যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭ ইং

|   ঢাকা - 04:42am

|   লন্ডন - 10:42pm

|   নিউইয়র্ক - 05:42pm

  সর্বশেষ :

  ধর্ম অবমাননা নিয়ে রংপুরে সহিংসতা, আদালতে টিটু রায়ের স্বীকারোক্তি   টিকাতেই নিরাময় হবে ক্যান্সার   মিয়ানমারে রোহিঙ্গারা ‘জাতিগত বৈষম্যের’ শিকার : অ্যামনেস্টি   ঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র জালিয়াতি, আটক ৮   নাইজেরিয়ায় মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৫০   রোহিঙ্গাদের ফেরাতে চলতি সপ্তাহে সমঝোতার আশা সু চি’র   জানুয়ারি থেকে সব বাহিনীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিশেষ ভাতা: প্রধানমন্ত্রী   আমেরিকান মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসে সেরা হলেন যারা   পদত্যাগ নয়, জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন মুগাবে   কেন সৌদি আরব এমন করছে?   মরক্কোয় ত্রাণ নেওয়ার সময় পদদলিত হয়ে নিহত ১৫   ৭ মার্চকে ঐতিহাসিক দিবস ঘোষণা চেয়ে হাইকোর্টে রিট   শাহজালালের মাজারের কুপের পানিকে জমজমের পানি বলে প্রতারণা : তদন্তের নির্দেশ আদালতের   এলপিজি আমদানির জাহাজ কিনলো বেক্সিমকো পেট্রোলিয়াম   রোহঙ্গিা সঙ্কট নিরসনে চীনের ৩ ধাপের প্রস্তাব

স্বদেশ


জানুয়ারি থেকে সব বাহিনীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিশেষ ভাতা: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামী জানুয়ারি থেকে সশস্ত্র বাহিনীসহ অন্যান্য বাহিনীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিশেষ ভাতা প্রদান করা হবে। এসময়

২০১৭-১১-২১ ০৯:৫৭:১০

বহিঃ বিশ্ব


রোহিঙ্গাদের ফেরাতে চলতি সপ্তাহে সমঝোতার আশা সু চি’র

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফেরাতে বাংলাদেশের সঙ্গে চলমান আলোচনায় চলতি সপ্তাহেই ‘নিরাপদ ও স্বেচ্ছায় প্রত্যাবাসন’ শীর্ষক একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের

২০১৭-১১-২১ ০৯:৫৮:২১

লস এঞ্জেলেস


লস এঞ্জেলেসে যুবলীগের উদ্যোগে শেখ হাসিনা'র জন্মদিন পালন

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী  শেখ হাসিনা'র ৭১তম শুভ জন্মদিন পালন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ ক্যালিফোর্নিয়া শাখা। এ উপলক্ষে গত

২০১৭-০৯-২৯ ০৬:০৪:৫২


নিউইয়র্ক


নিউইয়র্কে ম্যানহাটান বাংলা সাংস্কৃতিক স্কুলে বর্ণাঢ্য বই উৎসব

নিউজ ডেস্ক : বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নিউইয়র্কে ম্যানহাটান বাংলা সাংস্কৃতিক স্কুলে বাংলা পাঠ্যপুস্তক উৎসব উদযাপিত হয়েছে। স্থানীয় সময় গত ৮ অক্টোবর

বিস্তারিত

ইউরোপের খবর


জলবায়ু পরিবর্তন : ইউরোপে বছরে মরবে দেড় লাখ মানুষ!

নিউজ ডেস্ক : বিজ্ঞানীরা আশঙ্কা করছেন, যদি জলবায়ু পরিবর্তন রোধে কিছুই করা না হয়, তাহলে ২১০০ সাল নাগাদ চরম আবহাওয়ার কবলে পড়ে প্রতিবছর ইউরোপের ১ লাখ ৫২ হাজার মানুষ

বিস্তারিত


চাকরীর খবর


পদবী প্রতিষ্ঠান আবেদনের শেষ তারিখ
Account Executive Dental Health Services - San Diego/Orange County, CA ২০১৫-০২-১৩
AIRPORT GUIDE 0845 City of Los Angeles Personnel Department ২০১৫-০২-১২

আর্কাইভ

খেলাধুলা

আবারও বিসিবি সভাপতি পাপন

নিউজ ডেস্ক : টানা তৃতীয়বারের মতো বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন নাজমুল হাসান পাপন।

বুধবার বিসিবির পরিচালনা পর্ষদের সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

অবশ্য নতুন মেয়াদে পাপনের দায়িত্বে আসা নিশ্চিতই ছিল; বাকি ছিল স্রেফ আনুষ্ঠানিকতা। বুধবার সেই আনুষ্ঠানিকতাই সারা হলো।

২০১২ সালে প্রথমবারের মতো বিসিবি সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছিলেন নাজমুল হাসান পাপন।আগের বিসিবি প্রধান আ হ ম মুস্তফা কামাল আইসিসির সহ-সভাপতির দায়িত্ব নিলে সরকারের মনোনয়নে দায়িত্ব পান পাপন। এরপর ২০১৩ সালের অক্টোবরে তিনি দায়িত্ব নেন বিসিবির প্রথম নির্বাচিত সভাপতি হিসেবে।

২০১৩ সালের নির্বাচনের আগে নির্বাচন প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে আগেই সরে দাঁড়ায় নাজমুলের সম্ভাব্য বিরোধীপক্ষ সাবের হোসেন চৌধুরীর প্যানেল। নাজমুল তাই নির্বাচিত হয়েছিলেন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়। এবারের নির্বাচনে কোনো বিরোধী পক্ষই ছিল না। পাপন আবারও নির্বাচিত হলেন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়।

