রতিষ্টানটি প্রশিক্ষণ দিবে নাটোরর শেখ কামাল, আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টারে।গত ১৩সেপ্টেম্বর ২০১৮ সালে,তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি এই শেখ কামাল আইটি  ট্রেনিং এবং ইনকিউবেশন সেন্টার উদ্বোধন করেন।

আগ্রহী প্রার্থীদের রেজিস্ট্রেশনের জন্য ক্লিক করতে হবেঃ https://goo.gl/JnpnC1

নিয়মাবলী ও শর্তাবলীঃ

-      এই লিংকের মাধ্যমে আবেদন করতে হবেঃ https://goo.gl/JnpnC1

-      আগ্রহী প্রার্থীদের অবশ্যই এস.এস.সিতে পাশ করতে হবে

-      একজন প্রার্থী সর্বোচ্চ একটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিতে পারবেন

-      একজন প্রশিক্ষণার্থীর লিখিত এবং ভাইভাতে অংশগ্রহণ করতে হবে। ভাইভার পর একজন প্রশিক্ষণার্থী বাচাই করা হবে

-      প্রশিক্ষণার্থীর নির্বাচনের ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের সিদ্বান্ত চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে

আরো বিস্তারিত জানতেঃ +88018859811259

অথবা ভিজিট করুনঃ www.piit.us, www.peoplentech.com

এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি



সুস্থ থাকুন

যে চারটি কারণে বেশি ঘুমানো প্রয়োজন

নিউজ ডেস্ক : বিশ্বজুড়ে বেশিরভাগ মানুষের ক্ষেত্রে ঘুমের পরিমাণ দিন দিন কমছে। বিশেষ করে উন্নত দেশগুলোতে এই সমস্যা অনেক বেশি। কিছু কিছু উন্নয়নশীল দেশেও সমস্যাটি দেখা যাচ্ছে। ঠিকমতো যথেষ্ট পরিমাণ না ঘুমানোয় স্বাস্থ্যসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে পড়ছে নেতিবাচক প্রভাব।

প্রতিদিন বেশি পরিমাণে ঘুমালে বেশ কিছু উপকার পাবেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হলো-

স্মৃতিশক্তি
ঠিকমতো বেশি পরিমাণে ঘুমালে স্মৃতিশক্তি বাড়বে। এতে সব কাজ করতে পারবেন সহজেই। এছাড়া ঘুমের পরিমাণ বাড়ালে যেকোনও কিছু শেখার দক্ষতা বৃদ্ধি পায়। রাতে পড়ালেখা শেষ করে যদি সময়মতো ঘুমাতে পারেন, তাহলে সেগুলো আপনার স্মৃতিতে খুব ভালোভাবে সংরক্ষিত থাকবে। এছাড়া পড়তে বসার আগেও ঘুম খুবই কার্যকরী। এতে আপনার পড়ার বিষয়টি দ্রুত বুঝতে পারবেন।

সৃজনশীলতা
প্রতিদিন বেশি পরিমাণে ঘুমালে সৃজনশীলতা বাড়ে। আপনি যদি সৃজনশীল কোনও কাজে যুক্ত থাকেন, তাহলে অবশ্যই বেশি ঘুমানোর চেষ্টা করুন। দেখবেন কাজ অনেক সহজ হয়ে গেছে।

স্বাস্থ্য
উন্নত বিশ্বে যেসব রোগে মানুষ বেশি মারা যাচ্ছে সেগুলোর সাথে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে ঘুমের সম্পর্ক রয়েছে। ক্যানসারের সঙ্গেও ঘুম জড়িত। যারা কম ঘুমায়, তাদের ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

প্রত্যাশিত আয়ু
অল্প সময় ঘুমালে মৃত্যুহার বাড়ে। এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, যারা অল্প সময় ঘুমান তারা অন্যদের চেয়ে কম বয়সে মারা যান। এ কারণে প্রতিদিন যথেষ্ট পরিমাণ ঘুমাতে হবে। তাহলে আপনার প্রত্যাশিত আয়ু বাড়বে।