সভাপতি নির্বাচনের মতো এবার বিসিবির পরিচালক নির্বাচনেও ছিল না তেমন কোনো উত্তাপ। ২৫ পরিচালকের ২০ জনই আগেই নির্বাচিত হয়ে যান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের মনোনয়নে সরাসরি পরিচালক হয়েছেন দুজন। বাকি তিনটি পদে নির্বাচন হয় মঙ্গলবার।

নির্বাচনে কৌতুহল ছিল স্রেফ আগের পরিচালনা পর্ষদের পরিচালক ও দেশের প্রথম টেস্ট অধিনায়ক নাঈমুর রহমানকে নিয়ে। নাঈমুরসহ আরও দুজন পরিচালক হয়েছেন ভোটে জিতে।

ইসলামী জীবন

১ অক্টোবর পবিত্র আশুরা

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশের আকাশে ১৪৩৯ হিজরি সনের পবিত্র মুহররম মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ফলে ২২ সেপ্টেম্বর শুক্রবার থেকে পবিত্র মুহররম মাস গণনা করা হবে। এ হিসেবে পয়লা অক্টোবর রোববার সারা দেশে পবিত্র আশুরা পালিত হবে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমান।


প্রবাসী কমিউনিটি

ফোবানা’র নতুন নির্বাহী কমিটি ঘোষণা

নিউজ ডেস্ক : ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের মায়ামীর হায়াত রিজেন্সি হোটেলে অনুষ্ঠিত ফেডারেশন অব বাংলাদেশী এসোশিয়েশন ইন নর্থ আমেরিকা (ফোবানা)-এর বার্ষিক সাধারণ সভা গত ৮ অক্টোবর রোববার অনুষ্ঠিত হয়। সভায় দুই বছর মেয়াদে (২০১৭-২০১৮) ফোবানা নির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়। ফোবানা’র এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনের এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারী শাহ হালীম নতুন কমিটির কথা জানান।

কমিটির নির্বাচিত কর্মকর্তারা হলেন: চেয়ারপারসন- আতিকুর রহমান (ফ্লোরিডা), ভাইস-চেয়ারপারসন- মোহাম্মদ আলমগীর (ভার্জিনিয়া), এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারী- শাহ হালীম (টেক্সাস), জয়েন্ট এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারী- জাকারিয়া চৌধুরী (নিউইয়র্ক), কোষাধ্যক্ষ- মাসুদ রব চৌধুরী (ক্যালিফোর্নিয়া) এবং নির্বাহী সদস্য যথাক্রমে আজাদুল হক (টেক্সাস), মোহাম্মদ মওলা দিলু (জর্জিয়া), এম রহমান জহির (ফ্লোরিডা),  আরিফ আশরাফ (ফ্লোরিডা), রেহান রেজা (ক্যনসাস), নাহিদ চৌধুরী মামুন (নিউজার্সি), বেদারুল ইসলাম বাবালা (নিউইয়র্ক)।
ফোবানা কমিটির এক্সিকিউটিভ সদস্য সংগঠন হচ্ছে: বাংলাদেশ আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব জর্জিয়া (বিএএএজি), ড্রামা সার্কেল, নিউইয়র্ক, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব জর্জিয়া ইনক, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব লস এঞ্জেলেস-বালা (ক্যালিফোর্নিয়া), বাংলাদেশ আমেরিকান উইমেন অ্যাসোসিয়েশন অব টেক্সাস, বাংলাদেশ আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন ইনক-বিএএআই (মেরিল্যান্ড/ভার্জিনিয়া), মিড কন্ট্রিনেন্ট বাংলাদেশ এসোসিয়েশন (কানসাস), বৃহত্তর ওয়াশিংটন ডিসি বাংলাদেশ এসোসিয়েশন (ভার্জিনিয়া), আমেরিকান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটি, (ভার্জিনিয়া), বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব হিউস্টন (টেক্সাস), বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব নিউজার্সি (ব্যাজ), বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব নর্থ টেক্সাস (বান্ট) এবং সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা বাংলাদেশ আমেরিকান ফাউন্ডেশন (ফ্লোরিডা)।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব জর্জিয়া (বিএএএজি) আগামী বছর অর্থাৎ ২০১৮ সালের ফেবানা সম্মেলনের ফোনেটাইজ আয়োজক আর পরবর্তী বছরের অর্থাৎ ২০১৯ সালের ফোবানা সম্মেলনের আয়োজক হচ্ছে ড্রামা সার্কেল, নিউইয়র্ক।


এলএবাংলাটাইমস/এলএ/এলআরটি

লস এঞ্জেলেস

লস এঞ্জেলেসে যুবলীগের উদ্যোগে শেখ হাসিনা'র জন্মদিন পালন

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী  শেখ হাসিনা'র ৭১তম শুভ জন্মদিন পালন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ ক্যালিফোর্নিয়া শাখা। এ উপলক্ষে গত বুধবার লস এঞ্জেলেসে  লিটল বাংলাদেশের আলাদিন রেষ্টুরেন্টে এক প্রার্থনা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
শাখা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক সৈয়দ একরামুল হক বাবুর পরিচালনায় ও সুবর্ন নন্দী তাপসের সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সংগ্রামী যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মন্‌জুর আলম শাহীন ভাই। তার উপস্থিতির জন্য ক্যালিফোর্নিয়া যুবলীগ কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যের পর উপস্থিত সবাই নেত্রীর দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করে প্রার্থনা করেন। এরপর সকলে মিলে কেক কেটে নেত্রীর শুভ জন্মদিন পালন করেন। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন যুবলীগ, আওয়ামীলীগ, মহিলা লীগ, সিটি আওয়ামীলীগের অসংখ্য নেতা-কর্মী। অল্প সময়ের মধ্যে সুন্দর অনুষ্ঠান উপহার দেয়ার জন্য যুবলীগের প্রতিটি নেতাকর্মীকে এবং উপস্থিত সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

এলএবাংলাটাইমস/এল/এলআরটি

বিনোদন


বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত নায়করাজ

নিউজ ডেস্ক : রাজধানীর বনানীরবুদ্ধিজীবী কবরস্থানেবাংলাদেশের চলচ্চিত্রের উজ্জ্বল নক্ষত্র কিংবদন্তি নায়করাজ রাজ্জাকের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

বিস্তারিত

রান্নাবান্না


রেসিপি: নারিকেলী গোশত

নিউজ ডেস্ক : এই বৃষ্টি, এই রোদ। আবহাওয়ার মতিগতি
বোঝা যেন মুশকিল হয়ে পড়েছে!
এই সময় খাবারের মেনুতে যদি থাকে
খিচুড়ি, গরুর মাংস, তাহলে সেটা দারুণ একটা
ব্যাপার।

বিস্তারিত


লন্ডন

শুকনো নারকেলের স্বাস্থ্য উপকারিতা

স্বাস্থ্য ডেস্ক : গ্রীষ্ম মণ্ডলীয় আবহাওয়ায় নারিকেল গাছ বৃদ্ধি পায়। একারণেই গ্রীষ্মমণ্ডলীয় অঞ্চলের  বাসিন্দাদের ডায়েটের একটি প্রধান অংশ হচ্ছে নারইকেল। শীত প্রধান দেশে যারা বাস করেন  তাদের অনেকেই হয়তো কাঁচা নারকেলের শাঁস কখোনো খান নি। নারকেলের খোলস থেকে এর শাঁস বা মাংসল অংশ আলাদা করাটা একটু কঠিন। বাজারে আস্ত নারকেল ও ভাঙ্গা নারকেল কিনতে পাওয়া যায়। এই শুকনো নারকেলের শাঁস এমনিতেও খাওয়া যায় আবার অন্য খাবারের সাথে মিশিয়ে বা পিঠা তৈরির সময় ও ব্যবহার করা যায়। শুকনো নারকেলের শাঁসের প্রচুর পুষ্টি উপকারিতা আছে, যা আমরা জানবো আজকের ফিচারে।
১। ফ্যাটি এসিডএক কাপ কাঁচা নারকেলের মাংসে ২৮৩ ক্যালোরি থাকে। যার বেশীরভাগই আসে ২৬.৮ গ্রাম ফ্যাট থেকে। বেশীরভাগ উদ্ভিজ খাদ্যে খুব কম সম্পৃক্ত ফ্যাট থাকে, কিন্তু শুকনো নারকেলে এটি প্রচুর পরিমাণে থাকে প্রায় ২৩.৮ গ্রাম করে প্রতি কাপে। যদিও অন্য সম্পৃক্ত চর্বিতে ফ্যাটি এসিডের দীর্ঘ শৃঙ্খল থাকে, কিন্তু নারকেলের চর্বির ফ্যাটি এসিডের শৃঙ্খল মধ্যম আকারের হয়। দীর্ঘ ফ্যাটি এসিডের চেইন এর চেয়ে মধ্যম আকারের ফ্যাটি এসিড খুব দ্রুত ভাঙ্গে। তাই তারা কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি করেনা। দ্যা ফিলিপাইন জার্নাল অফ কার্ডিওলজি এর মতে, নারিকেলের ফ্যাট সম্ভবত খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে এবং ভালো কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এই সম্ভাব্য উপকারিতা থাকা সত্ত্বেও যদি আপনার হৃদরোগ এবং উচ্চ কোলেস্টেরলের সমস্যা থাকে তাহলে নারিকেল খাওয়ার বিষয়টি আপনার চিকিৎসকের সাথে কথা বলে জেনে নিন।
২। ফাইবার শুকনো নারকেলের শাঁসে প্রচুর ফাইবার থাকে, এক কাপে ৭.২ গ্রাম। যা একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের দৈনিক চাহিদার ২০% এর বেশি। ফাইবার হজম প্রক্রিয়ায় সাহায্য করে মলের পরিমাণ বৃদ্ধি করার মাধ্যমে। ফাইবার পেট ভরা রাখতেও সাহায্য করে বলে আপনি যদি ওজন কমাতে চান তাহলে নারিকেল খেতে পারেন।
৩। ম্যাঙ্গানিজনারিকেলে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় খনিজ ম্যাঙ্গানিজ থাকে। এক কাপ নারিকেলে একজন মানুষের দৈনিক চাহিদার ৬৭% ম্যাঙ্গানিজ থাকে। ম্যাঙ্গানিজ ফ্যাট ও প্রোটিন বিপাকে সাহায্য করে। এছাড়াও ইমিউন সিস্টেম ও স্নায়ু তন্ত্রের কাজে সাহায্য করে এবং রক্তের চিনির মাত্রা স্থিতিশীল রাখতে সাহায্য করে। ম্যাঙ্গানিজ শরীরকে আয়রন, থায়ামিন এবং ভিটামিন ই এর ব্যবহারে সাহায্য করে।
৪। পটাসিয়াম ও কপারশুকনো নারকেলের শাঁসে অন্য দুটি গুরুত্বপূর্ণ খনিজ পটাসিয়াম ও কপার ও থাকে। এক কাপ নারিকেলে ১৪% পটাসিয়াম ও ৩৯% কপার থাকে। শরীরের কোষের তরলের ভারসাম্য রক্ষায় সাহায্য করে পটাসিয়াম। পেশীর বৃদ্ধি ও হৃদপিন্ডের কাজের জন্য প্রয়োজনীয় পটাসিয়াম। লাল রক্ত কোষের উৎপাদনের জন্য প্রয়োজনীয় কপার এবং স্বাদের অনুভূতিতেও সাহায্য করে কপার।  