এলএবাংলাটাইমস/এইচ/এলআরটি

ফটো গ্যালারি

জনপ্রিয় পত্রিকাসমূহ

কলাম

ওরা বাংলাভাষার অবমাননা করেছে

সিরাজী এম আর মোস্তাক : একজন নারীকে চরিত্রহীন বলায় ব্যারিষ্টার মঈনুলকে আটক করা, বাংলাভাষার সুস্পষ্ট অবমাননা। ব্যারিষ্টার মঈনুল টকশোতে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির বিব্রতকর প্রশ্নে তাকে চরিত্রহীন বলতে চেয়েছেন। তাকে চরিত্রহীনা বলেননি। চরিত্রহীন শব্দটি পুংলিঙ্গবাচক আর মাসুদা ভাট্টি স্ত্রীবাচক এবং বাস্তবেও একজন ভদ্র মহিলা। চরিত্রহীন শব্দটি সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। তবে বেপরোয়া আচরণ ও সাংবাদিকতা পেশা বুঝাতে তাঁর ক্ষেত্রেও পুংলিঙ্গবাচক (চরিত্রহীন) শব্দ ব্যবহার করা যায়। ব্যারিষ্টার মঈনুল তাই করেছেন। তিনি বাংলা ভাষায় মোটেও অজ্ঞ নন। তিনি মাসুদা ভাট্টির নারীত্ব বুঝালে, অবশ্যই চরিত্রহীনা বলতেন। টকশোর ঘটনা বিশ্লেষণে দেখা যায়, সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি ব্যারিষ্টার মঈনুলকে আপত্তিকর প্রশ্নে বিব্রত করার চেষ্টা করেন। প্রত্যুত্তরে ব্যারিষ্টার মঈনুল বলেন, ‘দুঃসাহসের জন্য আমি আপনাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি। আপনি চরিত্রহীন বলে আমি মনে করতে চাই।’ টকশোর শেষ পর্যায়ে সাংবাদিক মাসুদা উক্ত শব্দ নিয়ে আপত্তি করলে ব্যারিষ্টার মঈনুল বিস্মিত হন এবং জিজ্ঞাসা করেন, আপনি কাকে চরিত্রহীন বলছেন? অর্থাৎ ব্যারিষ্টার মঈনুল চরিত্রহীন শব্দ দ্বারা সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি বা তাঁর নারীত্ব বুঝাননি। তিনি নারীত্ব বুঝালে, অবশ্যই চরিত্রহীনা বলতেন।

অনেকে বলেন, বাংলা ভাষায় লিঙ্গান্তর আবশ্যক নয়। তাই সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন বলায়, তাতে নারী জাতির অবমাননা হয়েছে। এবিষয়টি শুধুমাত্র বিশেষ্য ও পদবিবাচক শব্দের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। যেমন- প্রধানমন্ত্রী, সচিব, অধ্যক্ষ ইত্যাদি। এসমস্ত শব্দে স্ত্রীলিঙ্গ আবশ্যক নয়। এছাড়া বিশেষণ বা গুণবাচক শব্দে লিঙ্গান্তর একান্তই আবশ্যক। যেমন, যদি বলা হতো ব্যারিষ্টার মঈনুল অসতী বা চরিত্রহীনা পুরুষ। এটি কি সঠিক হতো? এতে কি পুরুষ জাতির অবমাননা হত? কখনোই নয়। ঠিক এভাবে মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন বলায় তাঁর নারীত্ব বুঝায়না। এতে নারী জাতির অবমাননা হয়না। মূলত আমাদের দেশের রাজনীতিবিদ ও নারীসমাজ বাংলাভাষা তেমন বোঝেননা। তারা সম্পুর্ণ অজ্ঞতাবশত ব্যারিষ্টার মঈনুলের বিরূদ্ধে মামলা করেছেন। তাদের এ অজ্ঞতায় বাংলাভাষার অবমাননা হয়েছে। আরো কলঙ্ক বেড়েছে, এদেশের বিচারকদের ভাষাগত অজ্ঞতার ফলে। বিচারকদের উচিত ছিল, বিষয়টি ভালোভাবে বিশ্লেষণ করা। তারা কিভাবে চরিত্রহীন শব্দকে স্ত্রীলিঙ্গ বিবেচনা করলেন এবং ব্যারিষ্টার মঈনুলকে আটকের আদেশ দিলেন? হয়তো উক্ত বিচারকগণ বিশেষ কোটায় নিয়োগ পেয়েছেন। এটি দেশ ও জাতির জন্য চরম লজ্জার।

টকশোতে মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন বলায় যে নারীগণ ব্যারিষ্টার মঈনুলের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তারা আদৌ জানেননা, চরিত্রহীন শব্দটি কোন লিঙ্গের? তবু তাদের আঁতে ঘা লাগল কেন? টকশোর মতো কথার বাজারে একটিমাত্র (চরিত্রহীন) শব্দের জন্য তারা এতো ক্ষুব্ধ কেন? এ একটি শব্দের জন্য ব্যারিষ্টার মঈনুল আটক আছেন এবং বহু মামলা মোকাবেলা করছেন। অথচ প্রবাসী লেখিকা তসলিমা নাসরিন সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির বিরূদ্ধে আরো জঘন্য ভাষায় লিখেছেন। তবু তাঁর বিরূদ্ধে মামলা হয়নি কেন? বিষয়টি সংশয়ের। প্রকৃতপক্ষে যে সকল নারী চরিত্রহীন শব্দকে স্ত্রীলিঙ্গ বিবেচনা করেছেন, ওরা নারী জাতির কলঙ্ক। ওরা ওদের কলঙ্ক বাংলাভাষাতেও লেপন করতে চায়।