মধ্য প্রাচ্যের খবর

সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬

নিউজ ডেস্ক : ধুলিঝড়ের কারণে সৌদি আরবে পাঁচ বাসের সংঘর্ষে অন্তত ছয়জন নিহত ও ৮১ জন আহত হয়েছেন। নিহতদের যাদের মধ্যে বাংলাদেশিও থাকতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে। শুক্রবার রাতে মদিনা-কাশিম মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

রবিবার (২৮ মে) এ খবর প্রকাশ করেছে সৌদি আরবের সংবাদ মাধ্যম সৌদি গেজেট।

খবরে বলা হয়, ওমরাহ শেষে যাত্রীদের নিয়ে বাসগুলো সৌদি আরবের রিয়াদ ও আরব আমিরাতের দিকে যাচ্ছিল। আল কাশিম প্রদেশের রাজধানীর বুরাইদাহ থেকে ২২৫ কিলোমিটার দূরে সাকরিয়াত কাবরা সেতুর কাছে সেগুলো দুর্ঘটনায় পড়ে।

দেশটির আল কাশিম প্রদেশের সিভিল ডিফেন্সের উপ মুখপাত্র কর্নেল আবদুলআজিজ আল-তামিমির বরাত দিয়ে সৌদি পত্রিকাটি জানিয়েছে, শুক্রবার রাতে এ দুর্ঘটনায় অন্তত ৮১ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ১৬ জনের অবস্থা গুরুতর।

সৌদি গেজেট লিখেছে, পাঁচটি বাসে অন্তত দুইশ যাত্রী ছিলেন। নিহতদের মধ্যে বাংলাদেশি ও ভারতীয় নাগরিকও রয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সৌদি গেজেট জানিয়েছে, ধুলিঝড়ের কারণে দৃষ্টিসীমা কমে আসায় মহাসড়কে দুটি বাহনের মধ্যে সংঘর্ষের পর বাকিগুলোও দুর্ঘটনায় পড়ে বলে ধারণা করা হচ্ছে।


এলএবাংলাটাইমস/এমই/এলআরটি

বিজ্ঞাপন

লাইফ স্টাইল


যেভাবে তৈরি করবেন নেইল পলিশ রিমুভার

লাইফস্টাইল ডেস্ক : নেইল পলিশ তুলে ফেলার কাজটা তেমন কঠিন নয় বটে। কিন্তু আপনার হাতে সময় কম থাকলে রিমুভার, টিস্যু বা কটন বল নিয়ে বসে নেইল পলিশ তোলার কাজটি বিরক্তিকর লাগতে

বিস্তারিত

নামাযের সময়সূচি

জনমত জরিপ


আইটি

অনলাইন শ্রমিক সরবরাহে বাংলাদেশ দ্বিতীয়

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশ বিশ্বে দ্বিতীয় বৃহত্তম অনলাইন শ্রমিক সরবরাহকারী দেশ। সম্প্রতি এক রিপোর্টে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। নিয়োগকর্তাদের সঙ্গে ফ্রিল্যান্সারদের সংযোগ করার ক্ষেত্রে ইন্টারনেট প্লাটফর্মগুলোর তথ্য বিশ্লেষণ করে এ রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে।

অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির অক্সফোর্ড ইন্টারনেট ইনস্টিটিউট প্রকাশিত এ রিপোর্টে বলা হয়েছে, অনলাইন শ্রমিক বা ফ্রিল্যান্সার সরবরাহে বিশ্বের মোট বাজারের ১৬ শতাংশ বাংলাদেশের দখলে রয়েছে। এই বাজারের ২৪ শতাংশ দখলে নিয়ে বিশ্বে প্রথম অবস্থানে রয়েছে ভারত। ১২ শতাংশ দখলে নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। চতুর্থ, পঞ্চম ও ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে যথাক্রমে পাকিস্তান, ফিলিপাইন এবং যুক্তরাজ্য।

‘আই-লেবার প্রজেক্ট’ হিসেবে এই রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে। যার অংশ হিসেবে অনলাইন শ্রমিক সূচক তৈরি করা হয়ে থাকে। রিপোর্টে দেখা গেছে, বিভিন্ন দেশের অনলাইন শ্রমিক বা ফ্রিল্যান্সাররা ভিন্ন ভিন্ন কাজের ওপর প্রাধান্য দিয়ে থাকে। যেমন সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ও টেকনোলজি ক্যাটাগরিতে শীর্ষে রয়েছে ভারতীয় উপমহাদেশের দেশগুলো, যাদের দখলে রয়েছে সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ও টেকনোলজির ৫৫ শতাংশ বাজার।

অন্যদিকে প্রফেশনাল সার্ভিস ক্যাটাগরি যেমন অ্যাকাউন্টিং, লিগ্যাল সার্ভিস ও বিজনেস কনসাল্টিংয়ের বাজারে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাজ্য। মোট বাজারের ২২ শতাংশ রয়েছে তাদের দখলে। ভারতে অনলাইনে কাজের ক্ষেত্রে সফটওয়্যার এবং টেকনোলজি শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। ক্রিয়েটিভ এবং মাল্টিমিডিয়া রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। সেলস এবং মার্কেটিং সাপোর্ট দেশটিতে অনলাইনে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে।

ফিজার, ফ্রিল্যান্সার, গুরু এবং পিপলপারআওয়ার- এই ৪টি অনলাইনের তথ্য বিশ্লেষণ করে রিপোর্টটি তৈরি করেছে অক্সফোর্ড ইন্টারনেট ইনস্টিটিউট। প্রতিষ্ঠানটির জ্যেষ্ঠ গবেষক ভিলি লেদনভিরতা বলেন, বিশ্বের মোট ফ্রিল্যান্সিং কাজের ৪০ শতাংশ দখল করে রেখেছে এই চারটি প্লাটফর্ম। সাইটগুলোর ট্রাফিকের তথ্যানুসারে এই রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে। আমরা প্লাটফর্মগুলোকে প্রতিনিধিত্বশীল বলতে পারি।


এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি

সুস্থ থাকুন

ইসবগুলের ভুসি খাওয়ার সঠিক নিয়ম

নিউজ ডেস্ক : ইসবগুলের ভুসি আভ্যন্তরীণ পাচন তন্ত্রের সমস্যার ঘরোয়া চিকিৎসা ও প্রতিকারের জন্য বেশ উপকারী। তবে এই সাদা ভুসিটির উপকারিতা শুধু হজমতন্ত্রের মাঝেই সীমিত নয়। এর অনেক ধরনের উপকারিতা রয়েছে। চলুন তাহলে একে একে জেনে নিই ইসবগুলের ভুষির আরো অনেক উপকারিতা।কোষ্ঠকাঠিন্য দূরীকরণে
ইসবগুলের ভুষিতে থাকে কিছু অদ্রবণীয় ও দ্রবণীয় খাদ্যআঁশের চমৎকার সংমিশ্রণ যা কোষ্ঠকাঠিন্যের জন্য খুব ভালো ঘরোয়া উপায় হিসেবে কাজ করে। ইসবগুলের ভুষি পাকস্থলীতে গিয়ে ফুলে ভেতরের সব বর্জ্য পদার্থ বাইরে বের করে দিতে সাহায্য করে। প্রাকৃতিকভাবে জলগ্রাহী হওয়ার কারনে পরিপাকতন্ত্র থেকে পানি গ্রহণ করে মলের ঘনত্বকে বাড়িয়ে দিয়ে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে ২ চামচ ইসবগুল এক গ্লাস কুসুম গরম দুধের সাথে মিশিয়ে প্রতিদিন ঘুমাতে যাবার আগে পান করে নিন।ডায়রিয়া প্রতিরোধে
যদিও শুনলে অবাক লাগে, ইসবগুল একই সাথে ডায়রিয়া ও কোষ্ঠকাঠিন্য দুটিই প্রতিরোধ করতে সক্ষম। ডায়রিয়া প্রতিরোধে ইসবগুল দইয়ের সাথে মিশিয়ে খেলে উপকার পাওয়া যায়। কারণ দইয়ে থাকা প্রোবায়োটিক পাকস্থলীর ইনফেকশন সারায় এবং ইসবগুল তরল মলকে শক্ত করতে সাহায্য করে খুব কম সময়ের মাঝে ডায়রিয়া ভালো করতে পারে। ডায়রিয়া প্রতিরোধে ২ চামচ ইসবগুল ৩ চামচ টাটকা দইয়ের সাথে মিশিয়ে খাবার পর খেতে হবে। এভাবে দিনে ২ বার খেলে বেশ কার্যকরী ফলাফল পাওয়া সম্ভব।অ্যাসিডিটি প্রতিরোধে
বেশির ভাগ মানুষেরই অ্যাসিডিটির সমস্যা থাকে আর ইসবগুলের ভুষি হতে পারে এই অবস্থার ঘরোয়া প্রতিকার।ইসগুল খেলে তা পাকস্থলীর ভেতরের দেয়ালে একটা প্রতিরক্ষা মূলক স্তর তৈরি করে যা অ্যাসিডিটির বার্ন থেকে পাকস্থলীকে রক্ষা করে। এছাড়া এটি সঠিক হজমের জন্য এবং পাকস্থলীর বিভিন্ন এসিড নিঃসরণে সাহায্য করে।ইসবগুল অ্যাসিডিটিতে আক্রান্ত হওয়ার সময়টা কমিয়ে আনে। প্রতিবার খাবার পর ২ চামচ ইসবগুল আধা গ্লাস ঠাণ্ডা দুধে মিশিয়ে পান করুন। এটি পাকস্থলীতে অত্যাধিক এসিড উৎপাদন কমাতে সাহায্য করে অ্যাসিডিটির মাত্রা কমায়।ওজন কমাতে
ওজন কমানোর উদ্দেশ্যকে সফল করতে ইসবগুলের ভুষি হচ্ছে উত্তম হাতিয়ার। এটি খেলে বেশ লম্বা সময় পেট ভরা থাকার অনুভূতি দেয় এবং ফ্যাটি খাবার খাওয়ার ইচ্ছাকে কমায়। এছাড়াও ইসবগুলের ভুষি কোলন পরিষ্কারক হিসেবেও পরিচিত।এটি পাকস্থলী থেকে বর্জ্য পদার্থ বের করে দিতে সাহায্য করে, হজম প্রক্রিয়াকে আরো বেশি কার্যকর করে স্বাস্থ্যবান থাকতে সাহায্য করে। ভেষজ শাস্ত্র অনুযায়ী এটি পাকস্থলীর দেয়ালে যেসব বর্জ্য পদার্থ থাকে তা পরিষ্কার করতে সাহায্য করে যা অন্যান্য হজমজনিত সমস্যাও দূর করে। কুসুম গরম পানিতে ২ চামচ ইসবগুলের ভুষি ও সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে নিয়ে ভাত খাবার ঠিক আগে খেতে হবে। সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে খেলেও তা ওজন কমাতে সাহায্য করবে। হজমক্রিয়ার উন্নতিতে