বাংলাদেশে বাংলাভাষার এমন পন্ডিত নেই, যারা আলোচ্য অবমাননার প্রতিবাদ করবে। তাই বাংলা ভাষাভাষী সকল নাগরিকের কাছে আবেদন- আপনারাই বিবেচনা করুন, সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির ক্ষেত্রে চরিত্রহীন শব্দটি প্রযোজ্য কিনা? চরিত্রহীন শব্দের দ্বারা নারী জাতির অবমাননা হয় কিনা? চরিত্রহীন শব্দটি স্ত্রীলিঙ্গ হলে, এর পুংলিঙ্গ কি হবে? এবিষয়ে ব্যারিষ্টার মঈনুলকে আটক করা বৈধ কিনা? এ জঘন্য ঘটনা বাংলা ভাষার অবমাননা কিনা? যারা রক্তের বিনিময়ে অর্জিত মাতৃভাষা বাংলার অবমাননা করেছে, তাদের শাস্তি কি? ওদেরকে শাস্তি না দিলে, ওরা বাংলাভাষার অবমাননা করতেই থাকবে। ফলে, আমরা আমাদের মাতৃভাষার ঐতিহ্য ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি সবই হারাবো।

টুকিটাকি খবর

মালদ্বীপে সাগরের নিচে চালু হলো বিশ্বের প্রথম আবাসিক হোটেল

নিউজ ডেস্ক : আপনি সাগরের পানির নিচে অবস্থান করছেন। চারপাশে শুধু নীল জলরাশি। সেখানেই ছিমছাম একটি কক্ষে বিছানায় শুয়ে মাছের ঝাঁকসহ অন্যান্য সামুদ্রিক প্রাণী দেখছেন। কখনও তাদের উদ্দেশে হয়তো দু-একটি কথাও বলছেন মনের অজান্তেই। স্বপ্ন মনে হচ্ছে? একবারেই নয়, মালদ্বীপ আপনাকে এমন অভিজ্ঞতা নেয়ার সুযোগ করে দিচ্ছে।

দেশটিতে এই প্রথম সাগরের নিচে চালু হয়েছে আবাসিক হোটেল। কনরাড মালদ্বীপ রাঙ্গালি দ্বীপে এই হোটেল চালু করা হয়েছে। দোতলা এই হোটেলটির অবস্থান ভারত মহাসাগরের ১৬ ফুট পানির নিচে। এর নাম দেয়া হয়েছে মুরাকা। মালদ্বীপের ভাষায় যার অর্থ কোরাল।

মুরাকায় বিছানার পাশাপাশি অন্যান্য হোটেল রুমের মতো বাকি সব সুবিধা রয়েছে। এছাড়া এর দ্বিতীয় তলায় রয়েছে প্রাইভেট জিম, একটি বার, ইনফিনিটি পুলসহ আকর্ষণীয় সব সুবিধা। এই হোটেলের সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিকটি হলো- এখানে শুয়ে সাগরের নিচের অতুলনীয় দৃশ্য উপভোগ করা যাবে।

হোটেলটির একটি অংশ পানির নিচে রাখা হলেও অপর অংশটি পানির ওপরে রাখা হয়েছে। এটা মূলত ‘বিশ্রাম নেয়ার ডেক’ হিসেবে বিবেচিত। এই জায়গায় এসে পর্যটকরা সূর্যের আলো পাবেন।

রোমাঞ্চকর এই হোটেলে থাকতে খরচ কেমন পড়বে? সিএনএনের প্রতিবেদন বলছে, মুরাকায় প্রতি রাত কাটাতে খরচ হবে ৫০ হাজার ডলার যার মান বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৪২ লাখ টাকা।

কিন্তু সমস্যা হলো এখানে একদিন থাকার কোনও সুযোগ নেই। এই হোটেলে থাকতে হলে চার রাতের একটি প্যাকেজ নিতে হবে যাতে খরচ হবে ২ লাখ ডলার বা ১ কোটি ৬৮ লাখ টাকা।

এই প্যাকেজের আওতায় আপনার সাথে একজন রাঁধুনি থাকবে ও একটি ব্যক্তিগত নৌযান দেয়া হবে। যে এই প্যাকেজ নেবেন তিনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে হিলটন ডায়মন্ড স্ট্যাটাস পাবেন।

পরিবেশগত দিকগুলো বিবেচনায় নিয়েই মুরাকা নির্মাণ করা হয়েছে। এর সবকিছুই তৈরি হয়েছে সিঙ্গাপুরে। তারপর একটি বিশেষ জাহাজে করে এগুলো মালদ্বীপ নিয়ে আসা হয়।