দ্রবণীয় ও অদ্রবণীয় খাদ্যআঁশে ভরপুর ইসবগুলের ভুষি হজম প্রক্রিয়াকে সঠিক অবস্থায় রাখতে সাহায্য করে।এটি শুধু পাকস্থলী পরিষ্কার রাখতেই সাহায্য করে না এটি পাকস্থলীর ভেতরের খাবারের চলাচলেও এবং পাকস্থলীর বর্জ্য পদার্থ নিষ্কাশনেও সাহায্য করে।তাই হজম প্রক্রিয়াকে উন্নত করতে নিয়মিতভাবে ইসবগুল খেতে পারেন। এছাড়া মাঠা বা ঘোলের সাথে ইসবগুল মিশিয়ে খেতে পারেন ভাত খাওয়ার পরপরই। তবে একটা ব্যাপার খেয়াল রাখতে হবে তা হল ইসবগুল মিশিয়ে রেখে না দিয়ে সাথে সাথেই খেয়ে ফেলতে হবে।হৃদস্বাস্থ্যের সুস্থতায়
ইসবগুলের ভুষিতে থাকা খাদ্যআঁশ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে যা আমাদেরকে হৃদরোগের থেকে সুরক্ষিত করে।হৃদরোগের সুস্থতায় ইসবগুল সাহায্য করে কারন এটি উচ্চ আঁশ সমৃদ্ধ এবং কম ক্যালরিযুক্ত। ডাক্তাররা সব সময় হৃদরোগ প্রতিরোধে এমন খাবারের কথাই বলে থাকেন।এটি পাকস্থলীর দেয়ালে একটা পাতলা স্তরের সৃষ্টি করে যার ফলে তা খাদ্য হতে কোলেস্টেরল শোষণে বাধা দেয় বিশেষ করে রক্তের সিরাম কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। এছাড়াও এটি রক্তের অতিরিক্ত কোলেস্টেরল সরিয়ে দেয় যা থাকলে ধমনীতে ব্লকের সৃষ্টি হতে পারে। এর ফলে তা হৃদরোগ এবং কোরোনারী হার্ট ডিজিজ থেকে আমাদের রক্ষা করে। তাই হার্টকে সুস্থ রাখতে নিয়মিত ভাবে খাবারের ঠিক পরে বা সকালে ঘুম থেকে উঠে ইসবগুল খান। ডায়াবেটিস প্রতিরোধে
ইসবগুলের ভুষি যাদের ডায়াবেটিস আছে তাদের জন্য খুবই ভালো। এটি পাকস্থলীতে যখন জেলির মত একটি পদার্থে রূপ নেয় তখন তা গ্লুকোজের ভাঙন ও শোষণের গতিকে ধীর করে। যার ফলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে থাকে। খাবার পর নিয়মিতভাবে দুধ বা পানির সাথে ইসবগুলের ভুষি মিশিয়ে পান করুন ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করতে।তবে দইয়ের সাথে মিশিয়ে খাবেন না এতে কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দিতে পারে।পাইলস প্রতিরোধে
প্রাকৃতিক ভাবে দ্রবণীয় ও অদ্রবণীয় খাদ্যআঁশে ভরপুর ইসবগুলের ভুষি যারা পায়ুপথে ফাটল এবং পাইলসের মত বেদনাদায়ক সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য উত্তম। এটা শুধু পেট পরিষ্কার করতেই সাহায্য করেনা মলকে নরম করতে সাহায্য করে অন্ত্রের পানিকে শোষণ করার মাধ্যমে এবং ব্যাথামুক্ত অবস্থায় তা দেহ থেকে বের হতেও সাহায্য করে। এটি প্রদাহের ক্ষত সারাতেও সাহায্য করে। ২ চামচ ইসবগুল কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে ঘুমাতে যাবার আগে পান করুন।সতর্কতা
এটি শুধুমাত্র উল্লেখিত সমস্যা গুলোর ঘরোয়া সমাধান। যদি খুব বেশি গুরুতর অবস্থা হয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন।ইসবগুল কেনার সময় দেখে নিন
ইসবগুলের ভুষি আমাদের দেশে বাজার থেকে শুরু করে সুপার মার্কেট সব জায়গাতেই বেশ সহজলভ্য। তবে কেনার আগে কিছু ব্যাপার অবশ্যই খেয়াল রাখবেন-প্যাকেটজাত ইসবগুল কিনুন
কখনোই খোলা ইসবগুল কিনবেন না সেগুলো নষ্ট ও ভেজাল থাকতে পারে যার ফলে এটি খেয়ে হয়তো ভালো ফলাফল নাও পেতে পারেন।আজকাল প্যাকেটজাত বিভিন্ন ধরনের কৃত্রিম স্বাদের ইসবগুলের ভুষিপাওয়া যায়। তবে ভালো ফলাফল পেতে গেলে এসব কৃত্রিম স্বাদের ইসবগুল না খেয়ে সাধারণ ইসবগুল খান।বিভিন্ন দোকানে সাধারন ইসবগুলে কৃত্রিম স্বাদ ও রঙ যোগ করে বিশেষ কার্যকারিতার কথা বলে তা বিক্রয় করা হয় যা মূলত স্বাস্থ্যের জন্য খুবই খারাপ। তাই সাধারণ ইসবগুলের ভুষি খাওয়াই সবচেয়ে উত্তম।

ফটো গ্যালারি

জনপ্রিয় পত্রিকাসমূহ

কলাম

ধর্ষণ বিরোধী আন্দোলনঃ

সম্পা বনিক : শুধু শাহবাগে নয়, প্রতিটি পরিবারে, পাড়ায়, মহল্লায় প্রতিরোধ গড়ে তুলুন ধর্ষণ বিরোধী। ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান থেকে জলাশয়- কোথায় হচ্ছে না ধর্ষণ? পাঁচ বছরের শিশু থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী, কেউই এসব জানোয়ারদের ছোবল থেকে বাঁচতে পারছে না। কিছু দিন আগে মেয়ের ধর্ষণের বিচার না পেয়ে মেয়েকে নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন একজন বাবা। আর বাকিরা যারা বেঁচে আছে, তারা না মরে বেঁচে আছে ঠিক যেমনটি বেঁচে আছে তনুর মতো কন্যাদের বাবারা ।
আমাদের অন্যায্য পুরুষ শাষিত সমাজে ধর্ষকরা নন্দিত, ধর্ষিতারা নিন্দিত। ধর্ষনের সমস্ত দায়ভার, সমস্ত লজ্জ্বা, সমস্ত অপমান আর উপহাসের ভারী পাহাড় সমাজ তুলে দেয় নারীর উপর, আর পশুর ন্যায় ধর্ষক পুরুষরা পৈশাচিক অত্যাচার করেও তাদের ক্ষমতা, উপর তালার মানুষদের সহযোগিতা আর অর্থের বলে পার পেয়ে যায় তাদের অপরাধ থেকে। সমাজে লজ্জিত, লাঞ্ছিত হয় ধর্ষিতা নারী, অত্যাচারিত হয়েও মুখ ঢেকে চলতে হয় সমাজের উপহাস এড়াতে- কারণ কলঙ্ক শুধু নারীর জন্য, পুরুষের জন্য নয়। সমাজের এই কলঙ্কজনক পরিস্থিতির মোকাবেলা সম্মিলিতভাবে না করা পর্যন্ত সমাজে, দেশে এসব অত্যাচার চলতে থাকবেই। সামাজিক অবহেলায় তিল তিল করে মরে যাওয়া ধর্ষিতা্দের অভিশাপগ্রস্ত দেশটির নাম বাংলাদেশ। মাঝে মাঝে ভয় হয়, ধর্ষকের অভয়ারণ্য কি হয়ে যাচ্ছে আমার আপনার প্রিয় বাংলাদেশ !
যারা আমাদের চারপাশের সমাজকে নারীর বসবাসের অযোগ্য করে যাচ্ছে, মানুষ নামের সেই সব হিংস্র পশুদের আর ছাড় দেবেন না- এই হোক আমাদের প্রতিজ্ঞ। প্রতিটি মানুষ মেরুদন্ড সোজা করে এদের বিরুদ্ধে দাঁড়ান, যারা ভাবে ধর্ষণ করার লাইসেন্স তাদেরকে বিত্তবান পিতা বা বিচারহীন সমাজ ব্যবস্থার মাধ্যমে রাষ্ট্র তাদেরকে দিয়েছে। যেহেতু রাষ্ট্র ও সমাজ ব্যবস্থা চোখে ঠুলি আর মুখে কুলুপ দিয়ে বসে আছে তাই আমাদের সন্তানের দায়িত্ব আমাদেরকেই নিতে হবে ।
ধর্ষণ প্রতিটি নারীর মেধা, বল, আশা, স্বপ্ন, লক্ষ্য, ও সম্ভ্রমকে ধূলায় মিশিয়ে দেয়। ধর্ষিতা মায়ের সন্তানের বেদনা, ধর্ষিতা বোনের ভাইয়ের কষ্ট, ধর্ষিতা কন্যার পিতার শোক, নারীর সর্বস্ব হারানো অপরিমেয় মরম-জ্বালা উপলব্ধি করার চেষ্টা করুন । বর্বর ধর্ষকদের বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দিয়ে ফাঁসিকাষ্ঠে ঝুলাতেই হবে।
গত ২৮ মার্চ জন্মদিনের পার্টিতে নিয়ে দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের এই মামলার প্রধান আসামি সাফাত আহমেদ দেশের শীর্ষস্থানীয় অলঙ্কারের ব্র্যান্ড ‘আপন জুয়েলার্স’র মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে। নারীর সম্মানে যারা হাত দিয়েছে তাদের প্রতি ঘৃণা জানিয়ে আসুন প্রতিজ্ঞা করি কোনো নারী আর নিজেকে সাজাবে না “আপন জুয়েলার্স' অলঙ্কারে”- যদি সেই অলংকার বিনামূল্যেও হয় , তবুও না।ঠিক তেমনি ভাবে ধর্ষক ও ধর্ষক পরিবারকেও সামাজিকভাবে প্রত্যাখ্যান করুন| পৃথিবীর যেই প্রান্তেই তারা পালাক না কেন তাঁদেরকে ঘৃণা ভরে প্রত্যাখ্যান করুন|
আমরা যদি একটু পিছনের দিকে দেখি একটা সময় নারীর প্রতি “এসিড সন্ত্রাস” একটা মারাত্মক সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছিল| তথ্য উপাত্ত অনুসারে বাংলাদেশে প্রথম এসিড সন্ত্রাস ঘটনা ঘটে ১৯৬৭ সালে। এর পর আবার এসিড সন্ত্রাস আলোচনায় আসে ১৯৯৬ সালের ১৪ সেপ্টেম্বরে শামিমার নামক এক ১৪ বছর বয়সীর প্রতি এসিড নিক্ষেপ করায়। এসিড সারভাইভাল ফাউন্ডেশনের হিসাবে ১৯৯৯ সাল থেকে বাংলাদেশে ৩ হাজারেরও বেশি এসিড হামলার ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ ছিল ২০০২ সাল। ওই বছর ৫০০টি এসিড হামলার ঘটনা ঘটে। এরপর থেকেই হামলার ঘটনা কমতে থাকে। ২০১১ সালে ৯১টি ও ২০১২ সালে ৭১টি হামলা হয়েছে। ২০০২ সালে বাংলাদেশ সরকার এসিড সন্ত্রাস দমনে কঠোর আইন প্রণয়ন করে। অভিযুক্তদের দ্রুত বিচারের পাশাপাশি এসিডের ব্যবহার, মজুত ও বিক্রির ওপর কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। এসিড নিক্ষেপকারীর জামিন নামঞ্জুর ও এক বছরের মধ্যে তাদের বিচার শেষ করার নির্দেশ দেওয়া হয়, আগে যেখানে বছরের পর বছর লেগে যেত। অভিযোগ প্রমাণিত হলে কঠোর শাস্তি দেয়ায় বিধান করা হয়েছে। বাংলাদেশের দণ্ডবিধি অনুযায়ী এসিড ছোড়ার শাস্তি হিসেবে রয়েছে সর্বনিন্ম ৭-১২বছরের জেল বা সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড।
এই পরিসংখ্যানে দেখলে বুঝা যায় বাংলাদেশের এসিড নিক্ষেপের ঘটনা যেভাবে কঠোর হাতে দমন করা হয়েছ দেরিতে হলেও, তাহলে ধর্ষনের ক্ষেত্রে কেন হচ্ছে না ? নাকি আরো কিছু নারীর অভিশাপে অভিশপ্ত হতে হবে আমাদের? আমি এটাও স্বীকার করছি, আইন বিদ্যমান থাকলেও অনেক সময় আইনের অপর্যাপ্ত প্রয়োগ না করার কারনে এসিড নিক্ষেপকারী দিব্যি ঘুরে বেড়ায়। তার পরেও এসিড সন্ত্রাস শূন্যের কোঠাতে না নামলে ও অনেক মাত্রায় নিবারণ করা হয়েছে । যে হারে ধর্ষনের মাত্রা বাড়ছে এটা একটা সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়ে গিয়েছে । নারীকে ঘরে বসিয়ে রাখলে বা ছালার বস্তা পড়িয়ে রাখলেও যারা শকুন তাদের চোখ ঠিক খুঁজে বের করবেই। এদের প্রতিহত করতে পারে শুধু মাত্র মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে । এই সব ধর্ষিতারা আমার আপনার সন্তান নয়, কিন্তু তাতে কি? কাল যে এই বিষাক্ত সাপের ছোবল থেকে আপনার সন্তানকে বাঁচাতে পারবেন তার কি কোন নিশ্চয়তা আছে? এবার যদি এই বিত্তশালী পিতার কুপুত্ররা রেহাই পেয়ে যায়, তবে বলবো সামনের দিন আরো ভয়াভয়! তাই আর দেরি নয়, আসুন আমাদের সমাজের নারীদের সম্মান, তাদের স্বপ্নের সূর্য্য স্নাত দিন আর চন্দ্রিমার আলোয় স্নাত নিরাপদ রাত আমরা ফিরিয়ে আনবোই।
ধন্যবাদ সমস্ত সংবাদ মাধ্যম কে/সংবাদ কর্মীকে যারা ধর্ষিতার ছবি প্রকাশ করেননি ।