এলএবাংলাটাইমস/টি/এলআরটি

তারুণ্য

ইসলামের দিকে ঝুঁকলেন আরবের জনপ্রিয় পপ তারকা

নিউজ ডেস্ক : গত সেপ্টেম্বরে আমাল হিজাজী যখন ঘোষণা দিলেন যে তিনি তার সঙ্গীতের ক্যারিয়ার থেকে অবসরে যাচ্ছেন, সেটা তাঁর ভক্তদের জন্য ছিল এক বিরাট ধাক্কা। আমাল তখন বলেছিলেন, আল্লাহ তার প্রার্থনায় সাড়া দিয়েছেন। তিনি ইসলামের মধ্যেই তার সুখ-শান্তি খুঁজে পেয়েছেন। খবর- বিবিসির।

আমাল হিজাজী যখন তার গান-বাজনা ছেড়ে পুরোপুরি ইসলামী অনুশাসন মেনে জীবন-যাপন শুরু করলেন, তাঁর ভক্তরা অবাক হয়েছিলেন তখন।

কিন্তু তিন মাসের মাথায় তিনি আবার ফিরে এসেছেন গানের জগতে। তবে একেবারে নতুন রূপে এবং ভিন্ন ধরণের গান নিয়ে। ইসলামের নবী মুহাম্মদের জন্মবার্ষিকীতে তাঁকে নিয়েই একটি গান গেয়েছেন তিনি।

লেবাননের শিল্পী আমাল হিজাজী আরব দুনিয়ার জনপ্রিয় পপ তারকাদের একজন। ২০০১ সালে তাঁর প্রথম পপ রেকর্ড বাজারে আসে। পরের বছর দ্বিতীয় অ্যালবামেই তিনি এক সফল সঙ্গীত তারকায় পরিণত হন। এক দশকের মধ্যেই আমাল হিজাজী হয়ে উঠেন আরব বিশ্বের জনপ্রিয়তম সঙ্গীত তারকা।

২০০২ সালে আমাল হিজাজীর অ্যালবাম 'জামান' বাজারে আসে। এটিকে বিবেচনা করা হয় আরবী পপ সঙ্গীতের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া অ্যালবাম।

গত সেপ্টেম্বরে আমাল হিজাজী তার এক ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছিলেন তিনি সঙ্গীতের জগত ছেড়ে যাচ্ছেন।
তখন তিনি তার হিজাব পরিহিত একটি ছবিও পোস্ট করেন। এতে তিনি লিখেন, "যে শিল্প আমি ভালোবাসি এবং যে ধর্মের নৈকট্যকে আমি লালন করি, এই দুটি নিয়ে আমাকে অনেক দিন ধরেই বোঝাপড়া করতে হচ্ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আল্লাহ আমার প্রার্থনায় সাড়া দিয়েছেন।"

নবী মুহাম্মদের জন্মবার্ষিকীতে তাঁকে নিয়ে আমাল হিজাজী যে গানটি গেয়েছেন, সেটি তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন।

ইতোমধ্যে ৮০ লাখ ভক্ত তাঁর এই গানটি শুনেছেন এবং আড়াই লাখের বেশি মানুষ এটি শেয়ার করেছেন। তবে আমাল হিজাজীর এই নতুন রূপ এবং নতুন গান নিয়ে তুমুল বিতর্কও চলছে।

যেভাবে তিনি হিজাব পরেছেন, তার যে সাজ-সজ্জা, সেটা কতটা ইসলাম সম্মত তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। ইসলামে এভাবে মহিলাদের গান করার বিধান আছে কিনা সেটা জানতে চেয়েছেন অনেকে।

আবু মুহাম্মদ আল আসতাল নামের একজন ফেসবুকে লিখেছেন, "তিনি যা করছেন তা ইসলাম সম্মত নয়।"
জেইনাব মুসেলমানি লিখেছেন, "আল্লাহ যা হারাম বলেছেন, সেটা প্রশংসা দয়া করে বন্ধ করুন। তার প্রশংসা বন্ধ করুন, তাকে বরং পথ দেখান।। ধর্মটা কেন অনেকের কাছে রসিকতার ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে?"

তবে অনেক ভক্ত আবার আমাল হিজাজীর প্রশংসা করেছেন। দিনা মিশিক নামে একজন লিখেছেন, "যে মহিলা কিনা ধর্মে যা নিষিদ্ধ তা করা বন্ধ করেছে, হিজাব পরা শুরু করেছে এবং নবীর জন্য গান করছে, তোমরা কিভাবে তার সমালোচনা করো।"
এলএবাংলাটাইমস/ওয়াই/এলআরটি

মুদ্রাবাজার ও আবহাওয়া

গুরুত্বপূর্ণ লিংক