ভার্জিনিয়া

টুকিটাকি খবর

বিভিক্ত সিলেট এবং অবিভক্ত ভালোবাসা

জিয়াউদ্দিন আহমেদ : তোমার দুঃখ তোমার থাকুক আমার দুঃখ আমার
মাঝখানে যে বরাক নদী বড় বেশী ফারাক।
 
তোমার মেঘে  বৃষ্টি হলে আমার নামে ঢল
উজান গাঙে আটকে থাকে মাঝির চোখের জল।
 
ওপারেতে কেমন আছো জানতে ইচ্ছা  করে
দুঃখের ভাগি হবার ভয়ে আশটি গুমরে মরে।
 
বাপদাদার স্মৃতি ঘেরা বুন্দাশীল গ্রাম
যাওয়া হয়নি কস্মিনকালে অপূর্ণ তাই প্রাণ।
 
ওই দেখা যায়  তোমার উঠান
সুবাস পাঠায় তোমার বাগান
কণ্ঠে শুনি  ভাটিয়ালি গান সদাই আসে ভেসে
তবুও আমরা ভিনদেশী আজ রাজার দন্ডাদেশে।
 
হোক বিভাজন মিলবো মোরা শুধুই ভালোবেসে
কালের সাক্ষী রেখে।

তারুণ্য

বঙ্গবন্ধু শুধু একটি নাম নয়, একটি আদর্শ

নিউজ ডেস্ক : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান শুধু কোন একটি নাম নয়। বঙ্গবন্ধু একটি ইতিহাস, বঙ্গবন্ধু একটি আদর্শ। বঙ্গবন্ধু একটি বিশ্বাসের নাম। ১৯৬৬ সালে বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ ‘ছয় দফা’ হতে শুরু করে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ, বাংলার আপামর জনতা অকুণ্ঠ বিশ্বাস দেখিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর প্রতি। বঙ্গবন্ধু বাঙালির মুক্তির ইতিহাস। বঙ্গবন্ধু আমাদের মন ও মননের প্রতীক। বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে ঠিক এভাবেই অনুভূতি প্রকাশ করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য বায়েজিদ কোতোয়াল।

এলএবাংলা টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বায়েজিদ বলেন, ছোটবেলায়ই তিনি রেডিও টেলিভিশনে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ শুনে মুগ্ধ হয়ে যেতেন। এভাবে বঙ্গবন্ধুর প্রতি তার আগ্রহ বাড়তে থাকে। স্বপ্ন দেখেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নের। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার প্রথম বর্ষ থেকেই তিনি জড়িত হন ছাত্র রাজনীতির সাথে। আর ক্রমেই ছাত্রলীগের নিবেদিত প্রাণ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে পরিচিতি পায় বায়েজিদ। তার এই পরিশ্রমের স্বীকৃতিও দিলেন ঐতিহ্যবাহী ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। তাকে দিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরী সদস্য পদের মর্যাদা। তিনি বঙ্গবন্ধুর নিজ হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের একজন হতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করেন।

একই সাথে তাকে যারা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পরিবারের একজন হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন বায়েজিদ।       

মুদ্রাবাজার ও আবহাওয়া

গুরুত্বপূর্ণ লিংক